সর্বশেষ আপডেট : ৮ মিনিট ১৯ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৯ মার্চ, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ চৈত্র ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কোম্পানীগঞ্জ শ্রমিক লীগের সম্মেলনে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

16406917_774854465988970_1539468017846669727_n-600x551কোম্পানীগঞ্জ সংবাদদাতা:: ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার মধ্য দিয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা শ্রমিকলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন উপজেলা শ্রমিকলীগের আহবায়ক দুলন রঞ্জন দেব’র সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক রিয়াজ উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আলী দুলাল, জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম রশিদ চৌধুরী, গোয়াইনঘাট কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ ফজলুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এডভোকেট মোঃ নুরুল আমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আলী আমজদ, সাধারণ সম্পাদক আপ্তাব আলী কালা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সামছুল হক, জেলা পরিষদের সদস্য মোঃ জয়নাল আবদীন, তামান্না আক্তার হেনা, ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ বাবুল মিয়া, জেলা শ্রমিকলীগের সহ সভাপতি আব্দুল মতিন ভূঁইয়া, সহ সভাপতি আব্দুল জলিল, সহ সভাপতি আব্দুল ওদুদ, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ডাক্তার আব্দুন নুর, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবীর মছব্বির, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, মোঃ ইয়াকুব আলী, এডভোকেট শাহজাহান চৌধুরী।

সম্মেলন চলাকালে দুই পক্ষের মধ্যে হট্টগোল, চেয়ার ছোঁড়াছুঁড়ি, হাতাহাতি ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ মাঠে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অন্তত ১৫-২০ জন আহত হয়েছে বলে স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। এ সময় পরিস্থিতি বেগতিক দেখে জেলা নেতৃবৃন্দ সম্মেলনস্থল ত্যাগ করেন।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ মাঠে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা শ্রমিকলীগের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সিলেট-৪ আসনের এমপি মোঃ ইমরান আহমদ। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি প্রকৌশলী এজাজুল হক এজাজ। দলীয় এবং জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে দ্বিতীয় অধিবেশন চলছিল। সম্মেলনের শেষের দিকে নতুন কমিটির নাম ঘোষণা নিয়ে একটি পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। এ নিয়ে অপর পক্ষের সমর্থকদের সাথে হাতাহাতি, চেয়ার ছোঁড়াছুঁড়ি ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

সভায় উপস্থিত থাকা শ্রমিকলীগের একাধিক নেতা জানান, সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে দ্বিতীয় অধিবেশন চলাকালে সঞ্চালক নতুন কমিটির সেক্রেটারী হিসেবে রিয়াজ উদ্দিনের নাম ঘোষণার সময় অপর সেক্রেটারী প্রার্থী নুরুল ইসলাম বেরাই এর সমর্থকেরা হইচই ও হট্টগোল শুরু করেন। একপর্যায়ে দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। অবশ্য, কমিটির নাম ঘোষণার আগেই এমপি ইমরান আহমদ অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করে সিলেটের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন দুই পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালায়। এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন জানান, নাম ঘোষণার সময় সম্মেলনস্থলে আমি ছিলাম না। তবে শুনেছি নতুন কমিটির পদ নিয়ে একটি পক্ষের সমর্থকদের মাঝে অসন্তোষ দেখা দেয়। এতে ওই পক্ষের সমর্থকেরা ক্ষেপে যান। একপর্যায়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠে। তবে, বড় ধরণের কিছু ঘটার আগেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। যোগাযোগ করা হলে সভাপতি প্রার্থী ও জেলা শ্রমিকলীগের সহ সভাপতি মোঃ আব্দুল অদুদ জানান, নতুন কমিটির নাম ঘোষণার সময় একটি পক্ষ সমস্যা করেছে। কয়েকজনের নাম ঘোষণার পরপরই হট্টগোল শুরু হয়ে যায়। এ অবস্থায় অতিথিবৃন্দ সভাস্থল ত্যাগ করেন। পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশের আগেই হট্টগোল বেঁধে গেছে তাই পত্রিকায় কমিটির নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানান আব্দুল অদুদ।

সভাপতি প্রার্থী ও উপজেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক সামছুল হক কমান্ডার জানান, নতুন কমিটির সভাপতির নাম ঘোষণার আগেই গন্ডগোল বেঁধে যায়। এতে সম্মেলন পন্ড হয়ে যায়। তবে, জেলা নেতৃবৃন্দ রোববার সিলেটে ডেকেছেন। সেখানে হয়ত কমিটির বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হতে পারে।
সেক্রেটারী পদে প্রার্থী নুরুল ইসলাম বেরাই জানান, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রার্থী আব্দুছ ছালাম পদ না পেয়ে তাঁর কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে হট্টগোল বাঁধায়। পরে কমিটির নাম ঘোষণা না দিয়েই জেলা নেতৃবৃন্দ সম্মেলনস্থল ত্যাগ করে চলে যান।

ঘটনাস্থলে থাকা কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, সম্মেলনে সেক্রেটারী পদে নুরুল ইসলাম বেরাইর নাম ঘোষণা না করায় গন্ডগোল বাঁধে। এসময় চেয়ার ছোঁড়াছুঁড়ি ও হাতাহাতি হয়। তবে, পুলিশ সক্রিয় ভূমিকা নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: