সর্বশেষ আপডেট : ২৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শেখ হাসিনাকে যুবলীগের অভিনন্দন

1477396499নিউজ ডেস্ক:: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২০তম কাউন্সিল অধিবেশনে তিন বারের সফল প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা সভাপতি পদে অষ্টম বারের মতো নির্বাচিত হওয়ায় সোমবার রাতে গণভবনে সাক্ষাত করে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী ও যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ এর নেতৃত্বে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- যুবলীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত, মজিবুর রহমান চৌধুরী, মো. ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান হিরণ, আতাউর রহমান, এড. বেলার হোসাইন, ইঞ্জিনিয়ার নিখিল গুহ, আবুল বাসার, জাকির হোসেন খান, আনোয়ারুল ইসলাম, যুগ্ম-সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ মহি, মঞ্জুরুল আলম শাহীন, সুব্রত পাল, নাসরিন জাহান শেফালী, সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন মাহমুদ জাহিদ, মুহাঃ বদিউল আলম, আসাদুল হক আসাদ, মোঃ আজাহার উদ্দিন, ফারুক হোসেন তুহিন, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য কাজী আনিসুর রহমান, মিজানুল ইসলাম মিজু, সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, ইকবাল মাহমুদ বাবলু, শ্যামল কুমার রায়, ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট, উত্তর সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, দক্ষিণ ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা সহ অন্যান্য নেতারা।

এ সময় রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের নেতাদের উদ্দেশে বক্তব্যে বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ, এ দানবের বিস্তার রোধে সকল মসজিদ-মাদ্রাসার সঙ্গে নিজেদের যুক্ত রাখতে হবে। তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ একটি আন্তর্জাতিক সমস্যা। আমাদের সমস্যা আমাদের নিজস্ব পথে সমাধান করছি। এ সমস্যা সমাধানে আমরা অন্যদের ওপর নির্ভর করবো না। তিনি বলেন, ইসলাম সন্ত্রাস নয়, শান্তির ধর্ম। যারা ইসলামের নামে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে, তারা আসলে ইসলামের ক্ষতি করছে এবং ধর্মকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। তিনি স্ব-স্ব এলাকায় গণসচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে জনগণকে সাথে নিয়ে জঙ্গিবাদ নির্মূলের জন্য যুবলীগের নেতাকর্মীদের প্রতি নির্দেশ দেন।

আমরা যদি জনগণের ভোট চাই তাহলে আমরা তাদের জন্য যা করেছি তা সাধারণ মানুষকে জানাতে হবে। জনগণের দ্বারে দ্বারে গিয়ে বুঝাতে হবে একমাত্র আওয়ামী লীগের পক্ষেই দেশের উন্নয়ন করা সম্ভব। শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের হাতে আর দুই বছর দুই মাস সময় রয়েছে। যুবলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, জনগণের কাছে যান। সরকারের উন্নয়ন কাজগুলোর কথা জনগণকে জানাতে হবে। জনগণের জন্য কাজ করতে হবে।

রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা আরো বলেন, মনে রাখতে হবে, জনগণের জন্য কাজ করা জাতির পিতা আমাদের শিখিয়েছেন। আওয়ামী লীগের রাজনীতি জনগণের উন্নয়ন করার জন্য, জনগণের কল্যাণের জন্য। মানুষের ভাগ্যন্নোয়নই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য। দেশে কোনো মানুষ নিঃস্ব, ভূমিহীন থাকবে না, দরিদ্র থাকবে না। নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী দেশব্যাপী দলকে আরো শক্তিশালী করার এবং আগামী নির্বাচনের জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণের নির্দেশ দেন। প্রধানমন্ত্রী জনগণের সমর্থন পাওয়ার লক্ষ্যে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও কল্যাণে তাঁর সরকারের বাস্তবায়িত কর্মকান্ডের তথ্য জনগণের সামনে তুলে ধরার নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, আমরা যদি জনগণের ভোট চাই তাহলে আমরা তাদের জন্য যা করেছি তা সাধারণ মানুষকে জানাতে হবে। জনগণের দ্বারে দ্বারে গিয়ে বুঝাতে হবে একমাত্র আওয়ামী লীগের পক্ষেই দেশের উন্নয়ন করা সম্ভব। শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের হাতে আর দুই বছর দুই মাস সময় রয়েছে। মেয়াদ শেষ হওয়ার তিন মাস আগে নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু হবে। তাই এই সময়কে সর্বাত্মকভাবে ব্যবহার করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগই দেশের একমাত্র রাজনৈতিক দল যারা কথা দিয়ে কথা রাখে। আওয়ামী লীগ তা ইতোমধ্যে প্রমাণ করেছে এবং ভবিষ্যতেও করবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: