সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ৩৭ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মৌলভীবাজারে বন্যা ও নদী ভাঙনের প্রভাব পড়েছে ঈদবাজারে

1. daily sylhet 0-16মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:: একদিকে হাকালুকি হাওরের অকাল বন্যায় শতভাগ বোরো ফসল হারানো মানুষের আহাজারি। অন্যদিকে খরস্রোতা মনুনদীর ভাঙনের কবলে সর্বস্বহারা মানুষ। এর মাঝে কালবৈশাখী ঝড় আর শিলাবৃষ্টিতেও হয়েছে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি। এর প্রভাব পড়েছে মৌলভীবাজারের সাত উপজেলার ঈদবাজারে। বড়ো বড়ো বিপণী বিতানগুলোতে গিয়ে দেখা যায়, অলস সময় পার করছেন ব্যবসায়ীরা।
জেলা সদর, শ্রীমঙ্গল, রাজনগর, কুলাউড়া, কমলগঞ্জ, জুড়ী ও বড়লেখা উপজেলার শহরের বড়ো বড়ো বিপণী বিতানগুলোতেও একই অবস্থা বিরাজ করছে। ব্যবসায়ীরা অনেকটা হতাশ হয়ে পড়েছেন।

জেলার বড়লেখা ও কুলাউড়া উপজেলা মূলত প্রবাসী অধ্যূষিত। দেশের অন্যান্য অঞ্চলে বন্যা খরা কিংবা প্রাকৃতিক দুর্যোগে ঈদের বাজারে খুব একটা প্রভাব পড়ে না। রোজার প্রথম সপ্তাহ পার হলেই বিশেষ করে কাপড়ের দোকানগুলোতে কেনাকাটার একটা ধুম পড়ে যায়। কিন্তু এবার এই দুই উপজেলায় পরিলক্ষিত হচ্ছে ভিন্নচিত্র। কেনাকাটায় মানুষের খুব একটা আগ্রহ নেই। এর মূল কারণ অকাল বন্যা আর নদীভাঙন। সাম্প্রতিক প্রাকৃতিক দুর্যোগে কুলাউড়ার উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ১৩টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার ৩ লাখ ৬০ হাজারেরও বেশি লোকজনের বসবাস কুলাউড়া উপজেলায়। রমজানে বিপণী বিতানগুলোতে মানুষের উপচেপড়া ভীড় দেখা যেতো। কিন্ত এবার যেনো ঠিক এর বিপরীত চিত্র। এছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে আরব আমিরাতের দেশগুলোতে রাজনৈতিক অস্থির অবস্থা বিরাজমান থাকার কারণে জেলার বিভিন্ন উপজেলার প্রবাসীরা অনেকটা আতংকে রয়েছেন। বর্তমানে অনেকেরই কাজকর্ম বন্ধ। বিগত দিনের বেতন-ভাতা নিয়েও প্রবাসীরা রয়েছেন উৎকণ্ঠায়। এদিকে এসব প্রবাসীদের পরিবার-পরিজনদের দু:শ্চিন্তারও অন্ত নেই।

কুলাউড়া শহরের প্রধান প্রধান বিপণী বিতান মিলি প্লাজা, আরএম সিটি, এসএম প্লাজা, পৌর সুপার মার্কেট, আজিজ রওশন কমপ্লেক্স, তবুর ম্যানশন, বশির প্লাজা থেকে শুরু করে ছোটো-বড়ো কাপড়ের দোকানগুলোতে বেশিরভাগ সময় ক্রেতাশূণ্য দেখা যায়। শহরের এসএম মেগা মল, গ্রামীণ হাট, উত্তরা শপিং সেন্টার ও বর্ণালী’র মতো বড়ো কাপড়ের দোকানে কেনাবেচা নেই বললেই চলে। একই অবস্থা বিরাজ করছে জেলার রাজনগর, বড়লেখা ও জুড়ী উপজেলায়। ব্যবসায়ীরা জানান, ঈদের বাজার এবার খুব একটা সুবিধাজনক নয়। কেননা মানুষ চাল কিনবে না কাপড় কিনবে? অন্যদিকে প্রবাস থেকেও টাকা আসা কমে গেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: