সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২৩ জুলাই, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কুলাউড়ায় মনু রেলসেতুর বাঁশ অপসারণ করে স্লিপার বসানোর কাজ শুরু

unnamedকুলাউড়া অফিস:: সিলেট-আখাউড়া রেল সেকশনের কুলাউড়া উপজেলার মনু রেলসেতুতে স্লিপারে বাঁশ লাগিয়ে পেরেক মেরে জোড়াতালি দিয়ে ট্রেন চলাচলের উপযোগি করা হয়। এবার রেলসেতুর স্লিপারে বাঁশ শিরোনামে বিভিন্ন গণমাধ্যমে রিপোর্ট প্রকাশের পর দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। শেষতক টনক নড়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের। শনিবার থেকে বাঁশ অপসারণ করে নতুন স্লিপার লাগানোর কাজ শুরু হয়।

৮ জানুয়ারি রোববার সকালে সরজমিন মনু রেলসেতুতে গেলে রেলওয়ে শ্রমিকের প্রধান নুর মোহাম্মদ জানান, মনু নদীর ওপর প্রায় ৩শ’ মিটার দৈর্ঘ্য এ সেতুটি স্থাপিত। এ সেতু দিয়ে ঘন্টায় ৬০ কিলোমিটার গতিতে ট্রেন চলাচল করে। সেতুতে রেললাইনে নিছে ২০৮ টি কাঠের স্লিপার বসানো রয়েছে। এর মধ্যে অনেক স্লিপার নষ্ট হওয়ায় স্লিপারের নাট বল্টু খুলে পড়ে গেছে। এ স্লিপারগুলো যাতে লাইনচ্যুত না হয় সেজন্য এর উপর বাঁশ বশিয়ে পেরেক মেরে রাখা হয়। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তারা সকল স্লিপার পরিবর্তনের কাজ করছেন।

এ ব্যাপারে রেলওয়ে উর্ধ্বতন উপসহকারী প্রকৌশলী আলী আযম ও সহকারী প্রকৌশলী মুজিবুর রহমানের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলে তারা ফোন রিসিভ করেননি। মূলত রেল সেতুতে বাঁশ সংক্রান্ত সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশের পর থেকে তারা গণমাধ্যম কর্মীদের ফোন এড়িয়ে চলছেন।

নামপ্রকাশ না করার শর্তে একাধিক নির্ভরযোগ্য সুত্র জানায়, এই দুই কর্মকর্তার দায়িত্বহীনতায় গোটা দেশে রেলওয়ের ভাবমূর্তি বিনষ্ট হলো। এদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া উচিত। তার যদি আগেই এই গুরুত্বপূর্ণ সেতুর বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতেন তাহলে এমন সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশ হতো না।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: