সর্বশেষ আপডেট : ৪৩ মিনিট ৩৫ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুনামগঞ্জে ট্রেউ ইউনিয়ন সংঘের রুশ বিপ্লব বার্ষিকী পালন

downloadআল-হেলাল, সুনামগঞ্জ :: মহান রুশ সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের ৯৯-তম বার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয় সংঘ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ৭ নভেম্বর বিকেলে শহরের জামাইপাড়াস্থ হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয়ে ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের জেলা সভাপতি বাদল সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম, সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান কবির ও বিশেষ অতিথি হিসেবে হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সুনামগঞ্জ জেলা শাখার নেতা নিরঞ্জন তালুকদার। ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও বারকি শ্রমিক সংঘের সভাপতি মোঃ নাছির মিয়ার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন হোটেল রেস্টুরেন্ট মিস্টি বেকারী শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লিলু মিয়া ও কোষাধ্যক্ষ আশরাফুল হক মাকুল, বারকি শ্রমিক সংঘের সহ-সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের সদস্য বিনন্দ কর, স’মিল শ্রমিক সংঘের যুগ্ম-আহবায়ক মনির মিয়া, হকার্স ইউনিয়নের নেতা রহমত আলী, বারকি শ্রমিকনেতা আব্দুল কাদির, হোটেল শ্রমিকনেতা মুহিবুর রহমান ও আব্দুল জলিল প্রমূখ। সভায় বক্তারা বলেন ১৯১৭ সালের ৭ নভেম্বর কমরেড লেনিনের নেতৃত্বে বলশেভিক পার্টি রাশিয়ায় সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব সম্পন্ন করে মানুষ কর্তৃক মানুষকে শোষণের শোষণমূলক সমাজ উচ্ছেদ করে শোষণহীন সমাজতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থা কায়েম করে। পৃথিবীতে দাস সমাজ থেকে পুঁজিবাদী সমাজ পর্যন্ত সমাজ বিকাশের ক্রমধারায় বিভিন্ন স্তরে শ্রেণী শোষণের রূপের পরিবর্তন ঘটলওে মানুষ কর্ত্বক মানুষের উপর শোষণ অব্যাহত ছিল। রুশ বিপ্লবের মধ্যে দিয়েই পুজিঁবাদী সাম্রাজ্যবাদী শোষণমূলক ব্যবস্থার বিপরীতে শোষণহীন সমাজতান্ত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠিত হয়। একারণেই রুশ বিপ্লবের তাৎপর্য বিশ্ব শ্রমিকশ্রেণীর নিকট মহিমান্বিত। আলোচনা সভায় বক্তারা রুশ বিপ্লবের ঐতিহাসিক শিক্ষা নিয়ে আমাদের দেশের জনগণের তিন শত্রু সাম্রাজ্যবাদ, সামন্তবাদ ও আমলা-দালাল পুঁিজ ও তাদের স্বার্থরক্ষাকারী স্বৈরাচারী সরকার ও রাষ্ট্রকে জাতীয় গণতান্ত্রিক বিপ্লবের মাধ্যমে পরিবর্তন সাধন করে শ্রমিক-কৃষক-জনগণের সংবিধান সভা, সরকার ও রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে সাম্রাজ্যবাদ ও তার দালাল সরকার বিরোধী সকল সংগঠন, শক্তি ও ব্যক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে দূর্বার আন্দোলন-সংগ্রাম গড়ে তোলার আহবান জানান।

আলোচনা সভায় এক প্রস্তাবে বর্তমান বাজারদরের সাথে সংগতিপূর্ণভাবে শ্রমিক-কর্মচারীদের জন্য ন্যূনতম মূল মজুরি ১০ হাজার টাকা ঘোষণা, আইএলও কনভেনশন অনুযায়ী শ্রম আইন প্রণয়ন, ৮ ঘন্টা কাজ, শ্রম আইন কার্যকর, সমকাজে সমমজুরি, ধোপাজান চলতি নদী থেকে পরিবেশ ধ্বংসকারী বোমা মেশিন ও ড্রেজার উচ্ছেদ এবং চাঁদাবাজি বন্ধ করা, হোটেল ও স’মিলসহ বিভিন্ন সেক্টরে সরকার ঘোষিত নিম্নতম কার্যকর, হোটেল শ্রমিক রিয়াদ হত্যাকারী খুনী আরিফুল ইসলাম সোহেলকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: