সর্বশেষ আপডেট : ১৭ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ চৈত্র ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে প্রকল্প কর্মকর্তার কার্যালয় ঘেরাও : চেয়ারম্যান-মেম্বারদের হট্টগোল

01.-daily-sylhet-Chhatak-news2ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকে অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান-কর্মসূচীর প্রকল্প থেকে বঞ্চিত রাখায় উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রকল্প কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ করে রাখেন। সোমবার বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় ৩ ঘন্টা এ কর্মকর্তা অবরুদ্ধকরে রাখেন তারা। নতুন যোগদানকৃত প্রকল্প কর্মকর্তা এসএম করিম সদ্য বদলীকৃত প্রকল্প কর্মকর্তার উপর এ ব্যাপারে দায় চাপিয়ে লিখিত দিয়ে তিনি মুক্ত হন। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের প্রেরিত পরিপত্র থেকে জানা যায়, ২০১৬-১৭ অর্থ বছরের অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান-কর্মসূচীর ১ম পর্যায়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর কর্তৃক উপজেলা ১৩ টি ইউনিয়নে ১ হাজার ৭শ’ ১৭জন উপকারভোগী শ্রম মজুরী বাবদ ১ কোটি ৫৪ লাখ ৫হাজার ৮শ’ ৩ টাকা বরাদ্ধ দেয়া হয়। এর মধ্যে নন-ওয়েজ কষ্ট ও সর্দার মজুরীর টাকা বাদে বাকী ১ কোটি ৩৭ লাখ ৩৬ হাজার টাকা ১৩ ইউনিনের অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান-কর্মসূচী বাস্তবায়নে বরাদ্ধ দেয়া হয়। এসব অর্থ ১৬ জানুয়ারীর মধ্যে ইউনিয়ন ওয়ারী বিভাজনের মাধ্যমে প্রকল্প তালিকা, শ্রমিক তালিকা ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি চেয়ে প্রত্যেক ইউনিয়নকে চিঠি প্রদান করার নির্দেশ দেয়া থাকলেও উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা(বদলীকৃত) অজ্ঞাত কারনে উপজেলার নোয়ারাই, কালারুকা, ছাতক, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ও সিংচাপইড় ইউনিয়নে এ প্রকল্পের ব্যাপারে কোন চিঠি ইস্যু করেননি।

উপজেলার বাকী ইউনিয়নগুলোতে যথারীতি বরাদ্ধ দিয়ে ইতিমধ্যেই ১২ কার্যদিবস অতিবিাহিত হয়েছে ও ৪১ লাখ ২০হাজার ৮শ’ ২০ টাকা লিখিত তামাদি দেখানো হয়েছে পরিপত্রের একটি অংশে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর স্মারকে হাতে লেখা ক্রমিক নং ৩ এ উপজেলার সবকটি ইউনিয়নকে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি জমা দেয়ার জন্য চিঠি ইস্যুর বিষয়টি উল্লেখ করা হয়। নোয়ারাই, কালারুকা, ছাতক, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ও সিংচাপইড় ইউনিয়নে নির্ধারিত সময়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি জমা না দেয়ায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের স্মারক অনুযায়ী এসব ইউনিয়নের প্রকল্পের বরাদ্ধ ফেরতের তালিকায় রাখা হয়।

আরো উল্লেক করা হয় এ পরিস্থিতে উক্ত ৫টি ইউনিয়নের সাথে সমন্বয় এবং স্থানীয় এমপির সাথে আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া যেতে পারে। এদিকে গত ২৩ ও ২৬ জানুয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে নথি পেশ করে এ ব্যপারে সভা আহবানের তারিখ অনুমোদন চাওয়া হলে নির্বাহী কর্মকর্তা বিলম্বে করার মৌখিক নির্দেশ দেন এবং নথি পুনরায় প্রকল্প অফিসে ফেরত আনা হয়। কিন্ত বাস্তবে উপরোক্ত ৫ টি ইউনিয়নকে কোন চিঠি না দিয়েই অতিদরিদ্রদের কর্মসৃজন-কর্মসূচী প্রকল্প সম্পর্কে সম্পূর্ন অজ্ঞাত রাখা হয়েছে বলে ছাতক সদর ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, নোয়ারাই ইউপি চেয়ারম্যান দেওয়ান পীর আব্দুল খালিক রাজা, কালারুকা ইউপি চেয়ারম্যান অদুদ আলম, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আখলাকুর রহমান ও সিংচাপইড় ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন সাহেল দাবী করেছেন। অতিদরিদ্রদের কর্মসৃজন-কর্মসূচী প্রকল্প থেকে তাদের কেন বঞ্চিত রাখা হয়েছে এর জবাব চাইতে বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রকল্প অফিস ও কর্মকর্তাকে ঘেরাও করে রাখেন বঞ্চিত ইউনিয়ননের চেয়ারম্যান-মেম্বাররা। এসময় উপজেলা প্রকৌশলী সমরেন্দ্র দাস তালুকদারের সহায়তায় নতুন যোগদানকারী প্রকল্প কর্মকর্তা এসএম করিম অতিদরিদ্রদের কর্মসৃজন-কর্মসূচী প্রকল্পের ব্যাপরে বদলীকৃত প্রকল্প কর্মকর্তা উল্লেখিত ৫টি ইউনিয়নে কোন চিঠি প্রদান করেননি মর্মে লিখিত দিয়ে তিনি মুক্ত হন। লিখিত দেয়ার কথা স্বীকার করে প্রকল্প কর্মকর্তা এসএম করিম জানান, তিনি গত রোববার এখানে যোগদান করেছেন। এ ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: