সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুনামগঞ্জ জেলাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বাল্যবিবাহমুক্ত ঘোষনা করা হবে আজ

downloadআল-হেলাল, সুনামগঞ্জ:: আজ ২৩ জানুয়ারী সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সুনামগঞ্জ জেলাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বাল্যবিবাহমুক্ত ঘোষনা করা হবে। ইতিমধ্যে সুনামগঞ্জ জেলার ১১টি উপজেলাকে পর্যায়ক্রমে বাল্যবিবাহমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। ১৩ জানুয়ারী প্রথমে ছাতক উপজেলা থেকে যাত্রা শুরু করে ২৯ সেপ্টেম্বর তাহিরপুর উপজেলাকে বাল্যবিবাহমুক্ত উপজেলা হিসেবে স্বীকৃতি প্রদানের মাধ্যমে সুনামগঞ্জ জেলাকে বাল্যবিবাহমুক্ত করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ২৩ জানুয়ারী সুনামগঞ্জের প্রত্যেকটি উপজেলায় একসাথে ১ লক্ষ ৬ হাজার ৫ শত ছাত্র ছাত্রী ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার ৩ লক্ষাধিক জনগন একযোগে লালকার্ড প্রদর্শনের মাধ্যমে বাল্যবিবাহকে না বলবেন। উক্ত অনুষ্ঠানটি বাল্য বিবাহের বিরুদ্ধে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ জনসচেতনতামূলক লালকার্ড প্রদর্শন অনুষ্ঠান হিসেবে গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড এ স্থান করবে বলে আশা করা যাচ্ছে। অনুষ্ঠানটি সুনামগঞ্জের শহীদ আবুল হোসেন মিলনায়তন হতে ১১টি উপজেলায় একযোগে পরিচালিত হবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সুনামগঞ্জ জেলাকে বাল্যবিবাহমুক্ত ঘোষণা করবেন এবং বাল্যবিবাহ বিরোধী শপথবাক্য পাঠ করাবেন সিলেট বিভাগের মাননীয় বিভাগীয় কমিশনার মোঃ জামাল উদ্দিন মহোদয়। রবিবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ কামরুজ্জামান,অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাবেরা আক্তারসহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ। জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম বলেন,বর্তমান মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সরকার ক্ষমতায় আসার পর সুনামগঞ্জ জেলায় আব্দুজ জহুর সেতু বাস্তবায়নসহ শিক্ষা স্বাস্থ্য স্যানিটেশন ও যোগাযোগ ব্যবস্থার সর্বোপরী সর্বক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধন হয়েছে। জেলার প্রত্যেকটি উপজেলা ইউনিয়ন ও হাট বাজার এলাকায় সরকারের উন্নয়নের নজির আছে। উন্নয়নের পাশাপাশি আমরা সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনি গড়ে তুলতেও সাধ্যমতো কাজ করে যাচ্ছি। এখন এ জেলায় বাল্যবিবাহ তেমন একটা নেই। শুধু যে আইন প্রয়োগ করে এগুলো করেছি তানয় বরং সামাজিক সচেতনতা ও দায়বদ্ধতাও গড়ে তুলেছি। ঝড়েপড়া শিশুদের শিক্ষার হার হ্রাস করতে পেরেছি। আমাদের কথা ও কাজ একসাথে হওয়ায় আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।

২৩ জানুয়ারীর ঐতিহাসিক অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম সভাপতিত্ব করবেন উল্লেখ করে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে আমাদের পদক্ষেপ গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড এ স্থান পাবে এটা জেলার জন্য কম কৃতিত্বের নয়। আমরা না থাকলেও এর জন্য সারা জেলাবাসী প্রশংসিত হবেন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাবেরা আক্তার বলেন, সারা জেলার এ সফলতাকে প্রাতিষ্ঠানিক রুপ দিতে আমরা সবাই একসাথে কাজ করবো। এর পরে জেলা প্রশাসক জেলা সদরের বিভিন্ন দুস্থ নারী পুরুষ ও পথশিশুদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: