সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৭ জুন, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জাতীয় নিরাপত্তা প্রশ্নে মুখোমুখি দুই দল

c9b40dbeb24244cdd37ba8d01b6596cb-592abb12df123আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ম্যানচেস্টারে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে যুক্তরাজ্যের জাতীয় নিরাপত্তা প্রশ্নে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে, তা আজ রোববার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে নির্বাচনী প্রচারে নতুন মাত্রা লাভ করে। নিরাপত্তা বিষয়ে সন্দেহ দূর করতে প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এবং বিরোধী দলের নেতা জেরেমি করবিন পাল্টাপাল্টি প্রতিশ্রুতি তুলে ধরেছেন।

আগামী ৮ জুন অনুষ্ঠেয় নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার-প্রচারণার ডামাডোলের মধ্যেই গত সোমবার (২২ মে) ম্যানচেস্টারে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এতে সব ছাপিয়ে আলোচনার কেন্দ্রে উঠে আসে জাতীয় নিরাপত্তা প্রদানে কোন নেতা বেশি বিশ্বস্ত।

ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দল আজ প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, উগ্রবাদ দমনে সরকারকে পরামর্শ দেওয়ার জন্য তারা একটি বিধিবদ্ধ স্বাধীন কমিশন গঠন করবে। প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেন, প্রস্তাবিত কমিশনের কাজ হবে ব্রিটিশ মূল্যবোধের প্রচার এবং উগ্রবাদকে চ্যালেঞ্জ করা, বিশেষ করে সংঘাতমুক্ত পর্যায়ে (নন ভায়োলেন্ট ফর্ম)। তিনি বলেন, ‘যুক্তরাজ্য বিশ্বের অন্যতম সফল বহু ধর্ম, বর্ণ ও সংস্কৃতির দেশ। কিন্তু বহু সংস্কৃতি উদযাপনের ঐতিহ্য নিশ্চয়ই ঘৃণ্য উগ্রবাদ দমনে বাধা হতে পারে না; যদিও কাজটি কঠিন এবং কখনো কখনো বিব্রতকর’।

সংসদে ভোটাভুটিতে লেবার নেতা জেরিমি করবিন সন্ত্রাসবিরোধী অনেক আইনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছিলেন জানিয়ে ক্ষমতাসীনরা বলছে, করবিনের হাতে দেশ নিরাপদ নয়।

তবে আজীবন যুদ্ধবিরোধী নেতা জেরিমি করবিন বলছেন, গত সাত বছর ধরে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভরা বাজেট কর্তন করার কারণে পুলিশের সংখ্যা অন্তত ২০ হাজার কমে গেছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পর্যাপ্ত রসদের অভাবে নিরাপত্তা ঝুঁকি বেড়েছে। ক্ষমতায় গেলে পুলিশ ও গোয়েন্দা সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি বাহিনীগুলোর জন্য প্রয়োজনীয় রসদ নিশ্চিতের ঘোষণা দেন করবিন।

ইন্টারনেটে উগ্রবাদ ছড়ানো বন্ধে প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর দায়িত্ব নিশ্চিত করার উপায় নিয়েও চলছে বিতর্ক। বিশেষ করে আদান-প্রদানকারীর মধ্যে বার্তা সুরক্ষিত রাখার প্রযুক্তি ‘এনক্রিপটেড ম্যাসেজিং’ নিষিদ্ধ করার প্রয়োজনীয়তা নিয়ে দলগুলো একমত। তবে এর পরিণতি নিয়ে তারা সন্দিহান। কারণ এর সঙ্গে ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ও ইন্টারনেট ব্যাংকিংসহ নানা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জড়িত।

এদিকে ম্যানচেস্টারে হামলার আগে আগে সিসিটিভিতে ধারণ করা আত্মঘাতী সন্ত্রাসী সালমান আবেদির (২২) ছবি প্রকাশ করেছে পুলিশ। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, এ ঘটনায় মোট গ্রেপ্তারের সংখ্যা ১১। ঘটনার রহস্য উদঘাটনের কাজ অনেকটা গুটিয়ে এসেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে অব্যাহত রয়েছে তদন্ত।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাম্বার রাড জানান, যুক্তরাজ্যে বর্তমানে তিনটি ভিন্ন ধাপে মোট ২৩ হাজার ৫ শ সম্ভাব্য উগ্রবাদী নজরদারিতে রয়েছে। এর মধ্যে প্রথম ধাপে ‘গুরুতর ঝুঁকি’ বিবেচিত আছে পাঁচ শ জন। দ্বিতীয় ধাপে আছে তিন হাজার।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: