সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৫ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শোকে শ্রদ্ধায় সুধীন দাশকে বিদায়

1498763743নিউজ ডেস্ক:: সুধীন দাশের মতো মানুষরা গত হন না, বিস্মৃতও হন না। তারা চিরজীবনের মতো বিরাজ করেন। বাংলাদেশের সংগীত জগতে সুধীন দাশের অবস্থানও কখনো মুছে যাওয়ার নয়। অনন্তের মাঝে লীন হলেও তিনি তার কর্ম নিয়ে সব সময় বাংলার সংগীত আকাশে স্থির প্রত্যয়ে বিরাজ করবেন।

গতকাল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ভক্তদের ফুলেল ভালোবাসায় শোকের ছায়ায় ঢেকে গিয়েছিল। সারিবদ্ধভাবে সবাই এসেছেন শ্রদ্ধা জানাতে। সুধীন দাশকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়ে এভাবেই স্মৃতিচারণ করলেন ভক্ত, শিক্ষার্থীসহ দেশের সংগীত জগতের ব্যক্তিত্বরা। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও নজরুল ইনস্টিটিউটে দুই দফা শ্রদ্ধাজ্ঞাপন শেষে পোস্তগোলা মহাশ্মশানে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয় নজরুল ও লালনের শুদ্ধ স্বরলিপি প্রণয়নকারী বরেণ্য এ সংগীত সাধকের।

মঙ্গলবার রাত ৮টা ২০ মিনিটে রাজধানীর এ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় মারা যান সুধীন দাশ। এর পর থেকে তার মরদেহ রাখা হয়েছিল হাসপাতালের হিমাগারে। সেখান থেকে গতকাল তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় তার মিরপুরের বাসায়। সেখান থেকে নিয়ে আসা হয় ধানমন্ডির নজরুল ইনস্টিটিউটে। মরদেহ গ্রহণ করেন নজরুল ইনস্টিটিউটের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম ও নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক ভুঁইয়া। নজরুল ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণে সুধীন দাশকে শ্রদ্ধা জানাতে আসেন সংগীতজ্ঞ আজাদ রহমান, শিল্পী ফাতেমা-তুজ-জোহরা, ফেরদৌস আরা, ইয়াসমীন মুশতারী, বুলবুল মহলানবীশ, সালাউদ্দিন আহমেদসহ সুধীন দাশের শিষ্য ও অনুরাগীরা।

নজরুল ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণে অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘নজরুলের গানের বিকৃত সুর রোধে সুধীন দাশ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।

আজাদ রহমান বলেন, ‘নজরুল সংগীতের নানা বিকৃতি রক্ষা করার দায়িত্ব আমাদের। যাতে পথ দেখাবেন সুধীন দাশ।’ ফাতেমা-তুজ-জোহরা বলেন, ‘নজরুলের গানের অথেনটিক প্ল্যাটফর্ম দিয়েছেন সুধীন দাশ। আদি গ্রামোফোন রেকর্ড থেকে সহজ নোটেশন তৈরি করেছিলেন। তিনি ছিলেন বটবৃক্ষ।’ শাহীন সামাদ বলেন, ‘তিনি চলে গেছেন ঠিকই কিন্তু আমাদের একটা অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল।

নজরুল ইনস্টিটিউটে শ্রদ্ধা নিবেদনের পরে সুধীন দাশের মরদেহ নেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তার মুখ্য সচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল ও শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নার চাঁপা এবং সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ভারপ্রাপ্ত সচিব ইব্রাহীম হোসেন খান শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। প্রাতিষ্ঠানিক ও সংগঠন হিসেবে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করে শিল্পকলা একাডেমি, গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তর, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর, উদীচী, কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, রবীন্দ্রসংগীত সম্মিলন পরিষদ, রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সংসদ, সংগীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদ, নজরুল সংগীত শিল্পী পরিষদ, বাংলাদেশ বেতার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, শিল্পিত। শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মফিদুল হক, রামেন্দু মজুমদার, ছায়ানটের নির্বাহী সভাপতি ডা. সারওয়ার আলী, আলী ইমাম, খুরশিদ আলম, সুবীর নন্দী, ইন্দ্রমোহন রাজবংশী, লাইসা আহমেদ লিসা, বুলবুল ইসলাম, শারমিন সাথী ইসলাম, বিশ্বজিত্ রায়সহ আরো অনেকে। শোক প্রকাশ পর্বটি সঞ্চালনা করেন মানজারুল ইসলাম সুইট। কামাল লোহানী বলেন, বাংলার সংগীতভুবনের পুরোধা সুধীন দাশ আমাদের পথ দেখিয়ে গেছেন।’

সৈয়দ হাসান ইমাম বলেন, ‘সুধীন দার ব্যক্তিগত জীবনে কোনো আকাঙ্ক্ষা ও ক্ষোভ ছিল না।’ রামেন্দু মজুমদার বলেন, ‘সংগীত ভুবনের এক মহীরুহের পতন হলো। মামুনুর রশীদ বলেন, ‘রাষ্ট্র ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা সুধীন দাশের কর্মময় জীবনকে যথাযথভাবে মূল্যায়ন করেননি। তিনি ব্যথা ও বেদনা নিয়ে বিদায় নিলেন।’ ইয়াসমীন মুশতারী বলেন, ‘তার শিক্ষাকে আমরা চিরকাল মনের মধ্যে ধারণ করব, চর্চা করব। ’

কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী বলেন, ‘সংগীত জীবনে সুধীন দাশ এক কিংবদন্তি হিসেবে চিরকাল উজ্জ্বল থাকবেন।’ শ্রদ্ধানুষ্ঠানের সমাপ্তি টেনে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, ‘আশির দশকে বাংলাদেশে যে সাংস্কৃতিক আন্দোলন শুরু হয় তার সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন সুধীন দাশ। তিনি রেখেছিলেন অগ্রণী ভূমিকা।’

বৃহস্পতিবার শোকসভা : নজরুল ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক ভুঁইয়া জানান, ৬ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকাল চারটায় নজরুল ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে সুধীন দাশের শোকসভা অনুষ্ঠিত হবে ইনস্টিটিউটের নিজস্ব মিলনায়তনে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: