সর্বশেষ আপডেট : ৫০ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তারেকের স্ত্রীর মামলা শুনতে বিব্রত হাইকোর্ট

1478073076নিউজ ডেস্ক:: সম্পদের তথ্য গোপনের মামলা বাতিল চেয়ে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমানের আবেদনের ওপর চূড়ান্ত শুনানি গ্রহণে বিব্রতবোধ করেছে হাইকোর্ট।

বুধবার বিচারপতি এম.ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের ডিভিশনে বেঞ্চ এই বিব্রতবোধের ঘটনা ঘটে।

পরে জোবায়দা রহমানের আবেদনটি প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠিয়ে দেয়া হয়। প্রধান চিারপতির এস কে সেনহা এখন যে বেঞ্চ নির্ধারণ করে দেবেন ঐ বেঞ্চে এই মামলার শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

২০০৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর ঘোষিত আয়ের বাইরে ৪ কোটি ৮১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৬১ টাকার মালিক হওয়া ও সম্পদেও তথ্য গোপনের অভিযোগে কাফরুল থানায় এ মামলা দায়ের করে দুদক। মামলায় তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমান ও শাশুড়ি ইকবাল মান্দ বানুকে আসামি করা হয়।
পরে একই বছরে জোবায়দা রহমানের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।

এর বিরুদ্ধে আপিল করলেও আপিল বিভাগ হাইকোর্টের আদেশ বহাল রাখেন। কিন্তু এ মামলায় আসামিপক্ষ দুদককে পক্ষভুক্ত করেনি।

গত বছরের ২ এপ্রিল দুদকের আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইতোর্ট দুদককে পক্ষভুক্ত করার আবেদন মঞ্জুর করেন। আজ এই মামলার রুলের শুনানির জন্য হাইকোর্টের কার্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত ছিল। শুনানির শুরুতে হাইকোর্ট বিব্রতবোধের বিষয়টি মামলার আইনজীবীদের জানিয়ে দেন।

এ প্রসঙ্গে দুদক কৌঁসুলী খুরশিদ আলম খান ও রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এ মনিরুজ্জামান কবির ইত্তেফাককে জানান, হাইকোর্ট মামলার শুনানি গ্রহণের জন্য বিব্রতবোধ করেছেন।

জোবায়দা রহমানের পক্ষে আদালতে ব্যারিস্টার কায়সার কামাল উপস্থিত ছিলেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: