সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখায় চাঁদাবাজরা খাসিয়া পুঞ্জির ৩ হাজার পানগাছ কেটে ফেলেছে

barlekha-pan-picবড়লেখা সংবাদদাতা ::
মৌলভীবাজারের বড়লেখায় চাঁদা না পেয়ে সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজরা একটি খাসিয়া পুঞ্জির পানজুমের প্রায় ৩ হাজার পান গাছ কেটে দিয়েছে। এতে ৪ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী সুক খাসিয়া গতকাল সোমবার বড়লেখা সিনিয়র জুডিসিয়েল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৭ জনের বিরুদ্ধে পিটিশন মামলা করেছেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে ঘটনার সত্যতা যাচাইপূর্বক এফআইআর করতে বড়লেখা থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।
আদালতের মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দক্ষিণভাগ ইউনিয়নের নিউ সমনবাগ চা-বাগানের মোকাম সেকশনের বাসিন্দা শংকর রিকমুন, বাসু রিকমুন, সল্টুরা গত কয়েকদিন ধরে ৭ নম্বর মাধবপুঞ্জির মৃত বিপুল খাসিয়ার ছেলে সুক খাসিয়ার নিকট ১ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিলেন। অন্যথায় পানজুমের পানগাছসহ অন্যান্য গাছপালা কেটে ফেলার হুমকি দেন।
তাদের দাবিকৃত চাঁদা না দেয়ায় গত রোববার বিকেলে সুমন, রমেন, হরেণ, চন্দ্র, প্রদীপ, গনেন্দ্র, রাকেশ রায়, রাজু গংরা সুক খাসিয়ার মালিকানাধীন মাধবপুঞ্জির পান জুমে প্রবেশ করে পানগাছ ও সুপারি গাছ কাটতে থাকে। বাধা দিতে গেলে তারা জুম মালিক সুক খাসিয়াকে ধরে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিন পরে তাঁদের কবল থেকে তাকে উদ্ধার করেন।
এ ব্যাপারে বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ সহিদুর রহমান জানান, ‘আদালতে মামলা হয়েছে শুনেছি। আদালতের নির্দেশনার কপি থানায় এলে এফআইআর করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’
আদালতের এপিপি অ্যাডভোকেট গোপাল দত্ত পানগাছ, সুপারি গাছ কর্তন ও চাঁদা দাবির ঘটনায় আদালতে পিটিশন মামলা রুজুর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: