সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ মাঘ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

খালেদা জিয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জি কে গউছ

Habiganj Picহবিগঞ্জ সংবাদদাতা ::
বিএনপির চেয়ারপার্সন ও সাবেক ৩ বারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সদ্য কারামুক্ত বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মেয়র জি কে গউছ। গত মঙ্গলবার রাতে বিএনপির চেয়ারপার্সনের ঢাকাস্থ গুলশান অফিসে ৩ শতাধিক নেতাকর্মীর বিশাল বহর নিয়ে তিনি এই ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এ সময় এক আবেগঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়।

শুভেচ্ছা বিনিময়ের পর বেগম খালেদা জিয়া বলেন, জি কে গউছ হবিগঞ্জের অত্যন্ত জনপ্রিয় নেতা। গউছ মানুষের জন্য কাজ করেন। জেল থেকে নির্বাচিত হয়ে গউছ এর প্রমাণ দিয়েছেন। এ জন্যই তাকে এতদিন জেল খাটতে হয়েছে। সরকার তাকে মামলা দিয়ে জেলে পাঠিয়েছে। তাকে অনেক নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে। কারাগারে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। বিএনপি ছাড়ার জন্য অনেক চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে। কিন্তু গউছ সরকারের কাছে নথি স্বীকার করেননি।

খালেদা জিয়া বলেন, হবিগঞ্জে যারা বিএনপির রাজনীতি করে তাদেরকে গউছের মতো জনপ্রিয় হতে হবে। ভবিষ্যতে বিএনপির নেতৃত্ব দেয়ার জন্য যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। দলের নীতি আদর্শকে আঁকড়ে ধরতে হবে। মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। খালেদা জিয়া বলেন, দেশে মৌলিক অধিকার নেই, গণতন্ত্র নেই, মানবাধিকার নেই, মানুষের কথা বলার জায়গা নেই। এ জন্য দেশের মানুষ এই আওয়ামী লীগ সরকারের কাছ থেকে মুক্তি চায়। আল্লাহর কাছে মানুষ দোয়া করে, কখন এই সরকারের পতন হবে।
সাবেক ৩ বারের এই প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, হবিগঞ্জে ব্যাপক আন্দোলন হয়েছে। দলের নেতাকর্মীদেরকেও সরকারের জেল-জুলুম সহ্য করতে হয়েছে। এখন দলকে সংগঠিত করতে হবে। যাদের বয়স হয়েছে, দলের জন্য কাজ করতে পারেন না, তাদেরকে সম্মানজনক জায়গায় রেখে সাহসী তরুণ নেতাদের দিয়ে কমিটি গঠন করতে হবে। মনে রাখতে হবে, বিএনপির জনপ্রিয়তা আছে, মানুষের সমর্থন রয়েছে। মানুষ ভোট দিতে পারলেই বিএনপি ক্ষমতায় আসবে। এ জন্য নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করতে হবে।

এরপূর্বে বেগম খালেদা জিয়ার কাছে ৭শ ৩৯ দিন কারাভোগের চিত্র তুলে ধরেন মেয়র জি কে গউছ। খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে জি কে গউছ বলেন, আমি দু বছরেরও অধিক সময় জেলে ছিলাম। কারাগারে আমাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আমার মেরুদন্ডে আঘাত করা হয়েছে। আমি আজ শারীরিকভাবে অসুস্থ। আমি কারাগারে থাকা অবস্থায় দলীয় নেতাকর্মীরা অনেক আন্দোলন-সংগ্রাম করেছেন। আমার জন্য নেতাকর্মীরা জেল খেটেছেন। পুলিশি নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে। অনেকে মামলার আসামি হয়েছেন। ফেরারি জীবন খাটাতে হয়েছে। আমি তাদের ঋণ শোধ করতে পারব না।

জি কে গউছ বলেন, আমার দুঃসময়ে হবিগঞ্জবাসী আমাকে ৩য় বারের মতো মেয়র নির্বাচিত করে নতুন জীবন দান করেছেন। মহান আল্লাহর দরবারে হাত তুলে আমার জন্য কেঁদেছেন। আমি সবার কাছে আমৃত্যু ঋণী হয়ে থাকব। তবে হবিগঞ্জের উন্নয়নের মাধ্যমে এই ঋণ শোধ করার চেষ্টা করব। এ জন্য তিনি খালেদা জিয়ার সহযোগিতা কামনা করেন।
এ সময় বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, সাবেক মন্ত্রী রুহুল কদ্দুস তালুকদার দুলু, মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি এম নাসের রহমান, সাবেক এমপি নাজিম উদ্দিন শামছু, সাবেক এমপি শাম্মি আক্তার, নারায়নগঞ্জের বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হাসান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও হবিগঞ্জ জেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, কৃষক দল, শ্রমিক দল, মহিলা দল, জাসাস ও জাসাদের ৩ শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: