সর্বশেষ আপডেট : ১৮ মিনিট ১৭ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৩ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছড়া ও খাল রক্ষায় সিলেটের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ প্রকল্পের অনুমোদন

144506197320151017সিলেটের ছড়া ও খাল রক্ষায় যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহন করেছে বর্তমান সরকার। ছড়া ও খাল রক্ষায় সিলেটের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ প্রকল্পের অনুমোদন পাওয়া গেছে। গত ২২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একনেকের সভায় ২৩৬ কোটি ৪০ লাখ টাকা প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এবারই প্রথমবারের মতো শুধুমাত্র ছড়া ও খাল রক্ষায় এতবড় প্রকল্প পেল সিলেট সিটি কর্পোরেশন। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে সিলেটের ছড়া ও খাল রক্ষার পাশাপাশি তা দৃষ্টিনন্দন করার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

এই প্রকল্পে সরকার ২০০ কোটি ৯৪ লাখ টাকা এবং সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নিজস্ব তহবিল থেকে ৩৫ কোটি ৪৫ লাখ টাকা ব্যয় করবে। প্রকল্পের আওতায় সিলেটের ১৩টি ছড়ার ২৬.৯৬ কিলোমিটার আরসিসি রিটেইনিং ওয়াল নির্মাণ করা হবে। এছাড়া ৫ কিলোমিটার ইউটাইপ ড্রেন, সাড়ে তিন কিলোমিটার ওয়াকওয়ে, ১০ কিলোমিটার ছড়া ও খাল খনন করা হবে। এছাড়াও এই প্রকল্পের আওতায় ৯টি ইকুইপমেন্ট ক্রয় করা হবে যার মধ্যে রয়েছে এমপিএসআইব্আিই এস্কাভেটর, উভচর এই এস্কাভেটর দিয়ে নদী খননও করা যাবে। প্রকল্পের আওতাভুক্ত ছড়া ও খাল গুলো হচ্ছে মালনীছড়া, গোয়ালীছড়া, গাভীয়ার খাল, মুগনীছড়া, কালীবাড়ী ছড়া, হলদিছড়া, যুগনীছড়া, ধোপাছড়া, বুবিছড়া, বাবুছড়া, রত্নার খাল, জৈন্তার খাল ও বসুর খাল।

২০১৪ সালের শেষের দিকে প্রকল্পটি প্রণয়ন করার পর বিভিন্ন ধাপ অতিক্রম করে চলতি ডিসেম্বর মাসে প্রকল্পটি পাশ হয়। ২০১৭ সালের জানুয়ারী মাসে প্রকল্প বাস্তবায়ন কাজ শুরু হয়ে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই কাজ সমাপ্ত করা হবে-এমনটাই জানিয়েছে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশল শাখা।

এই প্রকল্পকে একটি যুগান্তকারী প্রকল্প হিসেবে আখ্যায়িত করে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব জানান, ‘এই প্রকল্পের মূল কৃতিত্ব মাননীয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপির। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপির ঐকান্তিক প্রচেষ্টার কারণেই এই প্রকল্প পেয়েছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন।’

এনামুল হাবীব জানান, ‘প্রকল্প প্রস্তুতির শুরু থেকে পাশ হওয়া পর্যন্ত অর্থমন্ত্রী এই প্রকল্পের জন্য সার্বিক দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। একনেকের সভায়ও তিনি এই প্রকল্পের গুরুত্ব তুলে ধরেন। একনেকে’র সভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্পের আওতায় সিলেটের ছড়া ও খাল উদ্ধার করে তা রক্ষায় দ্রুততার সাথে কাজ করার জন্য সংশ্লিস্ট সবাইকে নির্দেশ দিয়েছেন।’

এনামুল হাবীব আরও জানান, ‘এই প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এবং স্থানীয় সরকার সচিব আবদুল মালেক আন্তরিকভাবে সহযোগিতার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।’ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সম্মানিত কাউন্সিলরবৃন্দ বিশেষভাবে সহযোগিতা করায় তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি। এছাড়াও সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশল বিভাগ এই প্রকল্প কাজে নিরলসভাবে কাজ করেছে বলে জানান এনামুল হাবীব।

সিটি কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) নুর আজিজুর রহমান জানান, ‘এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হওয়ার পর নবরূপ পাবে সিলেটের ছড়া ও খাল।’ তিনি জানান, ‘এই প্রকল্পের আওতায় হলদিছড়ার আংশিক অংশে ড্রেন ও রিটেইনিং ওয়ালের পাশাপাশি ফুটওভারব্রিজ করে সেখানে হাতিরঝিলের মতো একটি আবহ ফুটিয়ে তোলার কাজও করবে সিলেট সিটি কর্পোরেশন।’ এই সংক্রান্ত নকশাও প্রস্তুত করা হয়েছে বলে জানান নুর আজিজুর রহমান। – বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: