সর্বশেষ আপডেট : ১৭ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২১ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

৮ জানুয়ারি খাদিজাকে আদালতে হাজির করার নির্দেশ

khadiza-daily-sylhet-0-1নিজস্ব প্রতিবেদক:
কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা মামলায় সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিসকে আগামী ৮ জানুয়ারি আদালতে হাজির হয়ে সাক্ষ্য দিতে বলেছেন বিচারক। বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেটের মুখ্য মহানগর বিচারিক হাকিম মো. সাইফুজ্জামান হিরো এ নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার এ মামলায় স্কয়ার হাসপাতালের নিউরো সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক ডা. এ এম রেজাউস সাত্তারের সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা সম্পন্ন হয়েছে। সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরোর আদালতে মামলার একমাত্র আসামি বদরুল আলমের উপস্থিতিতে তিনি সাক্ষ্য দেন।

এদিন আদালতে খাদিজার সাক্ষ্য গ্রহণের কথা থাকলেও তার শারীরিক অবস্থা দীর্ঘ যাত্রার জন্য এখনো পুরোপুরি সুস্থ না হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে ছাড়পত্র দেননি। ফলে তিনি সিলেটের আদালতে গিয়ে সাক্ষ্য দিতে পারেন নি।

আগামি বছরের ৮ জানুয়ারি খাদিজাকে আদালতে হাজির হয়ে সাক্ষ্য দেয়ার জন্য সমন জারি করেছেন বিচারক। ওই তারিখে বাকি থাকা অপর তিন জনের সাক্ষ্য গ্রহণের কথা রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট আদালতের এপিপি অ্যাডভোকেট মাহফুজুর রহমান জানান, স্কয়ারে খাদিজার চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা নিউরো সার্জন আজ সাক্ষ্য দিয়েছেন। আদালত মামলার পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ৮ জানুয়ারি তারিখ নির্ধারণ করেছেন। ওইদিন ভিকটিম খাদিজাকে আদালতে হাজির করার নির্দেশনা দিয়েছেন বিচারক।

গত ৫ ও ১১ ডিসেম্বর বদরুলের বিরুদ্ধে আদালতে ৩২ জন সাক্ষ্য দেন। আজ আরও একজন মিলিয়ে এ নিয়ে আলোচিত এ মামলায় মোট ৩৭ সাক্ষীর মধ্যে ৩৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হলো।
উল্লেখ্য, গত ৩ অক্টোবর সিলেট এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমের চাপাতির কোপে গুরুতর আহত হন খাদিজা। প্রথমে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পর সেখান থেকে ৪ অক্টোবর তাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে এনে লাইফ সাপোর্ট দিয়ে রাখা হয়। স্কয়ার হাসপাতালে প্রথম দফায় নার্গিসের মাথায় ও পরে হাতে অস্ত্রোপচার করা হয়। তার অবস্থার একটু উন্নতি হলে লাইফ সাপোর্ট খুলে দেওয়া হয়। এরপর আইসিইউ থেকে এইসডিইউ-তে স্থানান্তর করা হয়। সেখান থেকে ২৬ অক্টোবর তাকে কেবিনে নেওয়া হয়। এরপর আবারো মাথায় ও হাতে অস্ত্রোপচার করা হয়। বর্তমানে অনেকটা ভালো অবস্থায় রয়েছেন খাদিজা।

হামলার দিন ঘটনাস্থল থেকে বদরুল আলম আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে জনতা। আদালতে হামলার দায় স্বীকার করে জবানবন্দিও দিয়েছেন বদরুল। হামলার দায়ে তাকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্থায়ী বহিস্কার করেছে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: