সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নগরীতে সেলুন-পার্লারের বেড়েছে ব্যস্ততা

1. daily sylhet 0-25জীবন পাল:: মুসলমানদেও প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর সমাগত, কড়া নাড়ছে দরজায়। এরই মধ্যে ঈদের কেনাকাটা অনেকে সেরে ফেলেছেন। বাকী রয়েছে রূপচর্চার কাজ। তাই ভিড় বাড়ছে নগরীর সেলুন ও পার্লারগুলোয়।

কারও চুলটা রাঙাতে হবে, ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে কারও চাই ফেসিয়াল। মেহেদিতে হাত রাঙানো থেকে শুরু করে চুল ও পায়ের নখ পর্যন্ত চলছে পরিচর্যা। পার্লারকর্মীদের যেন দম ফেলার ফুসরত নেই। ঈদকে সামনে রেখে দীর্ঘ হচ্ছে সেবা গ্রহীতাদের লাইন। পার্লারে উপচেপড়া ভিড় লক্ষণীয় নগরীর নয়াসড়ক, জিন্দাবাজার,মনিপুরী রাজবাড়ি,লামাবাজার,আম্বরখানার বিউটি পার্লারগুলোতেও।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাতে নগরীর পার্লারের কর্মীদের এখন দম ফেলার ফুরসত নেই। ঈদ প্রাায় চলেই এসেছে। শেষ মুহূর্তে নিজেকে আকর্ষণীয় করতে তরুণ-তরুণীরা ভিড় জমাচ্ছেন শহরের নামিদামি সেলুন ও পার্লারগুলোয়। বাদ যাচ্ছেন না বয়স্করাও। চুলকাটা, রং করা, ভ্র- প্ল্যাক, ফেসিয়াল, মেনিকিউর, পেডিকিউর আরো কত কী!

বিউটি পার্লারের কর্মীরা জানান, ২৫ রমজানের পর থেকেই তরুণীরা নিজেদের পরিপাটি করতে ব্যস্ত হয়ে ওঠেন। রমজান মাসের শুরু থেকেই অনেকে ভিড় জমান নগরীর বিভিন্ন বিউটি পার্লারে। বিউটিশিয়ানরাও ব্যস্ত সময় কাটান তরুণীদের মনের মতো করে সাজাতে। সকাল থেকেই তরুনীরা বিভিন্ন ধরনের সাজগোজ করার জন্য ভিড় করছেন। আর এই দুইদিন ভিড়টা থাকবো অনেক রাত পর্যন্ত ।
বেশীরভাগ তরুনীরা চুলকাটা, রং করা, ভ্র-প্ল্যাক, ফেসিয়াল করছেন। তবে ঈদের আগের রাত আরো বেশী ব্যস্ততা বাড়বে।
নগরীর প্রায় সব বিউটি পার্লারেই তরুণীদের উপস্থিতি নজর কাড়ার মত।

এদিকে মেয়েদের পাশাপাশি রুপচর্চায় পিছিয়ে নেই ছেলেরাও। শহরের জেন্টস পার্লারগুলোও এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। ঈদে নতুন জামা-জুতার

পাশাপাশি শেভ-চুলকাটাসহ দাড়ি ছেঁটে নিজেকে আকর্ষণীয় করতে নরসুন্দরের কাছে ছুটছে সবাই।
ছেলেদের সৌন্দর্য চর্চায় রয়েছে হেয়ারকাট এবং সেভ, ফেসিয়াল, শ্যা¤পু ওয়াশ এবং ফেস ওয়াশ, গোল্ড এবং হেয়ারকাট, হেয়ার স্ট্রেইট, এক

বছরের হেয়ার ট্রিটমেন্ট, পেডিকিউর, মেনিকিউর, বডি ম্যাসাজ এবং পার্টি মেকআপসহ আরও নানান রুপচর্চা।

এদিকে নগরীর ব্যস্ততম জিন্দাবাজার,জল্লারপাড়,বন্দর,তালতলা,লামাবাজার,রিকাবীবাজার,আম্বরখানার সেলুনগুলোতে ব্যস্ততম সময় পার করছে সেলুনের কারিগররা। এছাড়াও বিভিন্ন এলাকার সেলুনগুলোতেও ব্যস্ত সময় পার করছেন কারিগররা। কোন সেলুনেই চেয়ার খালি নেই। ঈদ মৌসুমের বাড়তি গ্রহকের চাপ সামাল দিতে সেলুন মালিকরা বাড়তি কারিগর নিয়োগ করেছেন। ঈদে বাড়তি মূল্য রাখছেন সেলুন মালিকরা তার উপর রয়েছে বখশিসের দাবিও।
নগরীর জিন্দাবাজারে অবস্থিত জলসিন সেলুনের অমল চন্দ শীল জানান, সারাদিন কাস্টমারদের তেমন একটা ভিড় না থাকলেও ইফতারের পর পরই কাস্টমারদের বাড়তি চাপ আমাদের পোহাতে হয়। সেই চাপ থাকে গভীর রাত পর্যন্ত আর এই দুইদিন তো ভোর রাত পর্যন্ত কাজ করতে হবে।
গতবার ভি-কাটিং ছেলেদের মনে জায়গা করে নিলেও এবার নাকি স্পাইক কাটিংটার চাহিদায় বেশি বলে জানান তিনি।

বিউটি পার্লার ও সেলুনকর্মীরা জানায়, ঈদের আগের রাত পর্যন্ত ধুম ভীড় থাকবে। আগের রাত ভোর পর্যন্ত কাজ করতে হয়।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: