সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ১১ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী প্লেনে নাশকতার চেষ্টা!

1480612309নিউজ ডেস্ক:: প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্লেনে ইঞ্জিন ট্যাংকির নাটবল্টু ঢিলা পাওয়ায় ঘটনার পেছনে নাশকতার চেষ্টা থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই বিষয়কে সামনে রেখেই এখন তদন্ত চলছে। বোয়িং ৭৭৭-ইআর উড়োজাহাজের ইঞ্জিনের মধ্যেই রয়েছে অয়েল ট্যাংক। অয়েল সরবরাহ স্বাভাবিক না থাকলে ইঞ্জিন উত্তপ্ত হয়। এর ফলে যে কোনো মুহূর্তে এই ভিভিআইপি বিমানে আগুন ধরে যাওয়ার আশঙ্কা ছিল। এছাড়া মনিটরে লো অয়েল প্রেসার সংকেত দেওয়ার পর ইঞ্জিনটি বন্ধ করে দেওয়ার বাধ্যবাধকতা থাকলেও বোয়িং কোম্পানির সেই নির্দেশনা অনুসরণ করা হয়নি। এসব কারণে প্রাথমিক তদন্তে এটি নাশকতার চেষ্টা বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে দীর্ঘদিন যাবত্ অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতা চলছে। বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে বাংলাদেশ বিমান করপোরেশনকে কোম্পানিতে রূপান্তরিত করা হয়। কিন্তু এটা এখন পর্যন্ত ঘোষণার মধ্যেই সীমাবদ্ধ রয়েছে। কোম্পানি আইন অনুযায়ী এর কার্যক্রম চলছে না। প্রায় এক দশক অতিবাহিত হলেও বাজারে এর শেয়ার ছাড়া হয়নি। প্রতিবছর পরিচালনা পর্ষদ গঠন করে দিয়ে থাকে সরকার। কোম্পানি ঘোষণার পর থেকেই জাতীয় পতাকাবাহী এ সংস্থায় নিয়ম অনিয়মে পরিণত হয়েছে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন গতকাল বলেন, বিমানের ওপর মন্ত্রণালয়ের কার্যতঃ কোনো কর্তৃত্ব নেই। মন্ত্রণালয়ের সচিব শুধু বিমান পরিচালনা পর্ষদের একজন সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

গত ২৭ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বুদাপেস্টগামী বিমানের ভিভিআইপি ফ্লাইটে মধ্য আকাশে যান্ত্রিক গোলযোগের কারণ হিসেবে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের অদক্ষতাকে ইতিমধ্যে চিহ্নিত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তিনটি কমিটি পৃথকভাবে তদন্ত অব্যাহত রেখেছে। এরমধ্যে একটি কমিটির প্রাথমিক রিপোর্টের ভিত্তিতে বিমানের ৬ জনকে বুধবার সাসপেন্ড করা হয়। চাকরির বয়স শেষ হওয়ার পরও তিন দফা চুক্তিভিত্তিক নিয়োগপ্রাপ্ত বিমানের ইঞ্জিনিয়ারিং শাখার পদস্থ এক কর্মকর্তার অদক্ষতা ও গাফিলতির প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি। শিগগিরই তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে।

নতুন প্রজন্মের উড়োজাহাজ বোয়িং ৭৭৭-ইআর ৩০০ পরিচালনায় উচ্চতর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এক কর্মকর্তা গতকাল বৃহস্পতিবার জানান, উক্ত ভিভিআইপি ফ্লাইটটি পাকিস্তানের আকাশসীমা অতিক্রম করার পর ক্যাপ্টেন উড়োজাহাজের মনিটরে বাম দিকের অয়েল ট্যাংকে তেলের পরিমাণে গরমিল দেখতে পান। অল্প সময়ের মধ্যেই মনিটরে ‘লো অয়েল প্রেসার’ সংকেত দেয়। এই বোয়িং উড়োজাহাজের ‘চেক লিস্টে’ বলা হয়েছে, আকাশে এ ধরনের সংকেত পাওয়া গেলে অতি দ্রুত ওই পাশের ইঞ্জিনটি বন্ধ করে দিতে হবে। এরপর নিকটবর্তী কোনো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করতে হবে। এটা অনুসরণ করা বাধ্যতামূলক। একটি ইঞ্জিন বন্ধ করার পর অপর ইঞ্জিনের সাহায্যেই উড়োজাহাজ আকাশে উড়তে পারে। সূত্র জানায়, ইঞ্জিনের মধ্যেই রয়েছে অয়েল ট্যাংক। অয়েল সরবরাহ স্বাভাবিক না থাকলে ইঞ্জিন উত্তপ্ত হয়ে যায়। ফলে ইঞ্জিনে যেকোনো মুহূর্তে আগুন ধরে যেতে পারে। আর আগুনের সূত্রপাত হলে তা অয়েল ট্যাংকারের উপরে জ্বালানি (ফুয়েল) ট্যাংকিতে ছড়িয়ে পড়তো। কিন্তু তুর্কমেনিস্তানের আশগাবাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফ্লাইটটি জরুরি অবতরণ পর্যন্ত ইঞ্জিনটি চালু রাখা হয়। যা ছিল ঝুঁকিপূর্ণ। তবে আকাশে আগুন ধরাসহ বড় ধরনের কোনো দুর্ঘটনা থেকে এই উড়োজাহাজ রক্ষা পায়। ইঞ্জিনের নাটবল্টু ঢিলা থাকাটা ছিল রহস্যজনক। কেননা কারো হাত ছাড়া অন্য কোনোভাবে এটি ঢিলা হওয়ার কথা নয়। যে কারণে এটা নাশকতার চেষ্টা কিনা তদন্তে এ বিষয়টিতে জোর দেওয়া হচ্ছে।

বুধবার বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের দেওয়া প্রাথমিক তদন্ত রিপোর্টে বলা হয়েছে, অয়েল ট্যাংকের ভেতরের একটি নাট-বল্টু ঢিলা ছিল। এ কারণে ট্যাংক থেকে অয়েল বের হয়ে পড়ে যায়। কেন তা ঢিলা ছিল তা খতিয়ে দেখছে তদন্ত কমিটি। এটা নাশকতার (সাবোটাজ) মূল আলামত হিসেবে দেখা হচ্ছে।।

নজরদারিতে বরখাস্তকৃত ৬ জনঃ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের গঠিত তদন্ত কমিটির প্রাথমিক রিপোর্টের সুপারিশ অনুযায়ী বুধবার প্রকৌশল শাখার ৫ জন গ্রাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার ও একজন টেকনিশিয়ানকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এরা হলেন- গ্রাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার এসএম রুকনজ্জামান, সামিউল হক, লুত্ফর রহমান, মিলন চন্দ্র বিশ্বাস, জাকির হোসাইন এবং টেকনিশিয়ান সিদ্দিকুর রহমান। তাদের সকলকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘ জীবন কামনায় দোয়া ও প্রার্থনা সভা ঃ প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘ জীবন কামনা করে আজ সারাদেশে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। দোয়া ও প্রার্থনা কর্মসূচির অংশ হিসেবে শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররমে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল, দুপুর ১২টায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির প্রাঙ্গণে প্রার্থনাসভা, সকাল সাড়ে ১০টায় মেরুল বাড্ডা আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ মন্দিরে বৌদ্ধ সম্প্রদায় এবং খ্রিস্টান সমপ্রদায় মিরপুরের সেনপাড়ায় সকাল ৯টায় বাংলাদেশ ব্যাপ্টিস চার্চ সংঘে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে। দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগ এবং সকল সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও সর্বস্তরের জনগণকে এই দোয়া ও প্রার্থনা কর্মসূচি পালনের অনুরোধ জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী গত রবিবার হাঙ্গেরি যাওয়ার পথে মধ্য আকাশে তাঁকে বহনকারী উড়োজাহাজে যান্ত্রিক গোলযোগ দেখা দেয়। পরে ক্যাপ্টেন গতিপথ পরিবর্তন করে নিকটবর্তী আশগাবাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফ্লাইটটি জরুরি অবতরণ করান।-ইত্তেফাক

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: