সর্বশেষ আপডেট : ১৭ মিনিট ৪২ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৭ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রাবির ক্রপ সায়েন্স বিভাগ শিক্ষকদের দ্বন্দ্বে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত

unnamed-4রাবি প্রতিনিধি:: শিক্ষকদের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রপ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সৃষ্টি হচ্ছে নানা সমস্যার। বিভাগ সভাপতি মোসলেহ উদ্দীনের পদত্যাগের দাবিতে গত কয়েকসপ্তাহ যাবৎ চলে আসা আন্দোলন ও তার সুরাহা হয়নি বলেই এই সমস্যা বলেও দাবি অনেকের। এর আশু সুরাহা না হলে বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম আরও বিনষ্ট হবে বলে জানাচ্ছেন তারা। আবারো পূর্বের পরিবেশ ফিরে পাওয়ার জন্য ও বিভাগের সুনাম রক্ষার্থে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বিষয়টির সুরাহা চান শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, বিভাগ সভাপতি মোসলেহ উদ্দিন বিভাগে কৃষিবিদ ও অকৃষিবিদ প্রসঙ্গ এনে শিক্ষকদের মধ্যে সুসম্পর্ক নষ্ট করার চেষ্টা করছেন। বিভাগের ০৯ জন শিক্ষক সভাপতির পদত্যাগের ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য বরাবর আবেদনও করেছে।
এ নিয়ে ডিসেম্বরের ২৮ ডিসেম্বর থেকে কর্মবিরতিসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে আসছে সভাপতির বিরুদ্ধে অভিযোগকারী শিক্ষকগণ। এর আগে বিভাগ সভাপতির পদত্যাগের দাবিতে ২ জানুয়ারী পর্যন্ত আল্টিমেটাম দেয় বিভাগের দুই-তৃতীয়াংশের অধিক শিক্ষক।
২ জানুয়ারি পদত্যাগ না করায় আবারও ৪-৫ জানুয়ারিতে সকাল ১০ টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছে তারা। যদি ৫ তারিখে বিভাগ সভাপতির পদত্যাগ না করেন তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শীতকালীন ছুটির পর বৃহত্তর কর্মসূচি গ্রহন করা হবে বলে হুমকি দেন তারা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন শিক্ষক বলেন, যেকোন বিষয়ের জন্য একটি প্রক্রিয়া আছে। তবে কোন ধরনের প্রক্রিয়া ছাড়াই এ আন্দোলন চলছে। বিষয়টির কারনে বিভাগের সুনাম নষ্ট হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

বিভাগে শিক্ষা কার্যক্রমের ব্যাপারে শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, গত দুই তিন সপ্তাহ ধরে বিভাগ সভাপতির বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে বিভাগের অধিকাংশ শিক্ষক। এর মধ্যে ২৮ ডিসেম্বর থেকে ২ দিনের কর্মবিরতিও পালন করেছে তারা।
অভিযোগকারী শিক্ষকগণের দাবি, মোসলেহ উদ্দীন চাকুরী জীবনের শুরু থেকেই সহকর্মীদের সাথে খারাপ আচরণ করে আসছেন। সভাপতি হওয়ার পর তার আচারণ ও সেচ্ছাচারিতার দিকটি আরও প্রসারিত হয়। অন্যান্য শিক্ষকদের তোয়াক্কা না করে নিজের ইচ্ছাধীন বিভাগ পরিচালনা করেনকৃষিবিদ ও অকৃষিবিদ প্রসঙ্গ টেনে বিভাগের শিক্ষকবৃন্দের মধ্য দীর্ঘদিনের সুসম্পর্ক নষ্ট করার ষড়যন্ত্র করেছেন বিভাগ সভাপতি।
বিভাগের অন্য শিক্ষকদের সাথে গালমন্দ করা সহ দুরব্যবহার করার অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে। এছাড়াও বিভাগের উন্নয়নের নামে প্লানিং কমিটির কোন অনুমোদন ছাড়া আরো বেশ কিছু ক্ষেত্রে বিভাগের অর্থ অবৈধভাবে খরচ করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষকরা।
এসব বিষয়ে অভিযুক্ত সিএসটি বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মোসলেহ উদ্দীন অভিযোগ গুলো অস্বীকার করে বরাবরই বলছেন তার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে অভিযোগ তোলা হয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: