সর্বশেষ আপডেট : ২৩ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৩ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হাওরে বাঁধ নির্মাণে অনিয়মে জড়িতদের শাস্তির দাবি বিএনপির

bnp-logo-lg20170426170310সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা:: হাওরে বাঁধ নির্মাণে যে অনিয়ম হয়েছে তা নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন বিএনপির ত্রাণ কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী ও কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান।

মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে অকাল বন্যায় সুনামগঞ্জের হাওরপাড়ের গ্রাম ছলিমপুরে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে বিএনপির পক্ষ হতে ত্রাণ বিতরণকালে তিনি এ দাবি জানান।

এদিন ওই গ্রামের ৭০ জন ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় কৃষকদের মধ্যে ১০ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু, ৫ কেজি পেঁয়াজ, এক লিটার সয়াবিন তেল, এক কেজি মসুর ডাল ও এক কেজি লবণ দেয়া হয়। এরপর সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার রঙ্গারচর ইউনিয়নের বল্লবপুর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

বিএনপি দুর্গতদের পাশে আছে জানিয়ে তিনি বলেন, বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার আদেশে আমরা সাত সদস্যের প্রতিনিধিদল গত দুইদিন ধরে হবিগঞ্জের বানিয়াচং দুর্গত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছি।

এর আগে বেলা ১১টার দিকে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার লক্ষ্মণশ্রী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াদুদের জানিগাঁও গ্রামের বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলন করেন এই প্রতিনিধি দল।
এ সময় বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট ফজলুল হক আসপিয়া, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাখাওয়াত হাসান জীবন, কেন্দ্রীয় প্রকাশনা সম্পাদক ও সাবেক এমপি হাবিব ইসলাম হাবিব, কেন্দ্রিয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক এমপি নাছির উদ্দিন আহমদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক এমপি কলিম উদ্দিন মিলন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রতিনিধি দলের সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, আমরা আরও আগেই আসতাম, কিন্তু সরকারের বাধার কারণে আসতে পারিনি। আমরা অভিলম্বে সুনামগঞ্জসহ ক্ষতিগ্রস্ত হাওর এলাকাকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করতে সরকারে প্রতি জোর দাবি জানাই।

সংবাদ সম্মেলন থেকে ৯ দফা দাবি জানানো হয়। দাবিগুলো হলো- অবিলম্বে সুনামগঞ্জ জেলাকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করা হোক, জেলার সকল ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ডে অবিলম্বে পর্যাপ্ত পরিমাণে কম মূল্যে চাল বিক্রি করতে হবে, ভিজিএফ-ভিজিডি ও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির মেয়াদ বাড়াতে হবে, সকল কৃষিঋণ সুদসহ মওকুফ ও নতুন ঋণ প্রদান করতে হবে, এ বছর কৃষি জমির খাজনা মওকুফ করতে হবে, সকল জলমহালের ইজারা প্রথা বাতিল করে সকলকে মৎস্য আহরণের সুযোগ দিতে হবে, সকল সরকারি-বেসরকারি ঋণ আদায় স্থগিত করতে হবে, হাওরে বাঁধ নির্মাণে লুটপাট, দুর্নীতি ও অনিয়মের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে এবং হাওর উন্নয়নে হাওরের আলাদা বৈশিষ্ট অনুযায়ী পরিবেশ বান্ধব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: