সর্বশেষ আপডেট : ২০ মিনিট ০ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৩ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দক্ষিণ সুরমা বাস টার্মিনাল ইজারা নিয়ে নগর ভবনে যুবলীগ-পরিবহন শ্রমিক উত্তেজনা

IMG_4224-600x400ডেস্ক রিপোর্ট:: নগরীর দক্ষিণ সুরমা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের ইজারা নিয়ে যুবলীগ ও পরিবহন শ্রমিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে সোমবার নগর ভবনে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।
ইজারা দরপত্র জমা দেয়াকে কেন্দ্র করে সোমবার তাদের মধ্যে দিনভর উত্তেজনা বিরাজ করে। অবশ্য যুবলীগ নেতা কর্মীদের বাধা উপেক্ষা করে পুলিশের সহযোগিতায় দরপত্র জমা দিয়েছেন শ্রমিক নেতা সেলিম আহমদ ফলিক। অন্যদিকে সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ বলছে, যাচাই বাছাই শেষে বৈধ দরদাতার নাম ঘোষণা করা হবে।
সিলেট সিটি কর্পোরেশন ঘোষিত সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল ইজারার দরপত্র জমাদানের তারিখ ছিল সোমবার। তবে সকাল থেকে নগর ভবনে যুবলীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীর উপস্থিতি দেখা যায়। বেলা ১১টার দিকে সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সেলিম আহমদ ফলিক দরপত্র জমা দিতে এলে ঘটনার সূত্রপাত হয়। এ সময় যুবলীগ নেতাকর্মীরা সেলিম আহমদ ফলিককে বাধা দিলে নগর ভবনে উত্তেজনা দেখা দেয়।
শ্রমিক নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম আহমদ ফলিক অভিযোগ করে বলেন, যুবলীগের নেতা-কর্মীরা তাকে দরপত্র জমাদানে বাধা দেন। এ সময় তারা তার সাথে দুর্ব্যবহার করে ও তাকে প্রাণে হত্যার হুমকি দেয়।
সেলিম আহমদ ফলিক দাবি করেন, তিনি বলেছেন ‘আমি নিজে একজন মুক্তিযোদ্ধা। আওয়ামী লীগ করা প্রধানমন্ত্রী- অর্থমন্ত্রী আমারও নেতা’। উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশের সহায়তায় তিনি দরপত্র জমা দিয়েছেন বলে জানান ফলিক। ভ্যাট, ইনকাম ট্যাক্স ও বিদ্যুৎ বিল সব মিলিয়ে ৯২ লাখ টাকা দর দিয়েছেন বলে জানান তিনি।
জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মহসিন কামরান জানান, বরাবরের মত তাদের এক ছোট ভাই যুবলীগ কর্মী সোহেল দরপত্র জমা দিয়েছেন। তারা সোহেলের পক্ষেই নগর ভবনে গিয়েছিলেন। এ সময় সেলিম আহমদ ফলিক প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে জড়িয়ে কটুক্তি করেন বলে অভিযোগ করেন মহসিন কামরান। তিনি বলেন, বাস টার্মিনালের ইজারা কেউ নিতে চাইলে বরাবরই সেলিম আহমদ ফলিক তাদের অসহযোগিতা করেন।
এ বিষয়ে সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব বলেন, নগর ভবনে কিছুটা উত্তেজনা ছিল। তবে সুষ্ঠুভাবেই শিডিউল জমা পড়েছে। তিনি জানান, দরপত্র যাছাই বাছাই চলছে। এরপর জানানো হবে কে হবেন কদমতলী বাস টার্মিনালের বৈধ ইজারাদার।
এ ব্যাপারে কতোয়ালী থানার ওসি গৌসুল হোসেন জানান, নগর ভবনে উত্তেজনা ছিল। তবে পুলিশ সতর্ক অবস্থানে ছিল। ফলে তেমন কিছু ঘটেনি।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: