সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২২ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘কাজের ক্ষেত্রে সন্তান কখনো বাঁধা হতে পারে না’

1494733001বিনোদন ডেস্ক:: ফাহমিদা নবী। একজন সফল কণ্ঠশিল্পী। একজন সফল মা। মা হিসেবে নিজের এই সম্মানের, আনন্দের পরিচয়টিও স্বগর্বে বলতে চান। বলতে চান নিজের সেই সংগ্রামের কথা। মা দিবসে বিনোদন প্রতিদিনের সাথে কথা বললেন তিনি—

সন্তানের সাফল্যে মায়ের ভূমিকাই বেশি থাকে। আপনার সাফল্যে আপনার মায়ের ভূমিকা কতটুকু?

আমাদের মধ্যবিত্ত পরিবার সংস্কৃতি চর্চা করেছে সবসময়। আমাদের উঠে আসার পেছনে আমার মায়ের ভূমিকা অনেক বেশি। বাবার অবদানও কম নয়। ছেলেমেয়ে ছেলেমেয়ে করে করে সংসার জীবনে এতটাই মগ্ন হয়ে থাকতেন যে, অফিসটা যতটুকু পারা যায় অল্প সময়ের মাঝে শেষ করে ঘরে ফেরার তাড়া তাকে অস্থির করে রাখতো। সবচেয়ে বেশি নিজের ছেলেমেয়ের সমালোচনা করতেই থাকতেন বলে মাঝে মাঝে খারাপ লাগলেও পরে নিজেকে শুধরাতে চেষ্টা করি। আজো আমাদের শিক্ষক আমাদের মা। আজ মা ‘গরবীনি মা’ হিসেবে পুরস্কার পাবেন আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতালের আয়োজনে। মাকে খুশি করতে পারছি কি-না জানি না, তবে চেষ্টা করি আমরা চার ভাইবোন মিলে। চেষ্টা করি আম্মা তার জীবনে যত কষ্ট করেছেন তা যেন একটু হলেও কমাতে পারি।

আপনিও তো একজন মা। মা হিসেবে আপনার ভূমিকার গল্প যদি বলতেন—

আমাদের সবার জীবনেই মায়ের ভূমিকা অপরিসীম। আমার মা আজ তার সন্তানের জন্য পুরস্কার পাচ্ছেন। মা হিসেবে এই সম্মানটা কম নয়। আমার সন্তানের সঙ্গে সম্পর্কটা বন্ধুর মতো। সবসময় চেষ্টা করি তার মতামতকে প্রাধান্য দেওয়ার। তার যেকোনো ভালো কাজেই আমার সাপোর্ট থাকে সবসময়। চেষ্টা থাকে তার জীবনে যেন কোনো ভুল না হয়। সবকিছুর আগে সন্তানের জীবনে আমার ভূমিকাটা একজন দায়িত্বশীল মায়ের।

ক্যারিয়ারের কথা বিবেচনা করে মিডিয়ায় অনেকে নিজেদের সন্তানের কথা গোপন রাখেন। এ বিষয়টি আপনার চোখে কেমন?

এটা পুরোপুরি শিল্পী বলুন, মানুষ বলুন, যার যার ব্যক্তিগত বিষয়। আমার ক্ষেত্রে আমি বলবো আমাদের পরিবারে সবসময় ওপেন বুক ছিল। মিডিয়ার সাথে আমাদের সম্পর্কটা ছিল অন্যরকম, গোপন বলে কোনোকিছু ছিল না। তবে পরিবারের কথা সবসময় মাথায় রাখতে হতো। এমন কোনো কাজ করিনি, যাতে পরিবারের সম্মান নষ্ট হয়। সন্তান মাতৃত্বের পরিচয় বহন করে। এটা নিয়ে লুকোচুরি করার কিছু নেই।

মায়েদের জীবনে অনেক সংগ্রাম থাকে। সিঙ্গেল মা হলে আরো বেশি সম্মুখীন হতে হয় জীবনের কঠিন কঠিন মুহূর্তগুলোর। এ বিষয়গুলো সম্পর্কে কী বলবেন?

মায়েরা সংগ্রামী হন। তাদেরকে লড়তে হয় নিজেদের সঙ্গে, পরিবারের সঙ্গে, সমাজের সঙ্গে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় পরিবারে একজন মানুষ একটু বেশি দায়িত্বশীল হয়। কারো জীবনে সেটা বাবা, কারো জীবনে সেটা হয়তো মা। মানুষ একা হলে দায়িত্বের জায়গাগুলো বেড়ে যায়। কিন্তু তাদের ভূমিকা কমে না। তারা আগের চেয়ে অনেক সংগ্রামী হয়ে ওঠেন। মানসিক দিক থেকে অনেক শক্তিশালী হয়। সন্তানের জীবনে পরিচয় পায় আলাদাভাবে। মায়ের ভূমিকা, দায়িত্ববোধ, উপলব্ধির জায়গাগুলো সঠিকভাবে প্রকাশ পায়। সংগ্রামী জীবনে বাঁধা থাকবে। বাঁধা না থাকলে সেটা সংগ্রামী হলো কই! মা হিসেবে বাঁধা অতিক্রম করে এগিয়ে যেতে পারলেই সেটা হবে আনন্দের, গর্বের।

আমাদের অনেক শিল্পী-অভিনেত্রীরা নিজেদের উঠতি ক্যারিয়ারের জৌলুস নষ্ট হওয়ার কথা ভেবে সন্তান নিতে চান না। এ বিষয়ে কী বলবেন?

প্রত্যেক নারীই মাতৃত্বের স্বাদ গ্রহণ করতে চায়। শাবানা, কবরী, আনোয়ারা, দিতি, মৌসুমী এরা প্রত্যেকেই মা। মা হওয়ার পর কী তাদের কাজ কমে গেছে! কাজের ক্ষেত্রে সন্তান কখনো বাঁধা হতে পারে না। জীবনটা সময়ের গতিতে চলছে সেটা আমাদের বোঝা উচিত।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: