সর্বশেষ আপডেট : ২৪ মিনিট ৩ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৩ মে, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

অবশেষে পালালেন সেই ভুয়া ডাক্তার!

maruf_news31dec16-3নিজস্ব প্রতিবেদক ::
রাগীব আলীর মালিকানাধিন চা-বাগান মালনিছড়ার হাসপাতালের সেই ভুয়া ডাক্তার মহসিন তারেক গাজি অবশেষে পালিয়ে গেছেন। বাগানের নিরীহ চা-শ্রমিকসহ তাদের পরিবারের প্রায় ১০হাজার সদস্যের চিকিৎসার দায়িত্বে ছিলেন তিনি । ডাক্তার পালিয়ে যাবার খবর পেয়ে শ্রমিকরা তার কোয়াটারের আসবাবপত্র বাসার বাহিরে বের করে দেয়।

বাগান পঞ্চায়েতের সভাপতি জিতেন সবর ডেইলি সিলেটকে বলেন, গত ৪/৫ দিন থেকে ডাক্তার তার কোয়াটারে নেই। কোথায় আছেন জানা যায়নি। তার পরিবারের কোন সদস্যকেও বাসায় পাওয়া যায়নি। আমি তার ব্যক্তিগত মোবাইলে অনেকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছি। তিনি ফোন রিসিভ করছেন না। জিতেন আরো জানান, চা শ্রমিকদের মধ্যে অনেকেই ডাক্তারের কাছে টাকা পাবে তারা এসে কোয়াটার থেকে মালামাল সরিয়ে নিয়েছে।

ডাক্তার পালিয়ে যাবার বিষয়ে বাগান ব্যাবস্থাপক আমিনুল ইসলাম ডেইলি সিলেটকে বলেন, ডাক্তার মহসিন তারেক গাজিকে অফিসিয়ালি ছুটিতে রাখা হয়েছিলো। তিনি তার সঠিক কাগজপত্রাদি আমাদের কাছে জমা দেবার নাম করে ঢাকায় গিয়েছিলেন। নির্ধারিত সময়ে ফিরে না আসায় গত বৃহস্পতিবার আমি এয়ারপোর্ট থানায় একটি সাধারণ ডায়রি (জিডি) করেছি।

এয়ারপোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোশাররফ হোসেন ডেইলি সিলেটকে বলেন, মালনিছড়া বাগান ব্যবস্থাপক আমিনুল ইসলাম গত ২৯ ডিসেম্বর একটা জিডি করেন। সেখানে তিনি উল্লেখ করেছেন, যে তাঁর বাগানের ডাক্তার মহসিন তারেক গাজি ছুটিতে গিয়ে নির্ধারিত সময়ে ফিরে আসেননি। জিডি নম্বর ১১১৫, তারিখ ২৯-১২-২০১৬ইং।

ভুয়া ডাক্তার মহসিন তারেক গাজিকে নিয়ে সিলেটের অন্যতম অনলাইন নিউজ পোর্টাল ডেইলি সিলেটে ‘রাগীব আলীর চা-বাগান হাসপাতালে ভুয়া ডাক্তার!’ এবং ‘বহাল তবিয়তে সেই ভুয়া ডাক্তার! ঝুঁকিতে ১০ হাজার প্রাণ’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশিত হবার পর বিষয়টি সকল মহলের নজরে আসে।

15800966_10206335351221640_98088859_nউল্লেখ্য, মহসিন তারেক গাজি নামের ব্যক্তিটি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস ডিগ্রী নিয়েছেন দাবি করলেও সিলেটের বিএমএ’র সভাপতি বলছেন, দেশে এ নামে কোনো ডাক্তারের বিএমডিসির রেজিস্ট্রেশন নেই। তবে মহসিন তারেক গাজি বিভিন্ন সময় তার প্যাডে বিএমডিসি’র বিভিন্ন ব্যক্তির রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করে চালিয়ে যাচ্ছিলেন চিকিৎসা পেশা।  ১২ বছর ধরে বিএমডিসি’র ৬০৯৯৬ রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করছিলেন এই ভুয়া ডাক্তার। জাতীয় পরিচয় পত্রে তার নাম মহসিন তারেক।

অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে মহসিন তারেক ‘নূর মিয়া’ নামের এক চা-শ্রমিকের ডেথ সার্টিফিকেটে রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করেছেন ৬০৬৯৬, যা সিরাজগঞ্জের ডা. সৌমিক কুমার বসাকের, আরেক প্রেসক্রিপশনে কুমিল্লার ডাক্তার জিনিয়া আফরিন মুন্নির ৫৩১৫৩ রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করেছেন, আর তার দাবি অনুযায়ী ৬০৯৯৬ নম্বরটি মানিকগঞ্জের ডাক্তার মো. আসাদুজ্জামানের নামে রয়েছে।

এছাড়া ৬০৬৯৯৬ নম্বরটির বিএমডিসি’র ওয়েবসাইটে কোন অস্তিত্বই ছিলোনা। সিলেট বিএমএ সভাপতি ডা. রুকন উদ্দিন জানান, মহসিন তারেক নামে তাদের কোন ডাক্তার নেই। ২০১৪ সালে মহসিন গাজিকে ভুয়া ডাক্তারির অভিযোগে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে আটকের পর মোবাইল কোর্ট সাজা দেয়।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: