সর্বশেষ আপডেট : ২৫ মিনিট ৩৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তাহিরপুরে ভিজিডি কার্ডের তালিকায় অনিয়ম,চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে তদন্ত

2.-daily-sylhet-666-2সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা:: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার দক্ষিন শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ সরকারের বিরুদ্ধে গরীবের ভিজিডি কার্ডের তালিকা তৈরী ও চাল বিতরণে সীমাহীন অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এঘটনার প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে দুই সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল পর্যন্ত তদন্ত কমিটির সদস্যরা ভিজিডি কার্ডের অনিয়মের বিষয়টি ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত করেন।

তদন্ত কর্মকর্তারা হলেন-উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা লায়লা পারভীন ও একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প কর্মকর্তা মনু লাল রায়। এর আগে দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৫জন সদস্য তাদের চেয়ারম্যানের অনিয়ম ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,চেয়ারম্যান বিশ্বজিত সরকার ভিজিডির তালিকায় অসহায় দুস্থদের নাম না দিয়ে তার ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ ও তার নিজস্ব কিছু লোকজনের নামের তালিকা করেন এবং গোপনে চাল বিতরণের লক্ষ্যে তাহিরপুর খাদ্য গোদাম থেকে ১৫মেট্রিক টন চাল উত্তোলন করেন। এঘটনা জানতে পেরে ইউপি সদস্যরা লিখিত অভিযোগ করেন।

ইউপি সদস্যদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা প্রমানিত হওয়ায় সংশ্লিষ্ঠ ইউনিয়নের ১০গ্রাম পুলিশসহ ৯২জনের ৫মেট্রিকটন চাল বিতরণ না করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদের সচিবকে নির্দেশ দেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা। এব্যপারে তদন্ত কর্মকর্তা মনু লাল রায় বলেন,ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বজিত সরকার সরকারের বরাদ্ধকৃত ২৬০টি ভিজিডি কার্ডের মধ্যে ২২১টি কার্ড ইস্যুর বিষয়ে ইউপি সদস্যদের পরামর্শ গ্রহন করেন এবং ৪১টি কার্ড চেয়ারম্যান তার নিজের মত করে তালিকাভুক্ত করেন। সেই সাথে ১০জন গ্রাম পুলিশের নামেও তিনি ভিজিডি কার্ড প্রদানকরা সহ একই পরিবারের ২-৩জনকে ভিজিডি কার্ড করে দিয়েছেন। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা লায়লা পারভীন বলেন,অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা সরেজমিন তদন্ত করে জানতে পেরেছি অনিয়মের কিছু চাল এখনও বিতরণ করা হয়নি,এব্যাপারে আমরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কছে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেব। দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বিশ্বজিত সরকার বলেন,আমার বিরুদ্ধে যা লিখেন তা ভাল ভাবে বুঝে শুনে ও যাচাই-বাচাই করে লিখবেন। তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন,তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: