সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১৯ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে স্কুলছাত্র ইমন হত্যামালায় আরেকজনের সাক্ষ্যগ্রহণ

chattokনিজস্ব প্রতিবেদক ::
সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার চাঞ্চল্যকর শিশু ইমন হত্যামামলায় সাক্ষ্য অব্যাহত রয়েছে। বাদি ও নিহতের পিতা জহুর আলীর সাক্ষ্য দেওয়ার পর আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন বাতিরকান্দি গ্রামের বাসিন্দা সাক্ষী লোকমান আহমদ। গতকাল মঙ্গলবার সিলেটের দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের বিচারক মকবুল আহসানের আদালতে তিনি সাক্ষ্যতে প্রধান আসামি সুজনের উদৃতি দিয়ে ইমন হত্যায় ব্যবহৃত চাকু, জামাকাপড় ও মাথার খুলিসহ বিভিন্ন আলামত উদ্ধারের বর্ণনা দেন।

ছাতক উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের বাতিরকান্দি গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী জহুর আলীর ছেলে ও লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট কারখানার কমিউনিটি বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ছাত্র ইমনকে ২০১৫ সালের ২৭ মার্চ অপহরণ করা হয়। পরে মুক্তিপণের টাকা পাওয়ার পরও অপহরণকারীরা শিশু ইমনকে হত্যা করেন। ৮ এপ্রিল মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে সিলেটের কদমতলি বাস স্ট্যান্ড থেকে শিশু ইমনের হত্যাকারী ইমাম সুয়েবুর রহমান সুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাঁর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি, বিষের বোতল ও রক্তমাখা কাপড় উদ্ধার করে। বাতিরকান্দি হাওর থেকে ইমনের মাথার খুলি ও হাতের হাড় উদ্ধার করে পুলিশ।

আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট কিশোর কুমার কর জানিয়েছেন, প্রথমদিন সাক্ষী হিসেবে বাদি আদালতে সাক্ষ্য দেন। পরবর্তী তারিখে তাকে বিবাদি পক্ষের আইনজীবীরা জেরা করেন। গতকাল মঙ্গলবার লোকমান নামের আরেকজন সাক্ষ্য দেন। তিনি জানান, আদালতে সাক্ষ্য প্রদান অব্যাহত রয়েছে। আগামী তারিখেও সাক্ষ্য নেওয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: