সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২৬ জুন, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে প্রকল্প অফিস ঘেরাও, সমঝোতার আশ্বাসে সন্ধ্যায় প্রত্যাহার

01.-daily-sylhet-Chhatak-news2ছাতক প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের ছাতকে বিভিন্ন ইউনিয়নের গৃহীত প্রকল্প বাতিল করার প্রতিবাদে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় ঘেরাও করেছেন উপজেলার ৫ ইউপি চেয়ারম্যান। রোববার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কার্যালয়টি তারা ঘেরাও করে রাখেন। এসময় উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা মুঠোফোনে চেয়ারম্যানদের সাথে যোগাযোগ করে এ ব্যাপারে সমঝোতার আশ্বাস দেয়া হলে তারা ঘেরাও কর্মসূচী প্রত্যাহার করে।
রোববার দুপুর থেকে উপজেলার গুরুত্বপূর্ন দপ্তরগুলো ছিল কর্মকর্তা শুন্য। অনেক দপ্তরই ছিল তালাবদ্ধ। ঘেরাওকারী চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন সাহেল, আখলাকুর রহমান, দেওয়ান পীর আব্দুল খালেক রাজা, অদুদ আলম ও সাইফুল ইসলামের অভিযোগ, স্থানীয় সরকারের ম্যানুয়েলে তৃণমুল পর্যায়ের উন্নয়নের প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদের যাবতীয় উন্নয়ন প্রকল্পের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। কর্মসৃজন প্রকল্পের প্রথম ধাপে উপজেলার সিংচাপইড়, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও, নোয়ারাই, কালারুকা ও ছাতক সদর ইউনিয়নের প্রকল্প বরাদ্ধ নিয়ে টালবাহানা করা হয়েছে। ২য় ধাপেও সমন্বয় সভায় গৃহীত প্রকল্প বাতিল করে নতুন করে প্রকল্প দেয়া হয়েছে। যেখানে দূর্নীতির মাধ্যমে সরকারী টাকা আত্মসাতের পরিকল্পিত ছক বলে চেয়ারম্যানরা মন্তব্য করেন।

তারা স্ব-স্ব ইউনিয়নের এসব প্রকল্পের দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরে জানান, কিন্তু শুধু দূর্নীতি ও সরকারী টাকা আত্মসাতের জন্য চেয়ারম্যানদের প্রকল্প কেটে নিজের মতো করে প্রকল্প সৃজন করে বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। যা কাগজে-কলমে থাকলেও বাস্তবে এসব প্রকল্প অদৃশ্য ও অলিক। ফলে ভবিষ্যতে এসব অদৃশ্য প্রকল্পের দায়ভার সরাসরি ইউপি চেয়ারম্যানদের উপর বর্তাবে বলে তারা মনে করেন। তারা এসব দূর্নীতির বিরুদ্ধে এবং অধিকার আদায়ে প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বারস্থ হবেন বলে জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এসএমএ করিম মুঠোফোনে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার ব্যবহৃত ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। প্রকল্প অফিসের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আম্বিয়া অফিস ঘেরাওয়ের কথা স্বীকার করলেও অন্য কোন বিষয়ে মুখ খুতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, ঘটনার সময় তিনি সরকারী কাজে জেলায় অবস্থান করছিলেন। সৃষ্ট জটিলতা নিরসনের চেষ্টা চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: