সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৫৫ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নাটোরের সেই বাড়িতে জঙ্গি নেই

8ada8007d4249cf9524bd22a0c8ed3ff-59145d25dc33eনিউজ ডেস্ক:: প্রায় পৌনে ১২ ঘণ্টা পর জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ঘিরে রাখা নাটোর শহরের হরিশপুর এলাকার বাড়িটিকে জঙ্গিমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। বগুড়া গোয়েন্দা পুলিশ ও নাটোর জেলা পুলিশ গতকাল বুধবার দিবাগত রাত তিনটা থেকে বাড়িটি ঘিরে রেখেছিল।

বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে দুইটার দিকে সশস্ত্র পুলিশ সদস্যরা পুলিশ লাইনসংলগ্ন তিনতলা ওই বাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন। এরপর নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খাইরুল আলম সাংবাদিকদের জানান, জঙ্গিবিরোধী অভিযানের নিয়মিত তল্লাশি কাজের অংশ হিসেবে তাঁরা বাড়িটি ঘিরে রেখেছিলেন। বাড়ির বাসিন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তল্লাশি শেষে নিশ্চিত হওয়া গেছে বাড়িটিতে সন্দেহভাজন কেউ নেই। বাড়ি থেকে কোনো বিস্ফোরক দ্রব্যও পাওয়া যায়নি। তবে বাড়ির নিচতলার একটি বাসা থেকে কিসমত আলী (৩৪) নামের এক তরুণকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সদর থানায় নেওয়া হয়েছে।

বাড়িটির মালিক আমজাদ হোসেন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা। তিনি জানান, তিনতলা বাড়িতে ছয়টি বাসা রয়েছে। এর মধ্যে একটিতে তিনি নিজে, অন্য একটিতে তাঁর বড় ছেলে বসবাস করেন। বাকি চারটি ভাড়া দেওয়া আছে। ভাড়াটেদের মধ্যে পুলিশ লাইনের একজন কর্মকর্তা ও নারী কনস্টেবলও রয়েছেন। নিচতলার পশ্চিম পাশের ইউনিটে কিসমত আলী নামের একজন থাকেন। তাঁর সঙ্গে তাঁর স্ত্রী ও শাশুড়ি থাকেন। তাঁরা ব্যবসা করেন বলে তিনি জানেন।

বৃহস্পতিবার  দুপুরে হরিশপুর এলাকায় পুলিশ লাইনের সামনে গিয়ে দেখা যায়, পুলিশ লাইনের পশ্চিম দেয়াল-সংলগ্ন তিনতলা নীল রঙের একটি বাড়ির চারদিকে সশস্ত্র পুলিশ অবস্থান নিয়ে আছে। বাড়িটি নাটোর-ঢাকা মহাসড়ক-সংলগ্ন দক্ষিণ পাশে। বাড়ির ভেতর থেকে কয়েকজন নারী ও শিশুকে বারান্দায় আসা যাওয়া করছে। সাংবাদিকদের বাড়ির ৪০০ গজের মধ্যে যেতে দেওয়া হয়নি।

বগুড়া পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরিফ মণ্ডলসহ নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিকদার মশিউর রহমান ও বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা বাড়ির ভেতরে ছিলেন। বেলা ১টা ৫৩ মিনিটে তাঁরা বাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন। পরে তাঁরা পুলিশ লাইনের পূর্ব পাশের একটি বাড়িতে তল্লাশি চালান। ওই বাড়িটি সম্প্রতি শহরের একজন চিকিৎসক, ব্যাংকারসহ তিনজন যৌথভাবে কিনেছেন। সেখানে ভাড়াটে থাকেন। এখানেও সন্দেহভাজন কাউকে পাওয়া যায়নি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: