সর্বশেষ আপডেট : ৯ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৭ জুন, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শ্রীমঙ্গলে স্কুলের গাছ কেটে বিক্রির অভিযোগ, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি’র অস্বীকার

2.-daily-sylhet-666-2জীবন পাল:: স্কুলের গাছ বিক্রি করলেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি। এরকমই অভিযোগ উঠেছে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির উপর। ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীমঙ্গল উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের আয়তাধীন মির্জাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে। অভিযোগ উঠেছে, মির্জাপুর ইউনিয়নের আয়তাধীন মির্জাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নিজস্ব জায়গায় রোপনকৃত প্রায় ১৫০ শত গাছ কমিটি বা স্কুল কতৃপক্ষের অন্য কাউকে না জানিয়েই বিক্রি করে দেন মির্জাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ফিরোজ মিয়া (ফিরোজ মাষ্টার)।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে মির্জাপুর এলাকার এক ব্যক্তি জানান, গত দুই,তিনদিনের টানা বৃষ্টির মধ্যে স্কুলের প্রায় ১৫০ থেকে ২০০টির মত গাছ কাটা হয়েছে। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এসব গাছ বিক্রি করে দিয়েছেন বলে তিনি জানান। এই গাছ কাটার বিষয়ে ম্যানেজিং কমিটির অন্যরা জানেন না বলেও তিনি ডেইলি সিলেটকে জানান। কয়েকদিন আগে গাছ কেটে নিয়ে যাবার সময় হাতেনাতে আটক করা হয়েছে বলেও ঐ ব্যক্তির সাথে কথা বলে জানা যায়। বিস্তারিত জানাতে অসংগতি প্রকাশ করে ম্যানেজিং কমিটির এক সদস্যের মোবাইল নাম্বার দিয়ে তার সাথে কথা বলে বিস্তারিত জেনে নিতে বলেন তিনি।

ঐ ব্যক্তির দেওয়া নাম্বারে কল করে জানা গেল যার ফোন নাম্বারে কল দিয়েছি তিনি স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আজাদ মিয়া। আজাদ মিয়ার কাছে স্কুলের গাছ বিক্রি করার ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে চাইলে তিনি ডেইলি সিলেটকে বলেন, ‘১৫ তারিখ ঐ এলাকা থেকে আমাকে ফোন দিয়ে জিজ্ঞেস করে আমরা কি স্কুলের ঐসব গাছ বিক্রি করে দিয়েছি? এই প্রশ্ন শুনে আমি তো অবাক! আমি বললাম,নাতো। আমরা স্কুলের গাছ বিক্রি করবো কেন’।

আজাদ মিয়া আরো বলেন, এসব খবর আমার কানে আসার পর আমি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কাছে বিষয়টা জানতে চাইলে তিনিও গাছ কাটার বিষয়টি জানেন না বলে জানান। একই রকম ম্যানেজিং কমিটির অন্য সদস্যদের কাছে গাছ কাটার বিষয়টি জানে কিনা জানতে চাইলে তারাও জানেন না বলে আমাকে জানান। পরে প্রধান শিক্ষকে বিষয়টা সম্পর্ক জোর দিয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি পাহারাদারদের সাথে ফোনে কথা বলে জানতে পারেন গাছগুলো নাকি ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ফিরোজ মিয়া (ফিরোজ মাষ্টার) কাটাচ্ছেন। ম্যানেজিং কমিটির বাকি সদস্যদের জবাবদিহিদার মুখে পড়ে প্রধান শিক্ষক পরবর্তীতে পাহারাদারদের বলে গাছ কাটা বন্ধ করিয়েছেন বলে জানান স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আজাদ মিয়া।

গাছ কাটার অভিযোগের কথা মিথ্যা বলে মির্জাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তপন রক্ষিত ডেইলি সিলেটকে জানান, গাছ বিক্রি করার প্রয়োজন আমাদের আছে। তবে আমরা অবশ্যই গাছ বিক্রির প্রসেস মেনটেইন করেই করবো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ফিরোজ মিয়া (ফিরোজ মাষ্টার) ডেইলি সিলেটকে জানান, এখন পর্যন্ত কোন গাছ কাটা হয়নি। তবে স্কুলের স্বার্থে আমরা গাছ বিক্রি করবো।

হঠাৎ এরকম অভিযোগ উঠার কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা লোকাল ভাবে যাচাইয়ের ক্ষেত্রে পার্টি খুঁজেছি মাত্র। বিক্রির ক্ষেত্রে অবশ্যই উপজেলা কমিটির অনুমতি,টিএনওর অনমতি নিবো।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: