সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ২১ জুলাই, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিয়ের আসর থেকে প্রেমিক ছিনিয়ে নেয়া সেই রিভলভার রানী গ্রেফতার

revolver-rani20170518172708 (1)আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বন্দুকের নলের মুখে বলিউড স্টাইলে বিয়ের আসর থেকে প্রেমিককে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া সেই রিভলভার রানীকে অবশেষে গ্রেফতার করেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। প্রদেশের বুন্দেলখন্দে মঙ্গলবার গভীর রাতে দুই বন্ধুসহ বিলাসবহুল গাড়িতে করে বিয়ের মণ্ডপে পৌঁছে তার প্রেমিককে অপহরণ করেছিলেন।

গ্রেফতার হওয়ার আগে ‘রিভলভার রানী’ হিসেবে ভারতীয় গণমাধ্যমে পরিচিতি পাওয়া এই তরুণী বলেন, তার প্রেমিককে অন্য কোনো নারী বিয়ে করতে দেবেন না তিনি।

তার বিরুদ্ধে বিয়ের আসর থেকে প্রেমিককে অপহরণের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছে কনের পরিবার। তবে ওই তরুণী বলেছেন, প্রেমিক যাদব ইচ্ছাকৃতভাবেই বিয়ের আসর থেকে তার সঙ্গে গেছেন।

বর্ষা সাহু নামের রিভলভার রানীর এই কাজ দেশটিতে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। একই সঙ্গে তার এই কাজ পুলিশসহ অনেককে প্রভাবিতও করেছে। তবে বিয়ের আসরে বন্দুকসহ নাটকীয় দৃশ্য তৈরির যে অভিযোগ উঠেছে তা অস্বীকার করেছেন বর্ষা।

ধূসর রঙের কুর্তা-সালোয়ার পরিহিত ২৫ বছরের বর্ষা পুলিশ স্টেশনে সাংবাদিকদের বলেন, আমি সেখানে বন্দুকসহ যাইনি…এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, মঙ্গলবার রাতে এসইউভি গাড়িতে চড়ে প্রেমিকের মণ্ডপে হাজির হন বর্ষা। গাড়ি থেকে নেমে দুই বন্ধুসহ মণ্ডপে পৌঁছে বরের মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গাড়িতে নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। পিস্তল মাথায় ঠেকানোর সময় বর্ষা বলেন, এই মানুষটা আমাকে ভালোবাসে। কিন্তু অন্য একজনকে বিয়ে করে আমার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করছে। আমি এটা হতে দেব না।

বিয়ের আসরে উপস্থিত অতিথিরা এ ঘটনায় হতবাক হয়ে যান। পরে কনের পরিবারের লোকজন বর অপহরণের অভিযোগ এনে পুলিশের কাছে মামলা করেন।

এ ঘটনার পর কান্নায় ভেঙে পড়েন কনে ভারতী যাদব। নিজের ভাগ্যকে দোষারোপ করে তিনি বলেন, কোনো শত্রুও যেন এ ধরনের শাস্তি না পায়। কয়েক বছর আগে অপহরণকারী ওই তরুণীর সঙ্গে দেখা হয়েছিল নিজের কর্মস্থলে দেখা হয় অশোকের। দুজনের সেই দেখা রূপ নেয় ভালোবাসায়। অনেকেই বলছেন, তারা দুজন গোপনে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু পরিবারের চাপে তাদের পছন্দের এক তরুণীকে বিয়ে করতে রাজি হয় যাদব।

বর্ষা পুলিশকে বলেছেন, বিয়েতে রাজি ছিল না অশোক। ওই নারীকে বিয়ের জন্যও প্রস্তুত ছিল না। ওই নারীর পরিবার জানতো, সে একজনের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িত।

এদিকে, পুলিশ বলছে, তারা নিশ্চিত হয়েছেন যে গত আট বছর ধরে সম্পর্কে জড়িত অশোক ও বর্ষা। তবে যে বিয়ে হতে যাচ্ছিল তাতে খুশি ছিলেন না অশোক।

সূত্র : এনডিটিভি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: