সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৫০ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জামালগঞ্জে খাদ্য পরিদর্শককে উৎকোচ না দেওয়ায় ডিলারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ

2-daily-sylhet-666-2জামালগঞ্জ প্রতিনিধি:: জামালগঞ্জ উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক মো: রফিকুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে খাদ্যবান্ধব কর্মসুচি ১০ টাকা কেজি চালের ডিলার নিয়োগের সময় বিভিন্ন অনিয়ম-দুনীতি ও স্বজ্জনপ্রীতির লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার সাচনা বাজার ইউনিয়নের ডিলার মোনতাসীম বিল্লাহ সিদ্দিকী গতকাল জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে এই অভিযোগ দায়ের কারেন।

লিখিত অভিযোগ থেকে জানান যায়, ডিলার নিয়োগের সময় থেকে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা কর্মস্থলে না থাকায় উপজেলা খাদ্য প্ররিদর্শক মো: রফিকুল ইসলাম দায়িত্ব পালন করেন। এ সময় রফিকুল ইসলাম ডিলার নিয়োগের শুরু থেকেই ইশারা-ইঙ্গীতে টাকা দাবী করে আসছিল। টাকা না দেয়ার কারণে তিনি ক্ষোব্ধ হন ওই ডিলারের উপর। ডিলারসীপ পাওয়ার পর থেকেই খাদ্য পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম তাকে ঘায়েল করতে ফন্দি ফিকির করে আসছেন। খাদ্য পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম প্রতি ডিও তে ২ হাজার টাকা করে দাবী করেন। সম্প্রতি গুদাম থেকেই চালের বস্তায়, চাল কম দেয়ার বিষয়টি স্থানীয় সিনিয়র কয়েকজন সাংবাদিকবৃন্দ গুদামে গিয়ে চাল মেপে বস্তায় কম পান। এই কম চাল ডিলারদের কে দিয়ে ভুক্তভুগীদের বিলি করান। যা বর্তমানে সাংবাদিকগণ বিভিন্ন জাতীয় আঞ্চলিক ও স্থানীয় পত্রিকায় বেশ কিছু দিন ধরে ১০ টাকার কেজি দরে চাল কমের বিষয়ে সংবাদ প্রকাশ করার কারণে। খাদ্য পরিদর্শক সাংবাদিকদের ম্যানেজ করার কথা বলে ডিলারদের কাছে মোটা অংকের টাকা নেন বলে জানা যায়। কোন কোন ডিলার টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাদের কে নানা ভাবে হয়রানি করেন। সাচনা বাজার এর ডিলার মোনতাসীম বিল্লাহ সিদ্দিকী টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে খাদ্য পরিদর্শক ওই ডিলার দোকান পরিদর্শনের নাম করে ভুক্তাদের চাল দিতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন। উনার অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন, চালের বস্তা যেখানে রয়েছে সেখানের ঘর মালিক কে ডিলার ভাড়া পরিশোধ করছেন। ভুক্তাদের কষ্ট কম হওয়ার বিষটি চিন্তা করে ওই ঘর থেকে চাল দিতে সহজ হচ্ছে। স্থানীয় সিনিয়র সাংবাদিকগণ ও সুধিজনের কাছে মিথ্যা সংবাদ ও মিথ্যা ছবি প্রকাশ করে রির্পোটের জন্য হাস্যরসের সৃষ্টি হয় যা সম্পুর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্যেশ্য প্রণোদিত। এতে ডিলার মনে করেন তার সম্মানের হানি হয়েছে ও আরো সম্মান হানির চেষ্টায় লিপ্ত আছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ডিলার জানান প্রতি ডিওতে ২ হাজার করে টাকা দিতে হয় না হয় ডিও দিতে গড়িমসী করেন খাদ্য পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম। তিনি ডিলারদের প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াকে ম্যানেজ করার কথা বলে ও আনুষাঙ্গীক খরচ দেখিয়ে ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। ডিলার জানান আমি টাকা দিতে অস্বীকার করলে আমার উপর মিথ্যা মামলা রজু করে আমাকে হয়রানি করার অপচেষ্টায় লিপ্ত আছেন।

উল্লেখ্য যে, ডিলারদের দেয়া ১০ টাকা কেজি দরে ৩০ কেজির চালের বস্তা ওজন করলে প্রতি বস্তায় ১ থেকে দেড় কেজি চাল কম পাওয়া গেছে। ডিলারদের কাছে চালের বস্তা পৌঁছার পূর্বেই উপজেলা খাদ্যগুদামে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ৩০ কেজির বস্তা ওজন করলে গুদামের ভেতরই প্রতিবস্তায় ১ থেকে দেড় কেজি চাল কম পাওয়ায় যায়। এ সময় উপস্থিত খাদ্য পরিদর্শক মো: রফিকুল ইসলামকে বিভিন্ন প্রশ্ন করলে তিনি সদুত্তর না দিয়ে বলেন, খাদ্যগুদাম ওসি এল এসডি সুনামগঞ্জ আছেন, আপনারা তার সাথে কথা বলেন। হিসেব অনুযায়ী প্রতি বস্তায় গড়ে ১ কেজি করে চাল কম হলে বর্তমান বাজার মূল্যে ১ লাখ ৮১ হাজার টাকার চাল কম দেয়া হচ্ছে প্রতি বারে।

এ ব্যাপারে তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই আনোয়ার জানান বাদীসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। প্রকাশ্য ও গোপনে তদন্ত অব্যাহত আছে। আসামী গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চলছে। মামলার বাদী উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) বিনয় কুমার দেব জানান ডিলারের অনিয়মের কারণে মামলা হয়েছে। গতকাল প্রাথমিক তদন্ত করা হয়েছে। মামলা হওয়ায় ডিলার শীপ বাতিল বলে গণ্য হবে।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত খাদ্য পরিদর্শক মো: রফিকুল ইসলামকে বারবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমা আহমেদ পলি বলেন, খাদ্য পরিদর্শকের বিরুদ্ধে ডিলারের একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বরাবরে প্রেরণ করা হয়েছে। ডিলার শীপ বাতিলের ব্যাপারে মৌখিক বা লিখিত ভাবে আমাকে কেহ জানায়নি।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: