সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ২৭ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন বিশ্বনাথের দুই সাংবাদিক নেতা

স্টাফ রিপোর্টার ::
আসন্ন সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৯ নম্বর বিশ্বনাথ উপজেলা ওয়ার্ডে দুজন সাংবাদিক নেতা প্রার্থী হচ্ছেন। তাঁরা দুজনই বিশ্বনাথে দুটি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক। একজন বিশ্বনাথ থেকে প্রকাশিত একটি পাক্ষিক পত্রিকার সম্পাদক-প্রকাশক। অপরজন জাতীয় ও স্থানীয় দুটি দৈনিকের প্রতিনিধি। উল্লেখ্য, বিশ্বনাথে দুটি প্রেসক্লাব রয়েছে। একটির কার্যালয় বিশ্বনাথ পুরানবাজারে এবং অপরটির কার্যালয় নতুনবাজারে।
picture-sajul-biswanath-sylhet-08-11-2016মোসাদ্দিক হোসেন সাজুল : আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৯ নম্বর বিশ্বনাথ ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী হচ্ছেন বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক, বিশ্বনাথ বার্তার সম্পাদক ও সমাজকর্মী¡ মোসাদ্দিক হোসেন সাজুল। নির্বাচনকে সামনে রেখে সমর্থন আদায়ে তিনি ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তিনি উপজেলার বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নের ভোগশাইল গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান। দীর্ঘদিন থেকে সাংবাদিকতার পাশাপাশি রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। গ্রামের স্কুলে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করে ১৯৮৮ সালে বিশ্বনাথের ঐতিহ্যবাহী রামসুন্দর অগ্রগামী উচ্চবিদ্যালয়ে ভর্তি হন। তিনি ১৯৯০ সালের স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের বিশ্বনাথ থানার সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হিসেবে আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। ১৯৯২ সালে থানা ছাত্রলীগের সদস্য ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট বিশ্বনাথ শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৯৪ সালে বিশ্বনাথ ডিগ্রি কলেজে ছাত্র থাকাকালীন ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন। একই সনে তিনি দৈনিক মানচিত্র পত্রিকার বিশ্বনাথ প্রতিনিধি হিসেবে সাংবাদিকতা শুরু করেন পাশাপাশি বিশ্বনাথ পুরান বাজারস্থ ওয়াহাব মার্কেটে নিজস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন। ১৯৯৫ সালের ভোট ও ভাতের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে রাজপথে সক্রিয় ভূমিকা রাখতে গিয়ে ১৯৯৬ সালের ৮ মার্চ সন্ত্রাসীদের বুলেটের সম্মুখীন হন। তিনি বিশ্বনাথ থানা ছাত্র কল্যাণ পরিষদের সদস্য থাকাকালীন সামাজিক উন্নয়নমূলক সংগঠন হিলফুল ফুযুল ভোগশাইল নামক এ সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন এবং সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৭ সালে সাংবাদিক মোসাদ্দিক হোসেন সাজুল জাতীয় দৈনিক ভোরের কাগজ ও দৈনিক জালালাবাদ পত্রিকার বিশ্বনাথ প্রতিনিধির দায়িত্ব পান এবং দীর্ঘদিন নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০২ সালে মাসিক দর্পণ পত্রিকায় নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে যোগদান করেন পাশাপাশি সিলেট শহরের আম্বরখানা ও মিরবক্সটুলায় নিজস্ব ফার্মেসি পরিচালনা করেন। ২০০৩ সালে সিলেটস্থ বিশ্বনাথ থানা সমিতির (বিথাশ) সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০০৩ সালে তিনি আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সিলেট জেলা কমিটিতে স্থান করে নেন এবং গবেষণা ও পাঠাগার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৪ সালের শেষের দিকে তিনি যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান। যুক্তরাজ্যে অবস্থানকালে তিনি বাংলা টিভি ও সাপ্তাহিক জনমত পত্রিকার কভেন্ট্রি প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেন এ সুবাদে লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবে সদস্য পদ লাভ করেন। একই সাথে তিনি আওয়ামী রাজনীতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। এসময় তিনি কভেন্ট্রি ও মিলটনকিংস্ এলাকায় স্বাধীনতার পক্ষের যুব সমাজকে একত্রিত করে যুবলীগের কমিটি গঠন করেন এবং কভেন্ট্রি যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ২০১২ সালে পুনরায় দেশে ফিরে এসে ব্যবসায় মনোনিবেশ করেন। ২০১২ সালে দৈনিক সিলেট সুরমা পত্রিকায় বিভাগীয় সম্পাদক হিসেবে যোগদান করেন। ২০১৩ সালে বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী সদস্য মনোনীত (বর্তমানে সাধারণ সম্পাদক) হন। ২০১৪ সালে পাক্ষিক বিশ্বনাথ বার্তা নামে একটি পত্রিকা প্রকাশ করেন। এ পত্রিকার বিজ্ঞাপনের আয় থেকে তিনি ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, হার্ড ক্যাম্প, শীতার্থদের মধ্যে কম্বল বিতরণ, গরিব রোগীদের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণসহ বিভিন্নভাবে সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রেখে চলেছেন।
photoপ্রনঞ্জয় বৈদ্য অপু : ৯ নম্বর বিশ্বনাথ উপজেলা ওয়ার্ডে সদস্য প্রার্থী হচ্ছেন বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এবং দৈনিক উত্তরপূর্ব, বাংলাটিভি-ইউকে ও সিলেট ভিউ২৪.কম-এর বিশ্বনাথ প্রতিনিধি প্রনঞ্জয় বৈদ্য অপু। নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি সকল ভোটারের সমর্থন আদায়ের জন্য প্রতিদিন উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।
বিশ্বনাথ উপজেলার অলংকারী ইউনিয়নের টুকেরকান্দি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন স্বর্গীয় প্রভাত বৈদ্য ও অরুণা রাণী বৈদ্য দম্পতির জ্যেষ্ঠ পুত্র বিশ্বনাথ ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রনঞ্জয় বৈদ্য অপু। বর্তমানে তিনি পরিবারের সঙ্গে উপজেলা সদরের বসবাস করে আসছেন। তিনি দীর্ঘ প্রায় এক যুগ ধরে সাংবাদিকতার পেশায় রয়েছেন। সাংবাদিকতা জীবনে এরই মধ্যে প্রনঞ্জয় বৈদ্য অপু উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত সাংবাদিকদের স্মৃতি পরীক্ষা ও সংবাদ লেখা প্রতিযোগিতায় টানা তিন বার প্রথম স্থান অধিকার করেছেন।
বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক, বিশ্বনাথ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতির দায়িত্বের পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন এবং সমাজসেবামূলক র্কমকান্ডের সাথে তিনি জড়িত আছেন। বিগত সময়ে উদিয়মান সাংবাদিক প্রনঞ্জয় বৈদ্য অপু বিশ্বনাথ উপজেলা স্কাউটসের সহকারী কমিশনার, বিশ্বনাথ উপজেলা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্বসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন।
প্রনঞ্জয় বৈদ্য অপুর সম্পাদনায় ২০০৬ সালে বিশ্বনাথ থেকে প্রকাশিত হয় ‘সাপ্তাহিক বিশ্বনাথ’ নামক (রেজিস্ট্রেশনবিহীন) বিশ্বনাথের প্রথম সাপ্তাহিক পত্রিকা। এছাড়া তার সম্পাদনায় প্রকাশিত হয়েছে ‘বাসিয়ার বাঁকে, নবীনের কেতন উড়ে, জীবন, বাসিয়া পাড়ের ক্রিকেট, ঈদ বাজার, উল্লেখযোগ্য সংবাদ’সহ একাধিক স্মারক। তাঁর অভিনীত ‘স্বপ্ন’ নাটক বিভিটিতে ও ‘চাকা’ নাটক দিগন্ত টিভিতে এবং ‘কাঁচের আয়না’ মিউজিক ভিডিও’র ‘কোন স্বর্গ সুখে’ গানটি চ্যানেল এস-এ প্রচারিত হয়েছে।
নির্বাচনকে সামনে নির্বাচনকে সামনে রেখে ৯ নম্বর ওয়ার্ডে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের নির্বাচনি সীমারেখার মধ্যে ভোটার ও শুভাকাক্সক্ষীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি সমাজের সর্বস্তরের মানুষের কাছে দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: