সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নিজের জমির ধান কাটতে বাধা দেয়ায় পিটিয়ে হত্যা

2747_1রাজনগর প্রতিনিধি ::
মৌলভীবাজারের রাজনগরের কামারচাক ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে আসক মিয়া (৬০) নিজের জমিতে ধান লাগিয়ে ছিলেন। ধানও প্রায় পেকে গিয়েছে। জমির ক্রয়সূত্রে মালিকও আসুক মিয়া। কিন্তু এমন সময় একই গ্রামের তারা মিয়া ওই জমির মালিকানা দাবি করেন। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে সালিশের মাধ্যমে শেষ করার জন্য নির্ধারিত তারিখও ছিল গতকাল শনিবার সন্ধ্যায়। কিন্তু তার আগেই তারা মিয়ার লোকজন তাকে পিটিয়ে হত্যা করেন আসক মিয়াকে।
রাজনগর থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। পুলিশ, স্থানীয় সূত্র ও নিহতের স্বজনরা জানান, প্রায় ৩০ বছর ধরে ইসলামপুর মৌজায় ২৫ শতক জমি ক্রয়সূত্রে ভোগদখলে আছেন কামারচাক ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের আসক মিয়া (৬০)। চলতি রোপা আমন মৌসুমেও তিনি ওই জমিতে ধান লাগিয়েছেন। জমির ধান পেকে যাওয়ার আগেই একই গ্রামের তারা মিয়া (৬২) ওই জমির মালিকানা দাবি করেন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য স্থানীয় পঞ্চায়েতের আতাউর রহমান সোহেল উদ্যোগ নেন। তিনি উভয়পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় উভয় পক্ষ নিজেদের বৈধ কাগজ ও ৫ হাজার টাকা করে স্থানীয় ইউপি সদস্যের হাতে জমা দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

এদিকে তারা মিয়ার লোকজন শনিবার সকালেই ওই জমির ধান কাটতে যান। এ সময় আসক মিয়া তাদের বাধা দেন। জমিনে ধান কাটতে আসা তারা মিয়ার ছেলে হুছন মিয়া, হাছান মিয়া. টাইগার জলিলের ছেলে জামাল মিয়াসহ ১০-১৫ জন ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে পিটিয়ে আহত করে ওই জমিতেই ফেলে যান। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যার হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।
খবর পেয়ে রাজনগর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হামলাকারীদের কাউকেই পায়নি। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।

স্থানীয় পঞ্চায়েতের আতাউর রহমান সোহেল বলেন, উভয় পক্ষ বিরোধে জড়ালে আমি মীমাংসার উদ্যোগ নিই। কিন্তু তারা মিয়া বিষয়টি প্রথমে মানলেও পরে না মেনে কয়েকজন ভাড়াটে দিয়ে এ কান্ড ঘটিয়েছে।
রাজনগর থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বণিক বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে আসামি গ্রেফতারের জন্য থানার ফোর্স পাঠিয়েছি। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। মার্মান্তিক এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: