সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৪৩ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বাঁধনের এই সময়

1477552262বিনোদন ডেস্ক:: আগামীকাল লাক্স তারকাভিনেত্রী বাঁধনের জন্মদিন। অন্যান্য দিনগুলোর মতোই কাটবে তার এবারের জন্মদিনটিও। তবে ঘরোয়া আয়োজনে প্রিয় প্রিয় মানুষদের সঙ্গে সময় কাটবে কাল সন্ধ্যার পর। কঠোর পরিশ্রম ও অভিনয়গুণের মাধ্যমে নাট্যাঙ্গনে এরমধ্যে তিনি নিজের অবস্থান তৈরি করে নিয়েছেন। জয় করে নিয়েছেন অজস্র দর্শকের মন। বর্তমানে তিনি ধারাবাহিকের পাশাপাশি উপস্থাপনা ও খণ্ড নাটক নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। তাকে নিয়ে লিখেছেন মাদিহা মাহনূর।

বাঁধনের ব্যস্ততা বহুগুণ বেড়ে গেছে। নিয়মিত তিনি ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন। পাশাপাশি বিশেষ দিবসের খণ্ড নাটকেও কাজ করছেন। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে উপস্থাপনা। জিটিভিতে প্রচারিত হচ্ছে তারই উপস্থাপনায় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘আজকের অনন্যা’। উপস্থাপনার জন্য তিনি দর্শকদের কাছ থেকে দারুণ সাড়া পাচ্ছেন। বাঁধন বলেন, ‘আমি অভিনেত্রী হিসেবেই নিজের পরিচয় দিতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি। এর বাইরে শখের বশে বিজ্ঞাপনে মডেলিং কিংবা উপস্থাপনা করি। তারই ধারাবাহিকতায় গত দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে এই অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করে আসছি।’

বর্তমানে বাঁধন বেশ ক’টি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন। এর মধ্যে রয়েছে অঞ্জন আইচের ‘মেঘের পরে মেঘ জমেছে’ ও ‘রূপকথার মা’, জাহিদুল ইসলামের ‘অন্তর্জাল’, আল হাজেনের ‘লড়াই’ ও মাইনুল হাসানের ‘হাই সোসাইটি’। এছাড়া শিগগিরই প্রচারে আসছে সাখাওয়াত মানিকের ‘মেঘে ঢাকা শহর’। এর মধ্যে শরৎচন্দ্র চট্টপাধ্যয়ের ‘শেষের পরিচয়’ উপন্যাস অবলম্বনে ধারাবাহিক নাটক ‘রূপকথার মা’ নির্মিত হয়েছে। ‘রূপকথার মা’ নাটকে বাঁধন যাত্রা দলের নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করছেন। তার চরিত্রের নাম সুন্দরী।

বাঁধন বলেন, ‘ধারাবাহিকটির মতো প্রতিটি নাটকেই আমার চরিত্রের মধ্যে ভিন্নতা রয়েছে। আর আমি বিচিত্র চরিত্রে অভিনয় করতে বেশি পছন্দ করি। তাছাড়া নাটকের গল্পগুলোও খুব ভালো। তাই এগুলোতে অভিনয় করে দর্শকদের কাছ থেকে প্রত্যাশিত সাড়া পাচ্ছি।’

বাঁধন অভিনীত একমাত্র চলচ্চিত্র মুশফিকুর রহমান গুলজার পরিচালিত ‘নিঝুম অরণ্যে’। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন সজল। কিন্তু এরপর আর তাকে নতুন কোনো ছবিতে দেখা যায়নি। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘নিঝুম অরণ্য ছবির পর আর কোনো চলচ্চিত্রে কাজ করা হয়নি। দীর্ঘদিন ছোটপর্দা ও ব্যক্তিগত ব্যস্ততার কারণে চলচ্চিত্রে কাজ করার কথা ভাবার সময় পাইনি। তবে এখন আমি চলচ্চিত্রে অভনয় করতে পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছি। আমার ব্যক্তিত্বের সঙ্গে সামঞ্জস্য কোনো চরিত্র পেলে চলচ্চিত্রে অভিনয় করব। শুধু তাই নয়, বাণিজ্যিক ছবিতে অভিনয় করতেও আমার আপত্তি নেই।’

২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় রানারআপ হয়ে শোবিজ অঙ্গনে ক্যারিয়ার শুরু করেন বাঁধন। ২০০৯ সালে তিনি বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ থেকে দন্ত চিকিত্সক হিসেবে পড়াশোনা শেষ করেন। ২০১০ সালে বাঁধন ব্যবসায়ী মাশরুর হোসেন সনেটকে বিয়ে করেন। অতঃপর তিনি এক কন্যা সন্তানের মা হন। তার মেয়ের নাম সায়রা। বয়স চার বছর। তাকে নিয়ে তার অবসর সময়টা চলে যায়।

আপনি যে স্বপ্ন নিয়ে শোবিজ অঙ্গনে যাত্রা শুরু করেছিলেন, তা কতটা পূরণ করতে পেরেছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে বাঁধন বলেন, ‘এ অঙ্গনে আসার স্বপ্ন অনেকটাই পূরণ হয়েছে। তবে শতভাগ স্বপ্ন বা ইচ্ছা কখনোই পূরণ হবে না বলে মনে করছি। কারণ বিশেষ করে অভিনয় কিংবা সৃজনশীল কাজ করে মানুষ কখনোই তার স্বপ্ন পূরণ করতে পারে না। তা হলে তার পথচলা থেমে যাবে। তাই আমি অভিনয়ের অতৃপ্ত বাসনা নিয়েই সারাজীবন এগিয়ে যেতে চাই।’

বাঁধন তার ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই একটু হিসেব করে কাজ করতে ভালোবাসেন। কাজের গুণগতমান বজায় রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ‘আমি কখনো চাইনি একসঙ্গে অনেক নাটকে অভিনয় করতে। আমি আসলে নিজেকে দক্ষ অভিনেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছি। তাই একটু বেছে বেছে কাজ করছি।’

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: