সর্বশেষ আপডেট : ১৯ মিনিট ৩২ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১৯ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছিলেন শ্রাবন্তী!

srabonti20161023165551বিনোদন ডেস্ক:
কালীপূজা মানেই আলোর উৎসব। নানারকম দেশি–বিদেশি আলোয় সেজে উঠবে শহর। নিজের বাড়ি আলোয় সাজিয়ে তোলেন তারকারাও। আলোর উৎসবের পাশাপাশি চলে বাজি পোড়ানো।

কালীপূজা নিয়ে ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী কলকাতার একটি গণমাধ্যমে মিষ্টি-মধুর স্মৃতিচারণ করেছেন।

কালীপূজা নিয়ে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে শ্রাবন্তী বলেন, ‘বাজি পোড়াতে আমি চিরকাল ভালোবাসি। দুর্গাপূজার বিজয়ার পরই মনে হয় কবে কালীপূজা আসবে। কালীপূজা মানেই বাজি পোড়ানো আর রঙিন আলো দিয়ে বাড়ি সাজানো।’

শৈশব টেনে শ্রাবন্তী বলেন, ‘আগে মাটির প্রদীপ বাড়িতে তৈরি হতো। আমার দাদুর সঙ্গে হাত লাগাতাম বাড়ি সাজাতে। এখন প্রদীপের বদলে এসেছে বিদেশি টুনি। আমার তো খুব ভালো লাগে। ছোটবেলায় একবার বাজি পোড়াতে গিয়ে বাজি ফেটে হাত পুড়ে গিয়েছিল। অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছিলাম। তবুও উৎসাহ একদম কমেনি। এখনো না।’

‘শিকারী’ ছবির এই নায়িকার ভাষ্য, ‘আমার থেকে আমার ছেলে ঝিনুকের উৎসাহ অবশ্য অনেক বেশি। এখন ঝিনুককে নিয়ে বাজি পোড়াই। আমার পৈতৃক বাড়ি কলকাতার পর্ণশ্রীতে। চেষ্টা করি কালীপূজার দুটো দিন যাতে শুটিং না থাকে। এখন তো টিভির জন্য খুব জনপ্রিয় একটা শো হচ্ছে। টিভিতে কাজ করে বেশ ভালো লাগছে। কালীপূজার সময় অনেকের বাড়িতে নিমন্ত্রণ থাকে। যেতে হয় ঠাকুর দেখতে। তবে একটা কথা বলতে ভুলে যাচ্ছি, আমার ছেলে ঝিনুক যখনই বাজি পোড়ায়, আমি কিন্তু ওর সঙ্গে হাজির থাকি। কখনো ওকে একা বাজি পোড়াতে দেই না।’

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: