সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ৯ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ বৈশাখ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিশ্বনাথে শিশুদের ঝগড়াকে কেন্দ্র সংঘর্ষ, আহত ৫০

2.-daily-sylhet-sanggarsho-newsবিশ্বনাথ সংবাদদাতা:: বিশ্বনাথ উপজেলায় শিশুদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে পুলিশসহ দু’পক্ষের অনন্ত ৫০জন আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাত ৮ টায় উপজেলার লামাকাজী ইউনিয়নের মির্জার গাঁও গ্রামের আবুল খয়ের লালা মিয়া ও আব্দুর রকিব লেছু মিয়ার লোকজনের মধে পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটে।

এতে হামলায় বাড়ি-ঘর ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। পরে পুলিশ অনেক চেষ্টা চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২৬জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

আহতরা হলেন বিশ্বনাথ থানার এসআই রাজিব রহমান, মির্জাগাঁও গ্রামের কুতুব উদ্দিন, কালা মিয়া, আব্দুন নুর, সুয়েব আহমদ, সুমেল মিয়া, মাইনুদ্দিন, আমির আলী, আত্তর আলী, আব্দুস ছালাম। তাৎক্ষনিক অন্যান্য আহতদের নাম জানাযায়নি। গুরুতর আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে মির্জাগাঁও গ্রামের ফয়জুল হক ও আব্দুস শুকুরের ছেলেদের মধ্যে ঝগড়া হয়। এসময় এই ঝগড়াকে কেন্দ্র করে রাত ৮টায় উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। প্রায় ঘন্টাব্যাপি সংঘর্ষে পুলিশসহ অনন্ত ৫০জন আহত হন। খবর পেয়ে থানা পুলিশ, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ আশাপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এসময় থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২৬ জনকে আটক করে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এলাকার পরিস্থিত কিছুটা শান্ত রয়েছে। সংঘর্ষের বিষয়টি নিস্পত্তির লক্ষ্যে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এব্যাপারে আবুল খয়ের লালা মিয়া পক্ষের জহির উদ্দিন বলেন, বিকেলে দুই শিশুর মধ্যে ঝগড়া হলে বিষয়টি নিস্পত্তির চেষ্টা করেন আমাদের পক্ষের সায়েদ আহমদ সাদ্দাম। এসময় তার সাথে লেছু মিয়া গংদের কথা কাটাকাটি হয়। এরপর মসজিদে মাগরিবের নামাজ পড়ে আসার পথে আমাদের পক্ষের লোকজনদের উপর তারা অতর্কিতভাবে হামলা করলে আমাদের ২৫/৩০ জন লোক আহত হয়েছেন।
আব্দুর রকিব লেছু মিয়া বলেন, আমার বাড়ির দুই শিশু ঝগড়া করলে সায়েদ আহমদ সাদ্দাম এসে তাদেরকে মারধর করেন। আমরা এর প্রতিবাদ করলে রাতে আমাদের বাড়িতে হামলা করে বেশ কয়েকটি ঘর ভাংচুর করা হয়। তাদের হামলায় আমাদের পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।
লামাকাজী ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন ধলা মিয়া বলেন, সংঘর্ষে পুলিশসহ ৫০জন আহত হয়েছেন এবং কয়েক বাড়ি-ঘর ভাংচুর করা হয়েছে। তবে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। বিষয়টি নিস্পত্তির জন্য আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
থানার ওসি মনিরুল ইসলাম পিপিএম জানান, সংঘর্ষে কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। ঘটনাস্থল থেকে ২৬জনকে আটক করা হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে বলে তিনি জানান।

fakhrul_islam

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: