সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৫৩ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বনসাই শিল্পী সাইফুল কাদের সিলেটের গৌরব


saiful-kader-pic1মারুফ হাসান
 ::
উদ্ভিদ চর্চার এক বিষ্ময়কর অবদান ‘বনসাই’। ‘বনসাই’ (Bonsai) একটি জাপানী শব্দ। ‘বন’ মানে অগভীর ট্রে এবং ‘সাই’ মানে গাছ। যার আক্ষরিক অর্থ অগভীর বা থালা জাতীয় পাত্রের গাছ। ইংরেজীতে যাকে বলা যায় Tree in a tray. প্রকৃত পক্ষে এর অর্থ আরো ব্যাপক। বনসাই একটি জীবন্ত শিল্পকর্ম। ক্ষুদ্রের মধ্যে শিল্পের প্রয়োগে বৃহত্তর আকৃতির প্রকৃতিতে সৃষ্টি করাই বনসাইয়ের আসল রহস্য। যার প্রতিটি শিকড়ে, কাণ্ডে, শাখা-প্রশাখা, পাত্রে-পুষ্পে-ফলে এবং ভঙ্গিমায় থাকবে বিশাল বা প্রাচীন বৃক্ষের অপরূপ ব্যঞ্জনা।

‘বনসাই’ শব্দটি জাপানী হলেও এর উৎপত্তি চীনে। চীনে এর পরিচিতি ছিল ‘পানসাই’ হিসেবে। বৌদ্ধ সন্ন্যাসীদের কাছে ‘পানসাই’ ছিল ঈশ্বরের সাথে যোগসূত্রের মাধ্যম, অর্থাৎ ধর্মীয় বস্তু। মনে করা হয় দ্বাদশ শতাব্দীতে এটা প্রথম জাপানে আমদানী হয়। বনসাই-এর পরিধি এক সময় বৌদ্ধ সন্ন্যাসী এবং অভিজাত শ্রেণীর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও উনবিংশ শতাব্দীতে এটি সাধারণ মানুষের চর্চার বিষয় হয়ে উঠে।

saiful-kader-pic-4প্রিয় পাঠক আজ আপনাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেব আমাদের সিলেট বিভাগের গৌরব গুণী বনসাই শিল্পী সাইফুল কাদেরে সঙ্গে। পেশায় শিক্ষক সাইফুল কাদের দীর্ঘদিন থেকে বনসাই-এর চর্চা করে আসছেন। নিয়েছেন উচ্চতর প্রশিক্ষণ। নিজের বাসা ও গ্রামের বাড়িতে গড়ে তুলেছেন বনসাইয়ের বিশাল সম্রাজ্য।

বনসাই নিয়ে সাইফুল কাদের বললেন, ১৯৯৪ সালের কথা। আমি তখন পড়ালেখার জন্য ঢাকাতে থাকি। ধানমণ্ডির ক্রিকেট ক্লাব মাঠে অনুষ্ঠিত বৃক্ষমেলার একটি স্টলে অদ্ভূত একটি গাছ দেখে থমকে দাঁড়ালাম। টবের মধ্যে ছোট্ট একটি গাছ। দেখতে ঠিক যেন একটি বিশাল বৃক্ষ। এরপর প্রতিদিন মেলায় গিয়েছিলাম শুধুমাত্র ওই গাছটি দেখার জন্য। জেনিছি এর নাম বনসাই। সেই থেকে বনসাই-এর নেশায় পড়ে গেলাম। অদ্ভূত এক ভাললাগা তৈরী হলো এর প্রতি। কিছুদিন পরেই একটি দৈনিক পত্রিকায় বনসাই সম্পর্কে ফিচার পড়ে কিছুটা আইডিয়া নিয়ে শুরু করি বনসাই চর্চা। সেই থেকে চলছে।

২০০২ সালে ঢাকাতে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ বনসাই সোসাইটির প্রদর্শনীতে সোসাটির সদস্য হন সাইফুল কাদের। নিয়মিত সদস্য হিসেবে প্রতি বছরই অংশ নিয়েছেন বনসাই প্রদর্শনীতে। ১৫তম বার্ষিক বাংলাদেশ বনসাই সোসাইটির প্রদর্শনীতে অংশ নিয়ে সারাদেশের বনসাই শিল্পীদের পেছনে ফেলে ১ম স্থান অর্জন করেন সাইফুল কাদের। ঢাকার ধানমন্ডির WVA (ডব্লিউ.ভি.এ) অডিটোরিয়ামে ২০১৩ সালের ৬ থেকে ৯ সেপ্টেম্বর এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এ পর্যন্ত বাংলাদেশ বনসাই সোসাইটির সদস্য হিসেবে রাজধানীর ১৪টি প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ বনসাই সোসাইটি থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বসে থাকেননি সাইফুল কাদের। ২০০৫ সালে বনসাই সম্পর্কে উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন জাপানের বিশ্বসেরা বনসাই মাস্টার সুসুমু নাকামুরার কাছ থেকে। তাছাড়া ২০১১ সালে বিশ্বসেরা আরেক বনসাই মাস্টার ইয়াসুহিসা ইয়ামাগুছির কাছ থেকেও প্রশিক্ষণ নেবার সুযোগ হয়েছিল তাঁর। হবিগঞ্জে নিজেদের বাসার ছাদে সাইফুল কাদের গড়ে তুলেছেন বনসাই সম্রাজ্য। এছাড়াও নিজ গ্রাম চুনারুঘাট উপজেলার বগুলায় রয়েছে তার বনসাই সাধনার আরেক নিদর্শন ‘‘কামিল্যান্ড বনসাই গার্ডেন’’।

saiful-kader-pic-3প্রশিক্ষণ আর বনসাইয়ের প্রতি ভালবাসাই সাইফুল কাদেরকে এনে দিয়েছে বিরল সম্মান। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বনসাই প্রেমীরা ছুটে আসেন তাঁর স্থাপিত কামিল্যান্ড বনসাই গার্ডেনে। বিভিন্ন প্রজাতির অসংখ্য বনসাই রয়েছে তার সংগ্রহে। ফলে এর বাণিজ্যিক বিষয়টিও এই শিল্পের অনুপ্রেণা হয়ে রয়েছে শিক্ষক সাইফুল কাদেরের কাছে।

ভবিষ্যত পরিকল্পনা জানতে চাইলে সাইফুল বলেন, বনসাই নিয়ে আমার তেমন কোনো পরিকল্পনা ছিলো না। বড়জোড় প্রদর্শণী করা পর্যন্ত। সোসাইটির ১ম পুরস্কার অর্জনের পর থেকে আমার আগামী দিনের বনসাই চর্চার চলার পথ আরও প্রশস্ত হয়। তবে এখন আমি বনসাই-এর পাশাপাশি বিভিন্ন প্রকারের ‘সাইকেই’ নিয়ে কাজ করছি। সাইকেই মূলত বনসাই দিয়ে বিভিন্ন প্রকারের পাহাড়, অরণ্য, নদী ইত্যাদির মাধ্যমে টবে বা থালা জাতীয় পাত্রে ভূমিরূপ তৈরী করা।
সাইফুল আরো বলেন, বনসাই এক প্রকার জীবন্ত শিল্প। এর প্রতি নেশা থাকাটা খুবই পজেটিভ। শখের পাশাপাশি বনসাই-এর ভাল একটি ব্যবসায়িক দিকও রয়েছে।

মৌলভীবাজার জেলার শমশেরনগর সুজা মেমোরিয়াল কলেজে ‘‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি’’ বিষয়ের সিনিয়র প্রভাষক সাইফুল কাদের রসায়ন বিজ্ঞানে অনার্সসহ মাস্টার্স করেছেন। নেটওয়ার্ক কম্পিউটিং এর উপর নিয়েছেন উচ্চতর প্রশিক্ষণ। জাতীয় শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত সিলেবাসের আলোকে রচিত একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারিত পাঠ্যপুস্তক ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি’ বইয়ের লেখক তিনি। সিলেট বিভাগের গৌরব বনসাই শিল্পী সাইফুল কাদের স্বপ্ন দেখেন বাংলাদেশে এক সময় বনসাই নিয়ে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। অংশ নেবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের বনসাইশিল্পীরা।

saiful-kader-pic-2

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: