সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৩১ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১৯ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বেতারের গুরুত্ব দিন দিন আরো সুদৃঢ় হচ্ছে — বিভাগীয় কমিশনার

Pic-6সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম বলেছেন, বাংলাদেশ বেতারের গুরুত্ব ও অবদান দিন দিন আরো সুদৃঢ় হচ্ছে। আরো বেশি প্রাসঙ্গিক হচ্ছে। এখন মোবইলের যুগ, আমাদের সবার হাতে মোবাইল এবং মোবাইলফোনের মাধ্যমেই যেহেতু রেডিও শোনা যায়, সেজন্য রেডিওর অনুষ্ঠান শুনতে অসুবিধা নেই। আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় সাড়ে ৭ কোটি বাঙালিকে স্বাধীন বাংলা বেতর কেন্দ্রের মাধ্যমে যুদ্ধে উদ্বুদ্ধ করা হতো। সে সময় মুক্তিযুদ্ধের সংবাদ শোনার জন্য এ দেশের জনগণ কাজকর্ম ফেলে রেডিও ঘিরে বসে থাকতেন। অনেকে বেতারের মাধ্যমে অনুপ্রাণিত হয়ে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন।
তিনি গত শুক্রবার সকাল ১০টায় সিলেট বেতর ভবন প্রাঙ্গণে শ্রোতা সম্মেলনের প্রথম পর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন। কেন্দ্রের আঞ্চলিক পরিচালক মো. ফখরুল আলমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. রাহাত আনোয়ার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজ্ঞান চাকমা। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক তাপস দাশ পুরকায়স্থ ও সাংবাদিক আফতাব চৌধুরী। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বেতার সিলেট কেন্দ্রের উপআঞ্চলিক পরিচালক আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ তারিক। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন আবৃত্তিকার আমিনুল ইসলাম লিটন।
দ্বিতীয় পর্বে প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, বাংলাদেশ বেতার বাঙালি জাতির অস্তিত্বের ঠিকানা। অত্যন্ত বিশ^াস ও আস্থা নিয়ে মুক্তিযুদ্ধে যে-ভূমিকা পালন করেছে তা অবিস্মরণী। বাঙালি জাতির ঐতিহ্য নিয়ে যে প্রশংসনিয় প্রচারণা চালিয়েছিল, সে বেতার সাধারণ মানুষের বিশ^াস নিয়ে কাজ করছে। অবহেলিত মানুষের কথা, স্বাধীনতা যুদ্ধের পর থেকে আজ পর্যন্ত প্রচার করে যাচ্ছে। মিডিয়ার যুগেও শতকরা ৮০ ভাগ মানুষের প্রশংসনীয় আস্থা অর্জন করেছে। ৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু যে ভাষণ দিয়েছিলেন, বিশে^ বাঙালি জাতির শ্রেষ্ঠ ভাষণ বেতার সিলেট কেন্দ্রের মাধ্যমে প্রচারিত হয়েছিল।
বিশেষ অতিথির সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী নাজনিন হোসেন।
বেতার সিলেট কেন্দ্রের উপআঞ্চলিক পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুল হকের স্বাগত বক্তেব্যের মাধ্যমে সুচিত অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক প্রিন্স সদরুজ্জামান, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য গীতিকার শামসুল আলম সেলিম, প্রেসক্লাব ফাউন্ডেশনের সভাপতি আল আজাদ, কণ্ঠসৈনিক মুক্তিযোদ্ধা রোকেয়া বেগম, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সিনিয়র সহ-সভাপতি অজিত রায় ভজন। এছাড়াও সিলেট বিভাগের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত শ্রোতা ক্লাবের সভাপতিবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। এদিকে বেতারের ঘোষিকা রোকেয়া বেগম মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি লাভ করায় অনুষ্ঠানের অতিথিবৃন্দ ও উপস্থিত সকলে দাঁড়িয়ে সম্মান প্রদর্শন করেন।
অনুষ্ঠান প্রযোজনায় ছিলেন বেতর সিলেট কেন্দ্রের সহকারী পরিচালক প্রদীপ চন্দ্র দাশ। সহযোগিতায় ছিলেন মো. জাকিরুল ইসলাম, পবিত্র কুমার দাশ ও মো. জোনায়েদ হোসেন।
দ্বিতীয় পর্বে সঞ্চালনায় ছিলেন সৈয়দ সায়মুম আনজুম ইভান ও অনিমা দেব তন্নী। পরে বেতারশিল্পীদের অংশগ্রহণের মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: