সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২৬ জুন, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

গত বছর সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে ৬০৫৫ জনের

1483589313নিউজ ডেস্ক:: গত বছর সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ঝরে গেছে অন্তত ছয় হাজার ৫৫ মানুষের প্রাণ। চার হাজার ৩১২টি সড়ক দুর্ঘটনায় এ সব মানুষ মারা গেছে। আহত হয়েছে ১৫ হাজার ৯১৪ জন। হাত-পা বা অন্য কোনো অঙ্গ হারিয়ে চিরতরে পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন ৯২৩ জন। এ তথ্য জানিয়েছে, বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।

সংগঠনটি বলছে, বেপরোয়া গাড়ি চালানো, চালকদের বেপরোয়া মনোভাব, বিপজ্জনক ওভারটেকিংসহ নানাবিধ কারণে এ সব দুর্ঘটনা ঘটছে। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে যাত্রী কল্যাণ সমিতি আয়োজিত- বাংলাদেশের সড়ক দুর্ঘটনা পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন ২০১৬ প্রকাশ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানানো হয়। প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেন সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, ২০১৫ সালে ৬ হাজার ৫০০টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ হাজার ৬০০ জন নিহত ও ২১ হাজার ৮৫৫ জন আহত হয়েছেন। যা ২০১৬ সালের তুলনায় বেশি। এতে দেখা গেছে, ২০১৫ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে মোট সড়ক দুর্ঘটনা ৩৪ দশমিক ৪৮ শতাংশ, নিহত ২৯ দশমিক ৯৪ শতাংশ এবং আহত ২৭ দশমিক ১৮ শতাংশ কমেছে।

সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে মোজাম্মেল হক বলেন, প্রকৃত হতাহতের সংখ্যা আরো বেশি। কারণ সড়ক দুর্ঘটনার অনেক তথ্যই সংবাদমাধ্যমে আসে না।

তিনি আরো বলেন, জিডিপির দেড় শতাংশ এ সড়ক দুর্ঘটনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এতে করে পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়ে ছিন্নমূলের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। যা মধ্যআয়ের দেশ গড়তে একটি বড় প্রতিবন্ধকতা বটে।

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে প্রচারণা, সড়কের পাশের হাটবাজার অপসারণ, জেব্রা ক্রসিং অংকন, চালকদের উপযুক্ত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাসহ বেশ কয়েকটি সুপারিশ তুলে ধরেন সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী।

এ ছাড়াও সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তির পরিবার যদি দরিদ্র হয় সেক্ষেত্রে তাদের ভরণ-পোষণের দায়িত্ব সরকারকে বহন করার প্রস্তাবও জানান তিনি।

তিনি বলেন, ২০১৫ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে সড়ক দুর্ঘটনার সংখ্যা কমলেও তা সন্তোষজনক নয়। এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে দুর্ঘটনাকে সহনীয় পর্যায়ে নামিয়ে আনতে সরকারের নানামুখী কর্মকাণ্ড আরো গতিশীল করার জন্য তিনি আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাবেক যোগাযোগ সচিব মাহবুবুর রহমান বলেন, ২০১৫ সালের তুলনায় গত বছর সড়ক দুর্ঘটনা কমে এসেছে, এটি একটি ইতিবাচক দিক। তবে, সড়ক দুর্ঘটনা প্রবণতা আরো কমিয়ে আনতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: