সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কমলগঞ্জে ৮০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে বাইসাইকেল বিতরণ করলেন শিক্ষামন্ত্রী

Pic--Education Minister, Kamalgonjমো. মোস্তাফিজুর রহমান, কমলগঞ্জ :
মৌলভীবাজারের সীমান্তবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের ধলই চা বাগানের চা শ্রমিক সন্তান ভান্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী সুবর্ণা বাউরীা। গত রোববার দুপুরে দাঁড়িয়ে আছে বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিন্হা স্কুল এন্ড কলেজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। চোখে মুখে আনন্দ ও আত্মবিশ্বাসের চাপ। তার সঙ্গে আরও ৭৯ জন ছাত্রীর মুখেও নতুন আলোর সন্ধান, এগিয়ে যাওয়ার পণ। এগিয়ে যাওয়ার পথে তাদের সঙ্গী এবার বাইসাইকেল।
উৎসবের রেশে রোববার (১১ জুন) বিকেলে তারা কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে শিক্ষামন্ত্রীর কাছ থেকে বুঝে পেয়েছেন স্কুলে যাবার নতুন বাহন। নারীর ক্ষমতায়নে উপজেলা পর্যায়ে মেয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাইসাইকেল বিতরণ প্রকল্পের আওতায় কমলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হকের কমলগঞ্জ উপজেলার ১৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুরবর্তী গ্রামের ৮০ জন ছাত্রীর হাতে এ বাইসাইকেল তুলে দেওয়া হয়। প্রতিটি সাইকেলে রয়েছে আলাদা আলাদা পরিচিতি নম্বর।
এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা, ভারতীয় হাইকমিশনার শ্রী হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মিছবাহ উদ্দীন সিরাজ, সিলেট শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর এ.কে.এম.গোলাম কিবরিয়া তাপাদার, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম, জেলা পুলিশ সুপার মো. শাহজালাল, কমলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক রফিকুর রহমান, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক প্রমুখ। ৬ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলার ১৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৮০ জন ছাত্রীরা লাইন ধরে এক এক করে অতিথিদের হাত থেকে বাই সাইকেল নিয়ে যায়।
picঅনুষ্ঠানস্থলে কথা হয় ভান্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী মণি ছত্রীর সাথে। সে আন›দিত প্রধান বিচারপতির কাছ হতে বাই সাইকেল পেয়ে। সে উচ্ছ্বসিত কন্ঠে জানায় ‘সাইকেল পেয়ে খুব ভাল লাগছে। এতদিন ৫/৬ কিলোমিটার দুর হাজারীবাগ চা বাগান থেকে পায়ে হেটে স্কুলে আসতাম। আদমপুর তেতইগাঁও রশিদ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী প্রান্তি চাষা। বাঁধ ভাঙা উচ্ছ্বাসের সাথে নতুন সাইকেলটি সহপাঠীদের নিয়ে খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখছিল সে। প্রান্তি কামারছড়া চা বাগান থেকে প্রতিদিনি পায়ে হেটে স্কুলে আসত। সে জানায়, প্রতিদিন গাড়ি ভাড়া দিতে হয় অনেক টাকা। সাইকেল পাওয়ায় স্কুলে যাতায়াতে সুবিধা হবে। নিয়মিত এখন স্কুলে যেতে পারব।’
অনুষ্ঠানে আসা ২নং পতনঊষার ইউপি চেয়ারম্যান ও পতনউষার উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি প্রকৌশলী তওফিক আহমদ বাবু বলেন, এটা নারীর ক্ষমতায়নে অনেক এগিয়ে যাবে। এছাড়া এদের দেখা দেখি সক্ষম অভিভাকদের কাছ থেকে সাইকেল পেয়ে অন্যরাও এ অভিযাত্রায় অংশীদার হবে বলে আমি মনে করছি।’
ভান্ডারীগাও উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খুরশেদ আলী বলেন, উপজেলা পরিষদের এমন উদ্যোগ প্রশংসার দাবী রাখে। তার স্কুলের ১২জন হতদরিদ্র শিক্ষার্থী বাই সাইকেল পেয়েছে। তারা সপ্তাহে দুই তিন দিন স্কুলে আসতো না। কিন্তু এখন তারা প্রতিদিন আসবে বলে জানিয়েছে।
আলাপকালে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, বিদ্যালয়ে ছাাত্রীদের ঝড়ে পড়া রোধ কল্পে নিয়মিত বিদ্যালয়গামী করতে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকার বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ৮০ চন দরিদ্র ছাত্রীর মাঝে উপজেলা পরিষদের মাধ্যমে ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের এডিবির তহবিল থেকে ৬ লাখ টাকা ব্যয়ে সাইকেল বিতরণ করা হয়। জেলার সাতটি উপজেলার মাঝে কমলগঞ্জ উপজেলাকে শিক্ষায় এগিয়ে নিতে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন এমন উদ্যোগ।
গত রোববার (১১ জুন) কমলগঞ্জের মাধবপুর ইউনিয়নে বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা স্কুল এন্ড কলেজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ৮০ জন ছাত্রীর হাতে বাই সাইকেল তুলে দেন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা, ভারতীয় হাইকমিশনার শ্রী হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মিছবাহ উদ্দীন সিরাজ, সিলেট শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর এ.কে.এম.গোলাম কিবরিয়া তাপাদার, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম, জেলা পুলিশ সুপার মো. শাহজালাল, কমলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক রফিকুর রহমান, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক, উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান পারভীন আক্তার লিলি, ভাইস চেয়ারম্যান মো. সিদ্দেক আলী, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সরকারী কর্মকর্তা, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, শিক্ষার্থী-অভিভাবকসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: