সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৫৪ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২২ জুলাই, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মাধবকু- জলপ্রপাতের অভ্যন্তরীণ রাস্তা মেরামত হয়নি ১১ দিনেও

unnamedমৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি:: মাধবকু- ইকোপার্কের অভ্যন্তরের রাস্তাটি ভারী বর্ষণ আর পাহাড়ি ঢলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠায় পর্যটক প্রবেশে বনবিভাগের নিষেধাজ্ঞা জারির ১১ দিন অতিবাহিত হলেও মেরামত কাজ শেষ হয়নি। ফলে নানা প্রতিকূলতা ডিঙিয়ে মাধবকু- এলাকায় পৌঁছেও জলপ্রপাত না দেখেই প্রধান ফটক থেকে হাজার হাজার পর্যটক ফিরে যাচ্ছেন। গত বছরের ঈদ মৌসুমে অর্ধলক্ষ পর্যটকের সমাগম ঘটলেও এবার পর্যটক শূন্য দেশের প্রধান প্রাকৃতিক জলপ্রপাতটি।

উল্লেখ্য, গত ১৭ জুন রাতে ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে জলপ্রপাতের অভ্যন্তরীণ রাস্তায় ফাটল, যাতায়াতের সিঁড়ির নিচের মাটি দেবে যাওয়ায় মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। অনাকাক্সিক্ষত দুর্ঘটনা এড়াতে স্থানীয় প্রশাসন গত ২১ জুন থেকে সেখানে পর্যটক প্রবেশ বন্ধ করে দেয়। এরপর থেকে নিস্তব্ধ হয়ে পড়ে দেশের অন্যতম এ পর্যটন কেন্দ্রটি। কিন্তু ঈদ উপলক্ষে হাজার হাজার পর্যটক ছুটে যাচ্ছেন সেখানে। ভেতরে প্রবেশ করতে না পেরে অনেকে প্রধান ফটকের সামনের রাস্তায় সেলফি তুলেই জলপ্রপাত দেখার স্বাদ মিটিয়ে নিচ্ছেন।
সরেজমিনে গেলে মাধবকু- ইকোপার্কের প্রধান ফটক তালাবদ্ধ থাকতে দেখা যায়। এ সময় জলপ্রপাত দেখার জন্য ভেতরে প্রবেশ করতে শত শত পর্যটকের ভীড় জমে। এ নিয়ে পর্যটকের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পর্যটক পুলিশকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, সংস্কার কাজের দোহাই দিয়ে পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ রাখার কোনো যুক্তি নেই। বনবিভাগের মনগড়া সিদ্ধান্ত তুলে নিয়ে অবিলম্বে পর্যটকের জন্য গেটের তালা খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। এ দাবিতে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের নিয়ে পর্যটকরা মানববন্ধন কর্মসূচিও পালন করে।

ইকোপার্কের গেট ইজারাদার মুমিন উদ্দিন, জুনেদ আহমদ, রিফাত আহমদ ও স্থানীয় ব্যবসায়ী জামাল উদ্দিন, এমরান হোসেন, রাজুল ইসলাম, সাইদুল ইসলাম, শামীম আহমদ, আলী হোসেন, স্বপন আহমদ, আবুল হোসেন, হেলাল উদ্দিন, বেলাল আহমদ প্রমুখ জানান, মাধবকু- এলাকায় সবমিলিয়ে মোট ৬০পি দোকান রয়েছে। সারা বছরে ঈদুল ফিতরের ছুটিতে বেচাকেনা একটু ভালো হয়। এ বছর তারা বিক্রি ভালো হওয়ার আশায় ধার-দেনা করে দোকানগুলো সাজিয়েছিলেন। কিন্তু এবার বন্ধ থাকায় পর্যটক না আসায় তারা মন্দা সময় কাটাচ্ছেন। জলপ্রাতের রাস্তা দ্রুত মেরামত শেষে পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার জোর দাবি জানান স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।
মাধবকু- পর্যটন পুলিশের ইনচার্জ এসআই জাহাঙ্গীর আলম জানান, গেট বন্ধ করায় গত ২১ জুন থেকে পর্যটকরা নানা বিশৃক্সক্ষলা ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাচ্ছে। ঈদের দিন থেকে ব্যাপক পর্যটক আসছেন, কিন্ত কর্তৃপক্ষের অনুমতি না থাকায় পুলিশ তাদরেকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়নি। নিজেরও কষ্ট লাগছে অনেক দূর থেকে হাজার হাজার টাকা খরচ করে আসার পর গেট থেকেই তাদেরকে ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে।

বনবিভাগের স্থানীয় কর্মকর্তা শেখর রঞ্জন দাস জানান, রাস্তার মেরামত কাজের জন্য ও দুর্ঘটনা এড়াতে বিভাগীয় বন কর্মকর্তার অফিস আদেশে ইকোপার্কের প্রধান ফটক তালাবদ্ধ করা হয়েছে। গত কয়েকদিন থেকে ব্যাপকসংখ্যক পর্যটকের আগমনের সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ না পেলে তিনি গেট খুলে দিতে পারেন না।

সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আরএসএম মনিরুল ইসলাম জানান, পর্যটন কেন্দ্রটি আমরা ক্লোজ করে দিয়েছি। সিঁড়ির শেষে মাটির বস্তা ফেলে ধ্বস ঠেকানোর চেষ্টা চলছে। স্থানটি অবিরাম দেবে বিপজ্জনক অবস্থায় আছে। যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। বৃষ্টি না হলে জুলাই মাসের মধ্যে স্থায়ী সমাধানের চেষ্টা করা হবে। এজন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে বরাদ্দ চেয়েছি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: