সর্বশেষ আপডেট : ১৫ মিনিট ৫০ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি’র বিরুদ্ধে নির্যাতন ও হয়রানির অভিযোগ

unnamed (2)কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলতাফ হোসেনের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে ওসি আলতাফ হোসেনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করেন কোম্পানীগঞ্জ থানার ঢোলাখাল গ্রামের মৃত আকলম হোসেনের ছেলে লুৎফুর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে লুৎফুর রহমান বলেন, গত ১০ জুন সিলেট থেকে বাড়ি ফেরার পথে কোম্পানীগঞ্জ সদরের সিএনজি অটোরিকশা স্ট্যান্ডে নামামাত্র হালিমা আক্তার (১৮) নামের এক মেয়ে তার সহযোগীরে দিয়ে সাইদুরকে একটি দোকানে আটকে রাখে। খবর পেয়ে তারা সেখানে গেলে সাইদুর রহমানকে ছাড়িয়ে আনার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে ঘটনাটি কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি আলতাফ হোসেনকে জানান। থানার এসআই আমিনুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ এসে সাইদুর রহমানকে উদ্ধার করে হালিমা আক্তারসহ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। থানায় সাইদুর রহমানের কাছ থেকে ওসি আলতাফ সম্পূর্ণ ঘটনা শোনেন এবং তাকে ছেড়ে দেয়ার অঙ্গীকারও করেন। কিন্তু দুই ঘন্টার মধ্যেই অজ্ঞাত কারণে সম্পূর্ণ পাল্টে যান ওসি আলতাফ। তিনি ওই মেয়েকে বিয়ে করার জন্য সাইদুর রহমানসহ তাদের উপর নানাবিধ চাপ সৃষ্টি করেন। হালিমাকে ‘বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায়’ সাইদুর রহমানকে ওসি আলতাফ থানায় চারদিন আটকে রেখে ‘শারীরিক নির্যাতন’ চালানো হয় বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন লুৎফুর রহমান। তিনি বলেন, তার ভাইয়ের পুরো শরীরে নির্যাতনের চিহ্ন রয়েছে। তিনি বলেন, ওই মেয়ের বাড়ি থানার সন্নিকটে হওয়া সত্বেও তাকে রহস্যজনক কারণে ওসি আলতাফ তিনদিন তিনরাত থানায় রাখেন।

লিখিত বক্তব্যে লুৎফুর রহমান আরো বলেন, গত ১২ জুন বিকেলে ওই মেয়েকে বাদী বানিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (১)/৭ ধারায় একটি মামলা (নং-১৬(৬)১৭) দিয়ে সাইদুরকে গ্রেফতার দেখিয়ে চারদিনের মাথায় ১৩ জুন আদালতে সোপর্দ করেন ওসি আলতাফ। কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ সাইদুরের কোর্টে দেয়া চালানপত্রে গ্রেফতারের তারিখ ১২ জুন এবং আদালতে প্রেরণের তারিখ ১৩ জুন দেখিয়েছে। অথচ মামলার এজাহারে বাদী হালিমা আক্তার নিজেই স্বীকার করেছে, পুলিশ তাকে ও সাইদুরকে ১০ জুন আটক করেছে। মামলা না থাকা স্বত্বেও তার ভাইকে আটক এবং ২৪ ঘন্টার মধ্যে আদালতে সোপর্দ করার কথা থাকলেও ওসি আলতাফ ৭২ ঘন্টারও বেশী সময় আটক রেখে তার ভাইর উপর নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। আবারো নির্যাতন চালানোর উদ্দেশ্যে ওসির নির্দেশে তার ভাইয়ের তিনদিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি ওসি আলতাফ হোসেনের অমানবিক নির্যাতন ও নিপীড়নের সুষ্ঠু বিচার ও তার ভাই সাইদুর রহমানের জামিন ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাইদুর রহমানের চাচা নুরুল হোসাইন, ফুফা বিলাল আহমদ, চাচাতো ভাই এখলাছুর রহমান, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি সফিক মিয়া, নুর ইসলাম ও সফাত উল্লাহ প্রমুখ। – বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: