সর্বশেষ আপডেট : ৩২ মিনিট ৩০ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৬ মে, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নবীগঞ্জ উপজেলা আইনশৃখলা কমিটির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না হওয়ায় জনমনে অসন্তোষ

unnamed (10)নবীগঞ্জ সংবাদদাতা:: নবীগঞ্জ উপজেলা আইনশৃংখলা কমিটির আলোচিত সিদ্ধান্তগুলো ইদানিং বাস্তবায়ন না হওয়ায় জটিলতার সৃষ্টি হচ্ছে। উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ আইনশৃংখলা কমিটিতে আলোচিত সিদ্ধান্তগুলোর প্রতি কর্নপাত করছেন না। এ নিয়ে সুধি মহলসহ জনমনে আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। উপজেলার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ন জলমহাল দখল নিয়ে খুন ও দাঙ্গার আশংকা প্রকাশ করে ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ আলোচনা করেন। এসব বেশির ভাগ গুরুত্বপূর্ন সিদ্ধান্তগুলো কমিটির সভাপতি ইউএনও তাজিনা সারোয়ার এর কার্যালয়ে ফাইলবন্ধি হয়ে পড়ে রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে নবীগঞ্জ উপজেলা হল রুমে উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সভায় বিগত সভার সিদ্ধান্তগুলো বায়স্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। ফলে উপস্থিত সদস্যদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ দেখা দেয়। নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাজিনা সারোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) রাসেলুর রহমান, নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জীতেন্দ্র কুমার নাথ, থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল বাতেন খাঁন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডাঃ রথীন্দ্র চন্দ্র দেব, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারন সম্পাদক ও প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক উত্তম কুমার পাল হিমেল, ইউপি চেয়ারম্যানদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইজাজুর রহমান, মোঃ আশিক মিয়া, আবু সাঈদ এওলা মিয়া, আলী আহমেদ মুসা, ছাইম উদ্দিন, আবু সিদ্দিক, বজলুর রশিদ, জাবেদুল আলম চৌধুরী সাজু, জাপা নেতা শাহ আবুল খয়ের, মাহমুদ মিয়া চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা মোস্তাক আহমেদ মিলু ও শেখ ছইফা বেগম কাকলি প্রমুখ। সভায় শুরুতেই সভাপতি বিগত সভার সিদ্ধান্ত নিয়ে আলোচনার আহবান জানালে কোন সদস্য আলোচনায় অংশ না নিয়ে নিরবতা পালন করেন। পরে বিগত সিদ্ধান্তগুলো রেজুলেশন আকারে গ্রহন করা হয়।

উল্লেখ্য যে, বিগত দুই সভায় জলমহালের জোর দখল ও লিজ নিয়ে দাঙ্গা হাঙ্গামা, খুন খারাবি হওয়ার আশংকা নিয়ে আলোচনা হলেও কমিটির সভাপতি কার্যকর কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেননি। জলমহাল নিয়ে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষ ও দাঙ্গা হাঙ্গামাসহ আইনশৃংখলা অবনতির আশংকা রয়েছে। বিগত সভায় দুই জন ইউপি চেয়ারম্যান তাদের স্ব স্ব এলাকার জলমহাল নিয়ে খুন, ও দাঙ্গার আশংকা প্রকাশ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষন করলেও তিনি বাস্তব কোন পদক্ষেপ নেননি। এছাড়াও সরকারী জায়গা দখল, কবরস্থান, হিন্দু সম্প্রদায়ের দেবত্তোর সম্পত্তি ও মন্দির, মসজিদের জায়গা দখল নিয়ে একাধিক সদস্য আলোচনা করলেও সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় এ কমিটির অনেক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সুধি মহলে এনিয়ে প্রশ্ন জেগেছে আইনশৃংখলা কমিটির সভায় আলোচিত সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়নে কার্যকরি ব্যবস্থা না নেওয়া হলে, এর সমাধান কোথায় হবে ? এমন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে সচেতন মহলে। এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে নানা প্রশ্ন বিরাজ করছে জনমনে। এর মধ্যে বিশেষ করে প্রতিটি সভায় নবীগঞ্জ শহরের যানজট নিরসনে আলোচনা হলেও বাস্তবে যানজট নিরসনে কোন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছেনা।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: