সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২১ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

গৃহবধূর জিহ্বা কর্তনের ঘটনায় স্বামীর ভাই ও ভাগনে গ্রেপ্তার

1433239006স্টাফ রিপোর্টার ::
শহরতলিতে যৌতুকের জন্য গৃহবধূ সুমা বেগমের উপর নির্যাতনের ঘটনায় গতকাল রোববার ভোররাতে আরো দু’জনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে এখন পর্যন্ত মূল আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

আটককৃতরা হচ্ছেন, সুমা বেগমের স্বামী বেলালের মামাতো ভাই ফয়েজ মিয়া ও ভাগনে রেদওয়ান আহমদ। তাদেরকে দক্ষিণ সুরমা উপজেলার খানুয়া গ্রাম থেকে আটক করে জালালাবাদ থানাপুলিশ। পরে গতকালই তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আক্তার হোসেন জানান, নির্যাতনে সহযোগিতার অভিযোগে এ দুজনকে আটক করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত মূল আসামি বেলাল আহমদকে আটক করা যায়নি।
এদিকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নির্যাতিত গৃহবধু সুমা বেগমের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে, তার জ্ঞানও ফিরেছে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎকরা।

গত বৃহস্পতিবার সিলেটের সদর উপজেলার পশ্চিম দর্শা গ্রামে সুমা বেগমের গ্রামের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে সুমাকে বাড়ির বাইরে জ্বালানি কাঠ রাখার ঘরে নিয়ে গিয়ে নির্যাতন শুরু করেন বেলাল আহমেদ ও তার সহযোগীরা। এ সময় তারা সুমা বেগমের জিহ্বা ও বাঁ পায়ের রগ কেটে দেয়। পরে সুমার মা বের হয়ে আসলে মোটরসাইকেল রেখে পালিয়ে যায় বেলাল ও তার সহযোগীরা। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় সুমা বেগমকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় গত শুক্রবার বেলাল আহমদ ও অন্যান্যদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন সুমা বেগমের ভাই হাফিজুর রহমান। মামলায় মোট ৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। এর আগে গত শনিবার সকালে বেলালের মা জয়নবুন্নেছাকে আটক করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: