সর্বশেষ আপডেট : ১১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জামালগঞ্জ শিক্ষকের কান্ড !! কোমলমতি দুই শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম

2-daily-sylhet-666-2জামালগঞ্জ প্রতিনিধি:: জামালগঞ্জের নয়াহালটর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল গফ্ফার কতৃক ৫ শ্রেণীর দুই শিক্ষার্থীকে অমানুষিক নির্যাতনের ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন জামালগঞ্জ সদর ইউনিয়নের নয়াহালট গ্রামের আবু আলা রনি।

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ্য করেন, নয়াহালট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল গফ্ফার কতৃক নির্যাতনে ৫ম শ্রেণীর দুই শিক্ষার্থী আবু তাইয়্যেব প্রান্ত ও আবু জাফর মারাত¦কভাবে আহত হয়েছে। উল্লেখিত দুই শিক্ষার্থীসহ কয়েকজন দুষ্টুমি করে বলে প্রধান শিক্ষকের নিকট একজন শিক্ষার্থী এসে অভিযোগ করলে প্রধান শিক্ষক রেগে গিয়ে ওই দুই শিক্ষার্থী উপর অমানুষিক নির্যাতন চালালে আবু জাফর নামক শিক্ষাথী অজ্ঞান হয়ে পড়লে এক পর্যায়ে তাদের আর্তচিৎকারে শুনে অন্য এক সহপাঠী দৌড়ে গিয়ে শিক্ষার্থীও বাড়িতে খবর দিলে তাদেও আর্তচিৎকারে শুণে পাশাপাশি অবস্থানরত লোকজন এসে শিক্ষার্থী দুইজনকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে অভিবাবকরা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে আসলে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্যাতন চিত্র দেখিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে নিয়ে গেলে যাওয়া হয়।বর্তমানে শিক্ষার্থী দুইজন কিছুক্ষণ পরপর ভয়ে শিউরে উঠে।

অভিযোগে আরো উল্লেখ্য করা হয় অভিরুক্ত প্রধান শিক্ষক প্রায় ১৫দিন পূর্বে ওই শিক্ষাথী দুজনকে আঘাত করেছিলো তখন গ্রামবাসীর চাপের মূখে ওই নির্যাতনকারী প্রধান শিক্ষক এরকম ঘটনা ক্ষমা চেয়ে অভিযোগ না করার অনুরোধ করেন। এ শিক্ষক প্রায়ই বিভিন্ন শিক্ষার্থীকে বেদম মারপিট করে থাকেন। এ শিক্ষকের ভয়ে কয়েকজন শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে আসা যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

নয়াহালট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আ: গাফফার বলেন,আমার বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনীর ছাত্রদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। আমি ওই শিক্ষার্থীকে শাসন করেছি। অন্যকোন উদ্দেশ্যে তাদেরকে শাসন করিনী। আমি ভাবিনী ঘটনাটি এত বড় হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা মো: নূরুল আলম ভুইয়া বলেন,আমি আহত দুই শিক্ষার্থীকে দেখেছি,ঘটনাটি সরেজমিনে তদন্তের জন্য নয়াহালট প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়েছি,আগামী কালই জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদন পাঠিয়ে দেবো।

এই বিষয়ে জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসলিমা আহমেদ পলি বলেন, ঘটনাটি খুবই অমানবিক। ছাত্রদের অভিভাবকের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে বলা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: