সর্বশেষ আপডেট : ১২ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২৮ মে, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রধান বিচারপতির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর এত জ্বালা কেন : রিজভী

Rijvi2020170509190549নিউজ ডেস্ক:: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, ‘আপনি হলেন শাসন বিভাগের কর্তা। আপনি জোর করে ক্ষমতায় এসেছেন। কিন্তু আপনার গায়ে জ্বালা হচ্ছে যখন প্রধান বিচারপতি বলছেন যে, দেশে আইনের শাসন নেই, বিচার বিভাগের শাসন নেই। দেশে যদি সত্যিই আইনের শাসন থাকত তবে আপনার গায়ে জ্বালা লাগত না।’

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনের ভাসানী ভবনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল কর্তৃক খিলক্ষেত থানা মহিলা দলের কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, গতকাল (সোমবার) পার্লামেন্টের অধিবেশনের সমাপনী ভাষণে প্রধানমন্ত্রী ক্রোধান্বিত হয়েছেন, প্রশ্ন রেখেছেন, প্রধান বিচারপতি এসব বলে কী করে?

রিজভী বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি বলবেন না, এদেশে আইনের শাসন কোথায়? কোথায় বিচার বিভাগের স্বাধীনতা?’

সংসদে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা না থাকলে খালেদা জিয়ার মামলার বিচারে ১৪০ বার সময় পান কীভাবে? এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘১৪০ বার সময় দিতে হবে কেন? আপনি এদেশে বিচার বিভাগকে, নিম্ন আদালতকে প্রভাবিত করেন বলেই আজকে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বিএনপির চেয়ারপারসনের আইনজীবীরা বারবার বিচারপতির ওপর নো কনফিডেন্স দেয় তখন নিম্ন আদালতের বিচারক বলেন, আমরা নো কনফিডেন্স গ্রহণ করি না। কেন? তার কারণ তারা আপনার দ্বারা প্রভাবিত, আপনার ভয়ে কম্পিত। কারণ এর আগে এক মামলায় বিএনপির নেতাকে খালাস দেয়ার কারণে বিচারক বাংলাদেশে থাকতে পারেননি। দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে হয়েছে আপনার ভয়ে।’

তিনি বলেন, ‘আপনি (প্রধানমন্ত্রী) যে বিচার বিভাগের উপর হস্তক্ষেপ করেন, এই কথাটি প্রধান বিচারপতি বলেছেন বলে আপনার গায়ে আগুন ধরে গেছে, আপনি জ্বলে-পুড়ে ভস্ম হয়ে গেছেন। কারণ আপনি গণতন্ত্রে বিশ্বাস করেন না। যারা গণতন্ত্র বিশ্বাস করে তারা সমালোচনা সহ্য করে। কিন্তু আপনি সমালোচনা সহ্য করতে পারেন না।’

খালেদা জিয়ার মামলা নিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে খালেদা জিয়া এবং শেখ হাসিনা একই মামলায় আসামি হন। কিন্তু শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর বিচার বিভাগের উপর বন্দুক ধরে তার সব মামলায় খালাস নিয়ে নেন। তাহলে এটি কিসের শাসনের দৃষ্টান্ত? এটা কি আইনের শাসন? গণতন্ত্রের শাসন? না এটা হাসিনার শাসন? এটা হচ্ছে হাসিনার শাসন। হাসিনার শাসনের মধ্যে বিরোধী দলের সমাবেশ করার অধিকার থাকে না।’

জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে কর্মী সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, ঢাকা মহানগর মহিলা দল উত্তরের সভাপতি পেয়ারা মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক আমিনা খাতুন প্রমুখ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: