সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুনামগঞ্জের এসএসসি পরীক্ষার্থীর ফরম ফিলাপ করতে না পেরে সেই ন্যাশনাল স্কুল ভাংচুর!

unnamed-5সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম ফিলাপের টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যাওয়া সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের ন্যাশনাল পাবলিক স্কুলের পরিচালক ও অধ্যক্ষের হদিস না মেলায় ওই স্কুলের বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা স্কুলের অফিস কক্ষ ও শ্রেণী কক্ষগুলো ভাংচুর করে।

বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানায়, উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ইছবপুরের গ্রামের মৃত হাজি আবুল হোসেন মুন্সীর ছেলে বাণিজ্যিক কেন্দ্র বাদাঘাট-সুনামগঞ্জ সড়কের পাশে দু’চালা টিনের তৈরী মার্কেট ভাড়া নিয়ে ২০১২ সালে সরকারি অনুমোদপ্রাপ্ত প্রচারণা দিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করে ন্যাশনাল পাবলিক হাই স্কুল। ১ম থেকে ৯ম শ্রেণীতে অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা পাঠদান করার প্রলোভন দেখিয়ে বিজ্ঞান, মানবিক শাখায় ভর্তি করা হয় ওইসব শিক্ষার্থীদের। এর পর হাইব্রিড পদ্ধতিতে রেজিষ্টেশন ও ফরম ফিলাপের কথা বলে আসন্ন এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের সুযোগ দেয়ার নামে নির্বাচনী পরীক্ষায় এক বিষয়ে অকৃতকার্য্য ৬ শিক্ষার্থীর নিকট থেকে ফাঁদে ফেলে ফরম ফিলাপের সুযোগ দেয়ার নামে ১৭ থেকে সর্ব্বোচ্য ২০ হাজার জনপ্রতি হাতিয়ে নিয়ে কয়েকদিন ধরে উধাও হয়ে যান।

এদিকে এ নিয়ে শনিবার সকাল থেকে সন্ধা পর্য্যন্ত স্কুলের প্রবেশদ্বার তালাবদ্ধ দেখতে পায় শিক্ষার্থীরা। উদ্ভিগ্ন অভিভাবক সহ শিক্ষার্থীরা শরাপন্ন হয় এলাকার স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানের নিকট। এদিকে রোবাবার ফের ফরম ফিলাপ করার আশায় বেলা ১টার দিকে স্কুলে গিয়ে দেখতে পায় ওই প্রতিষ্ঠানে কোন শিক্ষকই নেই, অধ্যক্ষ’র হদিস মিলছে না। এক পর্যায়ে অপেক্ষায় বসে থাকা শিক্ষার্থী ও ওই স্কুলের অন্যান্য শিক্ষার্থীরা সম্মিলিত হয়ে স্কুলের অফিস কক্ষ ও অন্যান্য শ্রেণী কক্ষে ভাংচুর চালায়। এরপর শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগণ স্কুলের সামনে সমবেত হয়ে তাৎক্ষণিক এক প্রতিবাদ সভায় প্রতারক স্কুলের অধ্যক্ষ রফিকুল ও তার সহযোগীদের গ্রেফতারের পাশাপাশী স্কুলের সমস্ত আসবাবপত্র , কাগজপত্র জব্দ করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানায় প্রশাসনের প্রতি।
এ ব্যাপারে কথিত স্কুলের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলামের বক্তব্য জানতে সোমবার ৯টায় মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ভাই আমার কলিজার টুকরা ছাত্ররাই আমার স্কুলটি ভাংচুর করেছে, ওরা নষ্ট হয়ে গেছে।’ তিনি এও বলেন শিক্ষার্থী পরিচয়ে ফরম ফিলাপ করতে পারেনি বলে যারা আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে তারা মুলত আমার স্কুলের শিক্ষার্থীই না।’

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: