সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ১৫ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

গ্রেনফেল টাওয়ারে আগুন: নিখোঁজ একটি পরিবার মৌলভীবাজারের বাসিন্দা 

1. daily sylhet 0-14ডেস্ক রিপোর্ট:: লন্ডনের ২৭তলা গ্রেনফেল টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১২ জনে দাঁড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন উদ্ধারকর্মীরা। অগ্নিকাণ্ডের পর থেকে দেশটিতে বাংলাদেশি এক পরিবারের খোঁজ মিলছে না। নিখোঁজ ওই পরিবারটি টাওয়ারটির একটি ফ্ল্যাটে বসবাস করতেন।

জানা গেছে, নিখোঁজ ওই পরিবারের সবাই বাংলাদেশের মৌলভীবাজারের বাসিন্দা। ফ্ল্যাটটিতে স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে বসবাস করতেন কমরু মিয়া। পশ্চিম লন্ডনের বহুতল ওই ভবনে দেড়শর মতো আবাসিক ফ্ল্যাটের ১৪২ নম্বরে থাকতেন তারা। মেয়ে তানিমার (হাসনা বেগম তানিমা) আগামী ২৯ জুলাই বিয়ের দিন ঠিক ছিল।

এদিকে, অগ্নিকাণ্ডের পর দমকল কর্মীরা ৬৫ জনকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ভবনটিতে অনেকে আটকে ছিলেন। বাঁচার জন্য কেউ কেউ জানালা দিয়ে লাফিয়ে নিচে পড়েছেন। তবে শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশি এই পরিবারের ভাগ্যে কী ঘটেছে তা জানা যায়নি।Tanima20170615110153

কমরু মিয়ার ভাতিজা যুক্তরাজ্যের চেলসির বাসিন্দা আবদুর রহিম গতকাল বুধবার সংবাদমাধ্যমকে জানান, আগুন লাগার পর রাতে চাচাতো বোনের (হাসনা বেগম তানিমা) সঙ্গে টেলিফোনে তার কথা হয়েছে। তখন তিনি বাঁচার আকুতি জানাচ্ছিলেন।

তিনি আরও জানান, আগামী ২৯ জুলাই তানিমার বিয়ের দিন ঠিক ছিল। আমাদের ব্যাপক প্রস্তুতিও ছিল। বিয়ের পর বাংলাদেশেও যাওয়ার কথা ছিল তাদের। ব্রিটিশ যুবক লেস্টারের সঙ্গে তার বিয়ে ঠিক করা ছিল।

ইউকে বাংলা প্রেস ক্লাবের সহকারী সাধারণ সম্পাদক মুনজের অাহমদ চৌধুরী বৃহস্পতিবার তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, মায়াভরা হাসিমুখের বোনটির নাম হোসনা বেগম (২২)। ডাকনাম তানিমা। মা-বাবার পছন্দেই অাসছে ২৯ জুলাই বিয়ের দিন ঠিক ছিল। মৌলভীবাজারে পরিবারের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানলাম, হোসনার শাড়িসহ বিয়ের সব কেনাকাটাও সম্পন্ন ছিল। বিয়ের হল বুকিংসহ সব কিছু রোজার অাগেই শেষ হয়েছে।

তিনি আরও লিখেছেন, ‘না, বোনটির অার বিয়ের পিড়িতে বসা হবে না। লন্ডনে পুড়ে যাওয়া ভবনটির ১৭তলার ১৪৪ নম্বর ফ্লাটে বাবা কমরু মিয়াসহ মা অার ভাইয়ের সাথেই বসবাস করতেন তিনি। বৃহস্পতিবার ভোরে লন্ডনের গ্রীনফেল টাওয়ারের লেলিহান বিভীষিকাময় অাগুন হতভাগ্য বাসিন্দারের মতো পুড়িয়ে দিয়েছে হোসনার সব স্বপ্নও। সেহরি অার ফজরের নামাজের পর ধেয়ে অাসা যন্ত্রণায় দগ্ধ হয়ে মৃত্যুর দুয়ারে অাত্মসমর্পণ করা ছাড়া অার কোনো পথও ছিল না তাদের।’

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: