সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৪৬ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

চলছে ‘অপারেশন মেক্সিমাস’, মুহুর্মুহু গুলির শব্দ বড়হাটে

ac431ce1833ab82ff776cca33d9a9e44-58de0061a387dডেস্ক রিপোর্ট:: মৌলভীবাজার শহরের বড়হাট এলাকার ‘জঙ্গি আস্তানার’ কাছ থেকে মুহুর্মুহু গুলির শব্দ শোনা গেছে। একাধিক বিকট বিস্ফোরণের আওয়াজও পাওয়া গেছে।
জঙ্গি আস্তানাটিতে আজ শুক্রবার অভিযান চালানো হচ্ছে। ‘অপারেশন মেক্সিমাস’ নামের এই অভিযানে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সঙ্গে আছে সোয়াট। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিভিন্ন ইউনিট অভিযানে সহায়তা করছে।

অভিযান চলাকালে দুপুর পৌনে ১২টার দিকে টানা গুলি শুরু হয়। ১২টা ১০,১২টা ৩৫ ও ১২টা ৫০ মিনিটে প্রচণ্ড বিস্ফোরণের শব্দে শোনা যায়। পুরো এলাকা কেঁপে ওঠে।
বিস্ফোরণের মধ্যেই মুহুর্মুহু গুলির শব্দ কানে আসে।

দুপুর ১২টা ৫২ মিনিটে অভিযানস্থল থেকে পুলিশের এক সদস্যকে অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে নিয়ে যেতে দেখা যায়।

পুলিশের ভাষ্য, বড়হাট এলাকার আবুশাহ দাখিল মাদ্রাসা গলির দোতলা একটি বাড়িতে জঙ্গি আস্তানাটি অবস্থিত। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে বাড়িটি জঙ্গি আস্তানা হিসেবে শনাক্ত করে ঘিরে রাখে পুলিশ। বুধবার ওই আস্তানা থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছোড়া হয়। গতকাল দিনভর বাড়িটি থেকে কোনো সাড়াশব্দ পাওয়া না গেলেও গভীর রাতে গুলি-বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়।

বুধবার ভোরে শহর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে নাসিরপুর গ্রামে আরেকটি জঙ্গি আস্তানা শনাক্ত হয়। প্রায় ৩৪ ঘণ্টা ঘিরে রেখে সেখানে ‘অপারেশন হিট ব্যাক’ নামে অভিযান চালায় পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নাসিরপুরের জঙ্গি আস্তানায় অভিযানের সমাপ্তি টানা হয়। সেখানকার জঙ্গি আস্তানা থেকে ‘ছিন্নভিন্ন সাত থেকে আটজনের লাশের অংশ’ পাওয়ার কথা জানায় পুলিশ। কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম গতকালই জানিয়েছিলেন, নাসিরপুরে অভিযান শেষ করার পর বড়হাটের জঙ্গি আস্তানায় পুরোদমে অভিযান শুরু করা হবে।

নাসিরপুরের অভিযান শেষে বড়হাটের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরুর জন্য প্রস্তুতি নেয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। আজ সকালে অভিযান শুরু হয়।

বড়হাটের লোকজন জানান, গতকাল দিবাগত রাত তিনটার দিকে তাঁরা জঙ্গি আস্তানার কাছ থেকে একটি বিকট বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন। এরপর থেমে থেমে গুলির শব্দ পেয়েছেন। সকাল সাড়ে ছয়টা থেকে সাতটার দিকেও গুলির শব্দ শোনা যায়।

অভিযান শুরুর প্রস্তুতির অংশ হিসেবে সাতসকালে বড়হাট এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য জড়ো হন। তাঁরা পুরো এলাকা ঘিরে ফেলেন। জঙ্গি আস্তানা-সংলগ্ন মৌলভীবাজার থেকে শেরপুরগামী সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। স্থানীয় লোকদের নিরাপদ দূরত্বে থাকতে বলা হয়। সংশ্লিষ্ট এলাকায় জারি থাকা ১৪৪ ধারার কথা মাইকিং করে ফের সবাইকে স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়।

বড়হাটের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালাতে সকাল আটটার দিকে ঘটনাস্থলে আসে সোয়াটের দল।

সকাল নয়টা ৫২ মিনিটে জঙ্গি আস্তানার কাছ থেকে টানা গুলির শব্দ শোনা যায়। এরপর কখনো টানা বা থেমে থেমে গুলির শব্দ ভেসে আসে।

সকাল সোয়া ১০টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের কয়েকজন সদস্যকে ইলেকট্রিক করাত, রশি, দা, কুড়াল নিয়ে জঙ্গি আস্তানার দিকে যেতে দেখা যায়।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাস্থলে আসেন কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম। পরে তিনি সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেন।

মনিরুল ইসলাম বলেন, বড়হাটের জঙ্গি আস্তানায় ‘অপারেশন মেক্সিমাস’ শুরু হয়েছে। ভেতরে একাধিক জঙ্গির অবস্থান আছে বলে জানা গেছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: