সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ৪ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৭ মার্চ, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ চৈত্র ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শিশুকে খুন করে কাঁচা মাংস ও রক্ত খেল কিশোর!

1485063937আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ৯ বছর বয়সী এক শিশুকে খুন করে তার রক্ত পান ও মাংস খেয়েছে ১৬ বছর বয়সী এক কিশোর! পুলিশের জেরায় দিপু নামের ওই শিশুকে খুন করার কথা স্বীকার করেছে বিকাশ কুমার নামের ওই অভিযুক্ত।

ঘটনাটি ঘটেছে পাঞ্জাবের লুধিয়ানার কর্নেল সিং নগরের দুগরি এলাকায়, জানিয়েছে দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

১৭ জানুয়ারি ঘুড়ি ওড়ানোর নাম করে দিপুকে নিজের বাড়িতে ডাকে বিকাশ। তারপর তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করে। এক পর্যায়ে মৃতদেহটিকে ছয় টুকরো করে কাঁচা মাংস খেতে শুরু করে সে। এমনকি, দিপুর রক্তও পান করে অভিযুক্ত। শেষমেশ ওই শিশুর শরীরের বাকি অংশ ভালোভাবে পানিতে ধুয়ে বস্তায় পুরে এক ফাঁকা স্থানে ফেলে আসে।

পুলিশ জানিয়েছে, বিকাশের বাড়ি থেকে ওই ফাঁকা এলাকাটি অন্ততপক্ষে ৫০ মিটার দূরে অবস্থিত।

কিন্তু, কেন দিপুকে এইভাবে খুন করল বিকাশ?

পুলিশ জানিয়েছে, প্রথমে দিপুকে খুন করতে চায়নি বিকাশ। তাকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করাই তার লক্ষ্য ছিল। কিন্তু সেই পরিকল্পনা কোনোভাবে ভেস্তে যাওয়ায় দীপুকে খুন করে সে। এমনকি, খুনের পর শরীর থেকে কাঁচা মাংস খেতেও দ্বিধাবোধ করেনি।

অবশ্য বিকাশ মানসিক রোগী বলে অনুমান পুলিশের।

জেরায় বিকাশ জানিয়েছে, দীপুর শরীর থেকে হৃদপিন্ড বের করে তা নিজের স্কুল চত্বরের মধ্যে ফেলে দেয়। স্কুলের নাম খারাপ করতে সে এই কাজ করেছে বলে জানা গেছে।

এর কারণ হিসেবে পুলিশকে বলে, তার স্কুলে যেতে একেবারেই ভালো লাগে না। তাই হৃদপিন্ড স্কুল চত্বরের মধ্যে ফেলে স্কুলের নাম খারাপ করতে চাইছিল। এর ফলে স্কুল বন্ধ হয়ে যাবে বলে ভেবেছিল সে।

হৃদপিন্ডটিকে স্কুল চত্বর থেকে উদ্ধার করার পাশাপাশি বিকাশকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: