সর্বশেষ আপডেট : ১৯ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২৮ মে, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

যে মাছে ড্রাগের থেকেও বেশি নেশা রয়েছে!

full_928283610_1483178643নিউজ ডেস্ক:: যেকোনো পার্টি বা উৎসবে অনেকে বন্ধুদের সঙ্গে মদ্যপান করে রাত জেগে কাটিয়ে দেন? অথবা মাদকজাত কিছু সেবন করে অন্য জগতে চলে যান? সেসবের আর প্রয়োজন নাই৷ কারণ একটি মাছই এবার আপনাকে নেশার চরমে পৌঁছে দেবে৷

যেকোনো মাদকদ্রব্যের থেকে এটা বেশি কার্যকরী। আর বেশ কয়েকদিন ঘোরের মধ্যে রেখে দেবে আপনাকে৷ আনন্দের হোক অথবা দুঃখের, নেশাগ্রস্থ হওয়ার জন্য অনেকেই নানা ধরনের মাদকের উপর নির্ভর করেন৷ কিন্তু ভাবুন তো, একটি মাছ খেলে যদি এলএসডি বা কোকেনের মতো ড্রাগ নেয়ার অনুভূতি হয়, তাহলে?

এটা কোনো গল্প নয়৷ পশ্চিম আফ্রিকার আটলান্টিক উপকূলে এমনই এক ধরনের মাছের সন্ধান পাওয়া গেছে৷ যা আপনাকে চরম নেশাগ্রস্থ করে তুলতে সক্ষম৷ এই মাছ খেলেই আগামী কয়েকদিন ঘোরের মধ্যেই থাকবেন আপনি৷ অর্থাৎ এই মাছ মানুষের শরীরে মদ বা ড্রাগের নেশার মতোই প্রভাব বিস্তার করে৷

সোনালি ও হলুদ রঙের আঁশ বিশিষ্ট এই মাছ দেখতে যতই সাধাসিধে হোক না কেন, এর ক্ষমতা কিন্তু মারাত্মক৷ আরবি ভাষায় মাছটির নামকরণ হয়েছে ‘সারপা সালপা৷’ শব্দটির অর্থ হলো, ‘যে মাছ আপনাকে স্বপ্ন দেখাতে পারে’৷ ২০০৬ সালে একটি রিপোর্টে দু’টি অদ্ভূত ঘটনার কথা প্রকাশ্যে এসেছিল৷

১৯৯৪ সালের ঘটনা৷ এক ব্যক্তি কানে ঘুরতে গিয়ে বেশ তৃপ্তি করে বেকড সারপা সালপা খেয়েছিলেন৷ কিন্তু তারপরেই ঘটে বিপত্তি৷ গাড়ি চালানোর সময় হঠাৎই দেখেন এক বিরাট প্রাণি তাঁর রাস্তা আটকে দাঁড়িয়ে রয়েছে৷ যদিও বাস্তবে এমন কিছুই ছিল না৷ এটা কেবলই তার হ্যালুসিনেশন৷ পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হয় যে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছিল৷ ৩৬ ঘণ্টা পর স্বাভাবিক হয়েছিলেন তিনি৷ যদিও কোনো ঘটনাই পরে মনে করতে পারেননি ওই ব্যক্তি৷

আরেকটি ঘটনা ঘটেছিল সেন্ট-ট্রোপেজের ৯০ বছর বয়সের এক বৃদ্ধার সঙ্গে৷ মাছটি খাওয়ার পর থেকেই তার মনে হতে থাকে তার আশেপাশে আনেক মানুষ চিৎকার করছে৷ পাখিরা ডেকেই চলেছে৷ দু’দিন পর ফের স্বাভাবিক হন তিনি৷

মাছটি নিয়ে অবশ্য কম গবেষণা হয়নি৷ বিজ্ঞানীদের ধারণা এর কারণ মাছের খাদ্য৷ এই প্রজাতির মাছ এমন কিছু খাবার খায় যাতে তাদের দেহে বিষাক্ত ড্রাগ প্রবেশ করে৷ তার ফলেই হ্যালুশিনেসনের শিকার হন মানুষ৷ যদিও এ ব্যাপারে এখনো পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছুই জানাতে পারেনি বিজ্ঞান৷

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: