সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ১৮ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৩ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

খইমুন বিবির খোঁজ নিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

lamonirhat-tista-old-w20161207184430নিউজ ডেস্ক:
১০১ বার কুরআন খতম করা শতবর্ষী বৃদ্ধা খইমুন বিবির খোঁজখবর নিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসক আবুল ফয়েজ মো. আলা উদ্দিনকে ফোন করে তার খোঁজখবর নিতে বলা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর জন্য ১০১ বার কুরআন খতম দিলেন শতবর্ষী বৃদ্ধা শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। পরদিন ৩০ নভেম্বর সংবাদটি প্রধানমন্ত্রীর নজরে আসে।

ওই দিনই প্রধানমন্ত্রী তার ফেসবুক পেজে নিউজটি শেয়ার করেন এবং ‘আপনাদের দোয়া ও ভালবাসাই আমাকে নিরাপদ রাখছে’ লিখে একটি স্ট্যাটাস দেন। এরপর শতবর্ষী বৃদ্ধা খইমুন বিবির খোঁজ নেয়া শুরু করেছেন লালমনিরহাট ও নীলফামারীর জেলা প্রশাসক।

বুধবার দুপুরে লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসক আবুল ফয়েজ মো. আলা উদ্দিন এই প্রতিবেদককে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে মঙ্গলবার রাতে ফোন করে খইমুন বিবির বিষয়ে খোঁজখবর নিতে বলা হয়েছে।

এরপর তিনি নীলফামারীর জেলা প্রশাসক ও লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সানিয়াজান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর মিয়ার কাছে ফোন করে খইমুন বিবির বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে অনুরোধ করেছেন।
এরপর তিনি লালমনিরহাট জেলা প্রশাসন থেকে এই শতবর্ষী বৃদ্ধার জন্য সহায়তা করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

খইমুন বিবির বড় ছেলে আব্দুল হামিদ জানান, ডিমলা উপজেলার নির্বাহী অফিসার রেজাউল করিম স্যার আমার মা খইমুন বিবির সঙ্গে মোবাইল ফোনে কয়েক মিনিট কথা বলেছেন।

সানিয়াজান ইউনিয়নের বীর মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন জানান, খইমুন বিবির ব্যাপারে লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসক আমাকে ফোন করে তার বিষয়ে খোঁজখবর নেন।

আরো পড়ুন : প্রধানমন্ত্রীর জন্য ১০১ বার কুরআন খতম দিলেন শতবর্ষী বৃদ্ধা

ডিমলা উপজেলার ৯নং টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহিনুর ইসলাম বলেন, ডিমলা উপজেলা নির্বাহী অফিসারে নির্দেশক্রমে তিনি খইমুন বিবির বাড়ি গিয়ে তার বিষয়ে খোঁজখবর নিয়েছেন।

লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসক আবুল ফয়েজ মো. আলা উদ্দিন বলেন, শতবর্ষী বৃদ্ধা খইমুন বিবির খোঁজখবর নেয়া হয়েছে। তার জন্য সকল প্রকার সাহায্য সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রীর জন্য ১০১ বার কুরআন খতম দিলেন তিস্তা চরের শতবর্ষী বৃদ্ধা। আল্লাহ যেন শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রাখেন। আর সরকার যেন কোনো দিন না বদলায়।

এজন্য শেখের বেটির নামে ১০১ বার কুরআন খতম দিছি। শেখের বেটি যেন এ খবরটা জানে। তার কাছে আমার চাওয়ার কিছুই নাই। শুধু মৃত্যুর আগে তাকে এ খবরটি জানিয়ে যেতে চাই।

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার ৯নং টেপা খড়িবাড়ী ইউনিয়নের পূর্ব খড়িবাড়ী গ্রামের পশ্চিম টাপুর চর এলাকার মৃত আব্দুল গফুরের স্ত্রী খইমুন বিবি। লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সীমান্ত লাগোয়া একটি গ্রাম।

তিস্তার গাইডবাঁধ থেকে প্রায় ৭ কিলোমিটার দূরে তিস্তার বাম তীরঘেঁষে একটি জীর্ণ কুঠিরেই থাকেন তিনি। যেখানে রাস্তা-ঘাট বলতে কিছুই নেই। তিস্তাচরে বঙ্গবন্ধু পরিবারে প্রতি এমন বিরল ভালোবাসা দেখিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন ওই বৃদ্ধা। জাগো নিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: