সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৫০ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মন্দিরে হামলা মানবতা বিরোধী অপরাধ —– এ্যাড. মাহবুব আলী এমপি

pic-madhabpur-05-11মাধবপুর প্রতিনিধি ::
‘যারা মন্দিরে হামলা করেছে এবং হিন্দু পরিবারের বাড়িঘর ভাঙচুর করেছে তারা মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করেছে। মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত এ বাংলাদেশের এসব অপরাধীকে ক্ষমা করা হবে না। তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে জয় বাংলা বাদ দিয়ে যারা জিন্দাবাদ স্লোগান দিয়ে সংবিধানের মূল চেতনা পাল্টে দিয়েছিল, তাদের দোসররাই এ হামলার সাথে জড়িত। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা পর ২১ বছর বিএনপি-জামায়াত জোট এ দেশের সম্পদ লুট করে সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া পাচার করেছে। তাদের উত্তরসূরিরাই ধর্মের অজুহাত দিয়ে হামলা করেছে।

গতকাল শনিবার সকালে মাধবপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ৪৫ তম জাতীয় সমবায় দিবসে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাধবপুর-চুনারুঘাট আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. মাহবুব আলী এ কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, ৭১’এর পরাজিত শক্তি শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও যুদ্ধপরাধ বিচার প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করতে ২০১২ সালে ২৯ সেপ্টেম্বর ধর্মীয় উন্মাদনায় একটি মৌলবাদ চক্র রামু বৌদ্ধ মন্দিরে তান্ডব চালিয়ে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছিল। এর ধারাবাহিকতায় ওই চক্রটি গত ৩০ অক্টোবর নাসিরনগর ও মাধবপুরে মন্দির ও হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে। তিনি বলেন, মাধবপুরে বিষাক্ত সাপ ফনা তুলে দাঁড়িয়েছে। এদের ইন্ধনেই মন্দিরে হামলা হয়েছে। হামলার সময় অনেক জনপ্রতিনিধি মাধবপুরেই ছিলেন। তাঁদের দায়িত্ব আজ প্রশ্নবোধক।

মাহবুব আলী এমপি বলেন, আমি সংসদ সদস্য হয়ে মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দিতে না পারলে সংসদ সদস্য পদ ছেড়ে দেব। কিন্তু মন্দিরে হামলার সঙ্গে জড়িত মানবতাবিরোধী অপরাধীদের সঙ্গে কোনো আপস করা হবে না। নেপথ্যে নায়েকদেরও খুঁজে বের করা হবে। প্রয়োজনে মাধবপুরে র‌্যাব, বিজিবি ও পুলিশের যৌথ অভিযানে দোষীদের খুঁজে বের করা হবে।

তিনি বলেন, প্রশাসন কিংবা পুলিশের কোনো দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, ঢাকায় গুলশান হলি আর্টিজমে বিদেশিদের হত্যা করে ওরা দেশকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। তাদের দোসররাই এখন ফেসবুকে ভুয়া তথ্য দিয়ে ধর্মীয় উন্মাদনা সৃষ্টি করে রামু স্টাইলে নাসিরনগর ও মাধবপুরে হামলা করেছে। এক্ষেত্রে দলীয় নেতাদের গাফিলতির অভিযোগ থাকলে তাদেরকেও জবাব দিতে হবে।

মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোকলেছুর হমানের সভাপতিত্বে সমবায় দিবসের র‌্যালি শেষে আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর নুর, মুক্তিযোদ্ধা সুকোমল রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাহিদ বিন ইসলাম, চেয়ারম্যান ফারুক পাঠান, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল কুদ্দুস মাখন, সমবায় নেতা খেলু নায়েক, সাংবাদিক আলাউদ্দিন, আইয়ুব খান, মিজানুর রহমান, টেম্পো শ্রমিক সভাপতি হাজি ফিরোজ।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: